ঝড়ে যাওয়া বকুল পর্ব:৭(শেষ পর্ব)

0
688

ঝড়ে যাওয়া বকুল পর্ব:৭(শেষ পর্ব)
#লেখা:Aditiya_Rupa
.
-ঘটকের সাথে কথা বলে ফিরে এসে চল্লিশ হাজার টাকা আর এক ভরি স্বর্ণের গহনা যৌতুক এর মাধ্যমে বিয়ে ঠিক হয় বকুলের!বকুল কেঁদেছিলো অনেক চিৎকার করে কেদেছিলো কিন্ত তার কান্নার কোন মুল্য পায়নি বকুল।
অনেক বার মায়ের পায়ে পড়ে কেদেছিলো বকুল কিন্ত তা তাকে বলে-
-আমি কি করুম বকুল এই বিয়াডা করলে তুই ভালো থাকবি মা!আর তুই এই বিয়া না করলে আমার মরা মুখ দেখবি এই কইয়া দিলাম বকুল!

মায়ের কথা শুনে থামকে যায় বকুল!এ তুমি কি বললে মা তুমি ছাড়া এ দুনিয়ায় কেউ নাই আমার তোমার কিছু হইয়া গেলে আমি বাচুম না মা! আমি এই বিয়া করুম মা তুমি তাও ওই কথা কইয়ো না।
-আমারে মাফ করিস মা এইডা না কইলে তুই বিয়াহান যে করতি না!দেখিস মা তুই খুব ভালো থাকবি!(মনে মনে কথাটা বলেই চোখ মুছলেন রেহেনা বেগম)
.
-নির্দিষ্ট দিনেই বিয়েটা হয়ে যায় বকুলের!জমি বিক্রি করে যৌতুক পরিশোধ করে বকুলের মা!লাল বেনারসি পড়ে এক বিধ্বস্ত হৃদয় নিয়ে শশুড় বাড়ি প্রবেশ করে বকুল!বিয়ের পরেরদিনই বুঝতে পারে এ বাড়ির লোকেরা তাকে কাজের লোক হিসেবেই এনেছে!শশুড় বাড়িতে তাকে গাধার মতো খাটতে হয় কিন্ত মায়ের কাছে প্রকাশ করে সে ভালো আছে!

বিয়ের একমাস পরে স্বামীর সাথে পারি জমায় শহরে হয়তো একটু ভালো থাকবে এই প্রত্যাশা বুকে নিয়ে!কিন্ত সেখানে গিয়ে জানতে পারে জামিল একজন গার্মেন্টস এর সাধারণ কর্মচারী কোন বড় কোম্পানির অফিসার নয়!তবুও মানিয়ে নেয় বকুল। মা জানতে পারলে যে খুব কষ্ট পাবে!
কিন্ত এখানে এসে জামিলের আসল চেহারা দেখতে পায় বকুল।প্রতি রাতে মদ খেয়ে এসে বকুলের উপর পাশবিক নির্যাতন চালায় জামিল!আর প্রতিদিন বাপরে বাড়ি থেকে টাকা আনার জন্য মারধর করতে থাকে!শশুড় শাশুড়িকে বললে তারা কোন শাসন করে না জামিলকে বরং তারাই যেন জামিলকে শায় দেয়।

আমার জীবনডা এমন কেন হয়ে গেল খুব তো ভালো ছিলাম সবার সাথে গ্রামে!আমি তো এমন জীবন চাই নাই আল্লাহ তবে এমন কেন হইলো আমার সাথে?আমি আর সহ্য করতে পারছি না যে! অঝোর ধারায় চোখের পানি ফেলতে থাকে বকুল এটা যে তার নিত্য দিনের কাজ!এমন সময় মাতাল হয়ে রুমে আসে জামিল-
-কিরে তরে না কইছি আইজ গ্রামে যাইয়া টাকা নিয়া আনবি তুই এহনো এইহানে রয়ছোস ক্যা?
-মা আর কোন থিকা টাকা দিব তারতো ওই বাড়িডা ছাড়া আর কিছুই নাই আপনি তো জানেনই তাইলে এমন কেন করতাছেন?
-আমার মুখের উপর কথা খারা আইজ তরে জন্মের শিক্ষা দিয়া লই!বলেই প্যান্টের বেল খুলে মারতে থাকে বকুলকে। সারাদিন না খাওয়া শরীরে মার খেয়ে নিস্তেজ হয়ে মৃত্যুর কোলে ডলে পরে বকুল।আজ তার আর সহ্য হয়নি মার এর আঘাতেই ফ্লোরে পরে থাকা বকুল শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করে!তার সাথে সাথে মরে যায় তার হাজার ও অপুর্ণ স্বপ্ন!

(আমাদের দেশে গ্রামে অঞ্চলে এমন প্রাণবন্ত হাজার হাজার বকুল হয়ছে! যারা স্বপ্ন দেখে আকাশ,ছোয়ার কিন্ত তাদের স্বপ্ন আর পুরন হয় না।অচিরেই ঝড়ে যায় এমন বকুলেরা!ঝড়ে যাওয়া বকুলের গল্প অনেক আছে হয়তো আমরা জানিনা বা জানার চেষ্টা ও করি না!)

এখনই জয়েন করুন আমাদের গল্প পোকা ফেসবুক গ্রুপে।
আর নিজের লেখা গল্প- কবিতা -পোস্ট করে অথবা অন্যের লেখা পড়ে গঠনমূলক সমালোচনা করে প্রতি মাসে জিতে নিন নগদ টাকা এবং বই সামগ্রী উপহার।
শুধুমাত্র আপনার লেখা মানসম্মত গল্প/কবিতাগুলোই আমাদের ওয়েবসাইটে প্রকাশিত হবে। এবং সেই সাথে আপনাদের জন্য থাকছে আকর্ষণীয় পুরষ্কার।

গল্পপোকার এবারের আয়োজন
ধারাবাহিক গল্প প্রতিযোগিতা

◆লেখক ৬ জন পাবে ৫০০ টাকা করে মোট ৩০০০ টাকা
◆পাঠক ২ জন পাবে ৫০০ টাকা করে ১০০০ টাকা।

আমাদের গল্প পোকা ফেসবুক গ্রুপে জয়েন করার জন্য এই লিংকে ক্লিক করুন: https://www.facebook.com/groups/golpopoka/?ref=share

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here