প্রিয় তারাগুলি-লেখায়ঃফাইজা হাবীব নীবুলা

0
798

#গল্পপোকা_চিঠি_প্রতিযোগিতা_২০২০
লেখায়ঃফাইজা হাবীব নীবুলা
প্রিয় তারাগুলি,
আকাশের হাজার হাজার মিটমিট তারার সাথে মিতালি আমার জন্মলগ্ন থেকেই।নীবুলা এই নামখানা বাবা ডিকশনারী দেখে রেখেছিলো।দেখো আমার বন্ধুরা,বাবাটা আমার কত বোকা!তিনখানা নামের বই কিনেও নাম ঠিক করতে পারে নি।তাই তো তোমাদের সাথে বন্ধুত্ব সেই ঊষালগ্ন থেকে।ছোট বেলা থেকেই হাজার কথার ফুলঝুড়ি তোমাদের সাথে,গুনগুন করে গান ও তোমাদের সাথে গেয়েছি,কখনো মন খারাপ হলে ছাদে পাটি বিছিয়ে সারা রাত আকাশের দিকে তাকিয়ে চোখের জল ফেলেছি।তুমি তো জানো, জন্মলগ্নেই মা ছেড়ে গিয়েছে আমায়,আর বাবা বলে মা নাকি আকাশের তারা হয়ে গিয়েছে। তাই তো আমার সব কথা,সব অনুভূতির প্রকাশ আকাশের তারাদের সাথে।চুপিচুপি একটা কথা বলি,মিটমিটে তারাদের মাঝে এই মাতৃছায়াবিহীন মেয়েটা মায়ের ভালোবাসা, স্নেহ আকাশের তারাদের মাঝে খুঁজে বেড়ায়।জানো,ছোটবেলায় পড়ে গিয়ে ব্যাথা পেলে কেউ আদর করতো না,বন্ধুদের মায়ের মতো কেউ স্কুলের গেটে আসতো না!জ্বরতপ্ত শরীরে কেউ স্নেহের পরশ বুলিয়ে যায় নি।আমায় কেউ ঘুমপাড়ানি মাসি পিসির গল্প শোনায় নি।তাই তো সবাই বলে আমি অভিমানী!জানো তারারা!আমার অভিমান শুধু তোমাদের সাথে!আমার সকল অশ্রুর সাক্ষী তোমরা!তাই তো আজও মন ভাঙার গল্প তোমাদের সাথেই করছি। বিখ্যাত বাবার সুপুরুষ ছেলে রোহিতের সাথে আলাপ করিয়েছিলো বাবা আমার।তোমরা তো জানো ভালোবাসার সংজ্ঞা জানি না,তাই তো রোহিতের দেখানো মিথ্যা সহানুভূতির আড়ালের সেই দুরভিসন্ধি বুঝতে পারি নি।সরল বিশ্বাসে ভালোবেসেছিলাম,আজ জানতে পারলাম বিজনেস ডিল ছিলাম আমি রোহিতের জন্য।বাবার ঐশ্বর্য আর সম্পদের লোভেই বিয়ে করতে চেয়েছিলো আমায়!তারারা তোমরা জানতে পেরেছিলে রোহিতের দুরভিসন্ধি তাই তো রোহিত আর ওর বাবার প্ল্যান ফাঁস করে দিলে!রোহিত তুমি কেন এমন করলে?ভালোবাসার সংজ্ঞা জানি না তাই কি ঠকালে আমায়?ভালোবাসা কি?এই প্রশ্নের সাথে আকাশের তারাদের সাথে চিঠি শেষ করলাম।
ইতি তোমাদের প্রিয় বন্ধু
নক্ষত্ররূপী নীবুলা

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে