‘কবে আসবে অনুরাগ’দা?’ -সবুজ আহমেদ মিজান

0
230

#গল্পপোকা_কবিতা_লিখন_প্রতিযোগিতা
কবিতাঃ ‘কবে আসবে অনুরাগ’দা?’
-সবুজ আহমেদ মিজান
.

আমার কাছে ফিরতে আর কতদিন সময় নিবে তুমি অনুরাগ’দা?
তোমার অপেক্ষায় আমার চৌকাঠে আজকাল বেদনারা সোরগোল বেঁধে ঢুকে পড়ে,
একাকাশ জ্যোৎস্না মেঘের মলাট খুলে ব্যথার ফুল ফোটায় আমার নিঃস্ব আঙিনায়;
তোমার ওই সুনির্মল চোখ অনুরাগ’দা…
যে চোখের মায়ারথ দেখিয়ে একদিন তুমি বলেছিলে,
বসন্তের শেষ সন্ধ্যায় ফেরারি শঙ্খচিলের অন্তর্বাস ছেড়ে-
হৃদয়ে লুকানো অভিমানের পাহাড়ে পুঁতে রাখবে আমাদের তাবৎ বিচ্ছেদ,
বর্ষার মৃত্যু শেষে আমাকে উপহার দেবে শরতের রঙ ছোঁয়া অরুণাভ ভোর,
অপরাহ্ণবেলায় বাজারে দেখাতে নিয়ে যাবে লুটোপুটি খাওয়া জোড় পুতুলের সংসার,
মুড়কি আর বাতাসার মিষ্টি গন্ধে ভরিয়ে দেবে আর ঘরকন্যা আঁচল!
তারপর হঠাৎ বৃষ্টির পরশ মেখে তুমিও হবে দাপুটে এক প্রেমিক;
কিন্তু হায় অনুরাগ’দা!
আমার গুঁমড়েকাঁদা আকাঙ্ক্ষায় বালি ছিটিয়ে আজও তুমি এলে না, আজও…
.
কৃষ্ণচূড়া কাঠের বায়ান্ন চৌখুপিতে তোমাকে ভেবে আমি যতন করেছিলাম সুদর্শনা যে নারীকে,
বিকালে ভাঁজ করা কাতান শাড়ির পরতে পরতে সাজিয়ে রাখতাম প্রিয়দর্শিনী যে প্রেমিকাকে,
তার দেহে এখন অপেক্ষার শতশত ঘুণপোকা নির্বিকার শুয়ে থাকে অনুরাগ’দা;
বিকেলে ঝরে যাওয়া ভোরের শিউলির মতো শুকিয়ে যায় তার অভিমানী সত্তা;
তবুও তোমার ফেরার আশায় বুকে পোড়া মেঘের সাদা আল্পনায় সাজিয়েছি বিষাদী উঠোন,
ধুপকাঠির সুগন্ধি আরাধনায় গুছিয়ে রেখেছি জীবনের উর্বশী ফুলদানি,
বাবার হালখাতার মঙ্গলবার্তার পাতায় পাতায় লিখে রেখেছি তোমার নামে ঈশ্বরের আশীর্বাদ,
দুপুরের পঞ্চব্যঞ্জনের সাথে রেঁধেছি তোমারই প্রিয় সজনেডাঁটার ঝোল।
অনুরাগ’দা, আমাকে অপেক্ষার মিথ্যে গল্প শুনিয়ে শুনিয়ে তুমি আর দূরে থেকো না;
জানোই তো, ‘দীর্ঘকালের অপেক্ষায় মেয়েদের হৃদয় মরুভূমি হয়ে যায়।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here