Crush যখন বর? Season_2 Part_4/5/6

0
4002

Writer-Afnan Lara
Crush যখন বর? Season_2 Part_4/5/6
তনুর বাবা বাজার করে বাসায় আসতেছিলো, হঠাৎ হোচট খেয়ে পড়ে গেলো,শিশির তখন বাসা থেকে বেরিয়ে দেখতে পেলো,
শিশির এসে উনাকে ধরে তুললো,সব গুছিয়ে ব্যাগে ঢুকিয়ে দিলো,
শিশির-Uncle ঠিক আছেন??
বাবা-হ্যাঁ বাবা
শিশির-চলেন আপনাকে দিয়ে আসি,,
বাবা-না থাক,,
শিশির জোর করে গেট পর্যন্ত দিয়ে আসলো,,
বাবা-শুনো শিশির
শিশির-জী
বাবা-কাল তনুর জন্মদিন, তোমার দাওয়াত রইলো,,তোমার Family এর সবাইকে নিয়ে আসিও কেমন?
শিশির-চেষ্টা করবো,
বাবা-না আসতে হবে,
শিশির-ঠিক আছে,,
শিশির বাসায় আসলো,,হ্যালো রুনা,
রুনা-হ্যাঁ বেবি বলো
শিশির-কাল আমাদের এখানে আসিও তোমাকে নিয়ে দাওয়াতে যাবো,
রুমা-ওমা তাই?ঠিক আছে
শিশির-হুহ,কাল ভালো করে জ্বালাবো,
পরেরদিন ♥♥
ছাদ হালকা করে সাজানো হলো,,,
সবাই দাঁড়িয়ে আছে,,তনু আসলো,,হালকা বেগুনি কালারের লং থ্রি পিস পরেছে,,
শিশির আর রুনা এসে হাজির,,
তনু-ওরা এখানে কেন??
বাবা-আমি দাওয়াত দিসি
তনু-?
শিশির -Uncle ও আমার হবু বউ,
বাবা-ওহ তাই,,
মা-তনু কেক কাট,
তনু মুখ গোমড়া করে কেক কাটলো,বাবাকে মাকে খাওয়ালো,,
মা-যা ওদের দিয়ে আয়
দুই পিস নিয়ে শিশির আর রুনার হাতে দিলো,,
রুনা-excuse me শিশির আমার একটা কল আসছে,আসতেছি,
তনু চলে যাওয়া ধরলো শিশির হাত ধরে ফেললো,
তনু-কি?
শিশির-সবাইকে খাওয়াই দিলা আর আমাকে খাওয়াইবা না?
তনু-নাহ
শিশির-দাঁড়াও,রুনানানানানা
রুনা-কি হয়সে??
শিশির-হা করো বেবি, শিশির তনুকে দেখিয়ে দেখিয়ে রুনাকে খাইয়ে দিলো,
তনুর চোখ দিয়ে পানি বেয়ে বেয়ে পড়তেছে,চোখ মুছে চলে এলো,,
মা-কিরে তনু কেক খাবি না,
তনু-না খিধা নেই,
শিশির-Uncle আসি তাহলে
বাবা-ঠিক আছে,,ধন্যবাদ আসার জন্য,,
শিশির যাওয়ার সময় বারান্দা দিয়ে তনুর রুমের দিকে তাকালো,তনুকে দেখা যাচ্ছে, তনু বসে বসে টিসু দিয়ে চোখ মুছতেছে,,
শিশির-ডোজ টা বেশি হয়ে গেলো নাকি??
শিশির-রুনা চলো রিকসায় উঠায় দিই,
শিশির রুনাকে বিদায় দিয়ে দেখলো সবাই ছাদে, সোজা তনুর রুমে গেলো,
তনু-কে??
পিছনে তাকিয়ে শিশিরকে দেখে খাট থেকে উঠে গেলো,
আপনি.??
শিশিরের হাতে কেক,
শিশির-Birthday girlকে কেক খাওয়ানো হয়নি
তনু-খাবো না আমি,যান এখান থেকে,
শিশির তনুর কাছে গেলো,
শিশির-হা করো,
তনু-বলসি না খাবো না,
তনু উঠে চলে যাওয়া ধরলে শিশির হাত ধরে ফেললো,নিজের কাছে এনে মুখ টিপে ধরে খাইয়ে দিলো,তারপর কিছুক্ষন চেয়ে রইলো তনুর দিকে,,তনুর চোখের পানি বলে দিচ্ছে বারবার যে শিশিরকে সে কতটা ভালোবাসে,,
শিশির হয়ত বুঝতে পারলো হয়ত বুঝে নাই,তনুকে ছেড়ে দিয়ে চলে গেলো,,
তনু তাকিয়ে আছে,,কি চায় উনি??বুঝি নাহ,
পরেরদিন ♥♥
মা-শুনো তনুর খুব জ্বর,এখন কি করবো??
বাবা দৌড়ে গিয়ে ঔষধ এনে দিলো,,
তনুর জ্বরে বেড়েই চলছে,,
শিশির-সারাদিন অনলাইনে আসলো না কেন??কি হয়সে?
শিশিরের মা-শিশির
শিশির-হুম বলো
মা-বাজার থেকে এগুলা নিয়ে আয় যা
শিশির-ঠিক আছে,,
শিশির বাজারে গেলো,রুনার সাথে সেখানে দেখা হলো,
রুনা-চলো ঘুরবো,
শিশির-মুড নাই,পরে কথা হবে
রুনা-আমি আছি তো মুড ঠিক করে দিব
শিশির-পরে কথা হবে বাই,
শিশির চলে এলো,মা আমি একটু আসতেছি,
শিশির হাঁটতে হাঁটতে তনুদের বাসার সামনে আসলো,,উঠানে কেউ নেই,অথচ এই সময়ে তনু উঠানে থাকে,ফুল গাছে পানি দেয়,,আজ নেই কেন??ইচ্ছে করতেছে গিয়ে দেখি কিন্তু,,,,!
শিশির তনুর একটা frd রে নক দিলো,
শিশির-হাই
টিনা-হাই
শিশির-তনুর সাথে আজ তোমার কথা হয়সে??
টিনা-হুম ভাইয়া,আমি কল দিসিলাম, কলেজে আসে নাই যে তার জন্য, ওর তো খুব জ্বর কাল রাত থেকে,
শিশির-ও,,ঠিক আছে,ধন্যবাদ,আর হ্যাঁ একটা কথা pls আমি যে এটা ask করসি তনুকে বলবা না,
টিনা-কেন?
শিশির-pls
টিনা-ঠিক আছে ভাইয়া,
চলবে♥
“এখনই জয়েন করুন আমাদের গল্প পোকা ডট কম ফেসবুক গ্রুপে।
আর নিজের লেখা গল্প- কবিতা -পোস্ট করে অথবা অন্যের লেখা পড়ে গঠনমূলক সমালোচনা করে প্রতি সাপ্তাহে জিতে নিন বই সামগ্রী উপহার।
আমাদের গল্প পোকা ডট কম ফেসবুক গ্রুপে জয়েন করার জন্য এখানে ক্লিক করুন


Writer-Afnan Lara
Crush যখন বর?
#Season_2
#Part_5
শিশির -তুমি কি তনুদের বাসায় আসবা?
টিনা-হ্যাঁ বিকালে,ওকে দেখতে আসবো
শিশির-ওর পাশে বসে আমাকে ভিডিও কল দিও,
টিনা-ঠিক আছে,,
বিকালে♥
টিনা তনুর পাশে বসে কল দিলো শিশিরকে,
তনু চোখ বন্ধ করে শুয়ে আছে,
শিশির কল রিসিভ করলো,,
শিশির কিছুক্ষন তনুকে দেখলো, কোনো কথা বললো না,তারপর কেটে দিলো,
পরেরদিন তনু একটু সুস্থ হলো,,
কলেজে যেতে হবে, Result দিবে,,
তনু কলেজ শেষে বাসায় ফিরার সময় মুনা ডাক দিলো,
তনু-কি মুনা?
মুনা-আপু তুমি কতো সুন্দর করে হিজাব বাঁধো আমাকে একটু শিখিয়ে দাও প্লিস,,
তনু-আসো বাসায়, শিখায় দিব
মুনা-আম্মু বাসায় নেই,বাসা খালি,,
তনু-তোমার ভাইয়া ও নেই?
মুনা-নাহ,ভাইয়া অফিসে,
তনু-ওকে তাহলে চলো,
তনু মুনাকে হিজাব বাঁধা শিখাচ্ছে,,তখন শিশির বাসায় আসলো,,বাসায় ঢুকেই তনুর গায়ের ঘ্রান পেলো,,চেনা ঘ্রান,,শিশির উঁকি মেরে তাকালো তনুর জামা দেখা যাচ্ছে,,
শিশির-তনু???
তনু শিশিরের কথা শুনে চমকে উঠলো সাথে সাথে হাত দিয়ে পিন ঢুকে গেলো,আহহহ!
শিশির দৌড়ে এসে হাত ধরলো,
শিশির-দেখে কাজ করতে পারো না??
শিশির-মুনা যা এক glass পানি নিয়ে আয় আর One time bandage ও আনিস,
তনু কাঁদতেছে,
শিশির-এই একদম কাঁদবা না,চোখ বন্ধ করো
তনু-কেন??
শিশির-করতে বলসি
তনু চোখ বন্ধ করলো,শিশির জোরে এক টান দিয়ে পিন উঠিয়ে ফেললো,তনু ব্যাথায় শিশিরের Shirt টেনে ধরলো,,
মুনার কথায় চোখ খুলে শিশিরকে ছেড়ে দিলো,
শিশির বসে হাতে bandage লাগিয়ে দিলো,,,
তনু-মুনা আসি তাহলে,
মুনা-না আপু থাকো,আজ আমি রান্না করসি তোমাকে খাওয়াবো,,
তনু-পরে,,,,
শিশির-খাবে না, পেত্নির হাতের রান্না কেউ খাবে না
মুনা-ভাইয়া??
তনু-আচ্ছা খাবো
মুনা খাবার এনে টেবিলে দিলো,,
তনু -বাহ অনেক মজা হয়সে,,
শিশির-ছিঃ এটা কোনো খাবার?
মুনা-?
খাওয়া শেষে
তনু-আসি মুনা,,
মুনা বাই বলে চলে গেলো,
শিশির পিছন পিছন এসে তনুকে এক টান দিয়ে দেওয়ালের সাথে মিশিয়ে ফেললো
তনু-কি হয়সে আবার???
শিশির হাত নিয়ে তনুর কপালে রাখলো,চেক করলো জ্বর আছে কিনা,
শিশির-হুম কম আছে,বাট পুরোপুরি যায় নাই
তনু-ছাড়েন তো
শিশির-নাহ,আমার কাজ শেষ হোক,বাসায় গিয়ে এই ঔষধটা খাবা,জ্বর পালিয়ে যাবে,
তনু-খাবো না,
শিশির জোর করে হাতে ধরিয়ে দিলো,
শিশির-যাও,
তনু রাগী লুকে তাকিয়ে আছে
শিশির-নাকি আমি দিয়ে আসতাম??
তনু- নাহ নাহ ঠিক আছে যাইতেছি
তনু দৌড় মারলো
তনু বাসায় এসে ঔষধটার দিকে তাকিয়ে ছুঁড়ে মারলো,
শিশির মেসেজ দিলো
শিশির-ঔষধ খেয়ে নাও,কাল আবার জ্বর চেক করবো যদি দেখি আছে তাহলে I’m sure তুমি ঔষধ খাও নাই,কি হাল করুম তোমার ভেবে নিতেছি
তনু -হুহ?আমি কাল বাসা থেকে বের হবো না,,দেখি কি করে,,
তনু শুয়ে পরলো,,রাতে জ্বর বেড়ে গেলো,
মা মাথায় পানি দিলো,তাও কমতেছে নাহ,
পরেরদিন সকাল♥
তনু আস্তে করে উঠার চেষ্টা করলো পারলো না,ঝাপসা দেখছে সব,,
হালকা খাবার খেয়ে টিভি দেখলো,ভালো লাগতেছে না দেখে ছাদে গেলো,,বসে আছে,,হঠাৎ ঠাস করে শব্দ হলো,
তনু উঠে পিছনে তাকালো,শিশির গাছ দিয়ে ছাদে উঠছে,
তনু শিশিরকে দেখে Hang হয়ে গেলো,
শিশির-পালাবা কোথায়??
তনু দৌড় মারা ধরলো শিশির টান দিয়ে নিচে বসিয়ে দিল কারন রাস্তার মানুষ দেখলে বিপদ আছে,
শিশিরও বসে পরলো,তনুর মাথায় হাত দিয়ে দেখলো গায়ে জ্বরে পুড়ে যাচ্ছে,, তনু কাঁপতেছে,,
শিশির কিছুক্ষন তাকিয়ে থাকলো,,রাগে কি করবে??অসুস্থ নাহলে পিটিয়ে ভর্তা বানিয়ে দিতো তনুর
শিশির নিজের গা থেকে জ্যাকেট খুলে পরিয়ে দিলো,
শিশির-কাল দিয়ে দিও
তনু-ছাড়েন বাসায় যাবো
শিশির-নাহ,কাজ শেষ হোক,
শিশির সেই ঔষধ টা এনে তনুর মুখ টিপে ধরে খাইয়ে দিলো,,পকেটে পানির বোতল ছিলো,,
তনু্ তাকিয়ে আছে শিশিরের দিকে,,
শিশির-জানতাম কথা শুনবা না,আর তাই আজ বাসা থেকে বের ও হও নাই,বুঝতে পারসি আমি,,
শিশির- বাসায় যাও,শীত পরতেছে,,
শিশির আবার গাছে উঠা ধরলো,
তনু-গেট দিয়ে যান,সমস্যা নাই,
শিশির-না Problem হবে,
শিশির চলে গেলো,
তনু বাসায় এসে জ্যাকেট টা খুলে গুছিয়ে রাখলো,
রুনা-বেবি তুমি আমাকে আজ কল করলা না যে?
শিশির-(শুরু হয়সে ন্যাকামি)সরি জান,,
চলবে♥

“এখনই জয়েন করুন আমাদের গল্প পোকা ডট কম ফেসবুক গ্রুপে।
আর নিজের লেখা গল্প- কবিতা -পোস্ট করে অথবা অন্যের লেখা পড়ে গঠনমূলক সমালোচনা করে প্রতি সাপ্তাহে জিতে নিন বই সামগ্রী উপহার।
আমাদের গল্প পোকা ডট কম ফেসবুক গ্রুপে জয়েন করার জন্য এখানে ক্লিক করুন


Writer-Afnan Lara
Crush যখন বর?
#Season_2
#Part_6
শিশির-এই মাইয়ারে কবেই ছেড়ে দিতাম,,ছ্যাঁচড়া,,১০১টার সাথে প্রেম করে,,আমি নাকি বুঝি নাহ,আমি কাঁচা মাছ খাই??রাত ১২টায় উনার number বিজি থাকে,ask করলে বলে মামা কল দিসিলো,
আরে রাত ১২টায় মামা কেন কল দিবে??আমি কি বাচ্চা??আমাকে বোকা বানায়,,আমার সাথে থাকলেও ১০বার কল আসে,,শুধুমাত্র তনুকে জ্বালানোর জন্য রুনাকে সয্য করতেছি,,
তনুকে জ্বালাইতে আমার ভালো লাগে,,
তনু বসে জ্যাকেট টার দিকে তাকিয়ে আছে,
শিশির মেসেজ দিলো,
আমার জ্যাকেটের দিকে এত তাকানো লাগবে না,নজর লাগবে,
তনু বিষম খেলো,ঘরে ক্যামেরা আছে নাকি??
শিশির-শুনো কাল আমার বাসায় party আছে,,আসবা
তনু-সরি,পারবো না
শিশির-না আসলে কোলে তুলে আনবো
তনু-তাও আসবো না,
শিশির-ঠিক আছে,,
পরেরদিন ♥
তনু বাথরুমের উপরের store -এ উঠে বসে আছে,চিপস চকলেট সব নিয়ে উঠছে,নইলে খিধা লাগলে নামতে হবে,
তনু-হিহি,আজ আমায় নিতে পারবে না,,
দরজা নক হলো,
মা-তনু, তনু
তনু-কি??
মা-মুনা আসছে
তনু-ওরে বলো আমি যাবো না,
মা-ও খাবার দিতে এসেছে,,তোর সাথে খাবে,,
তনু-ওও,ঠিক আছে
তনু নিচে নামলো,,মুনার কাছে গেলো,
মুনার পিছন থেকে শিশির এসে দাঁড়ালো কোমড়ে হাত দিয়ে,
তনু শিশিরকে দেখে ৪৪০ভোল্টের শক খেলো,
মা নেই,,রান্নার রুমে চলে গেলো,
শিশির-মুনা তুই যা আমি ওরে নিয়ে আসতেছি,,
মুনা চলে গেলো,শিশির তনুকে খপ করে ধরে কোলে তুলে হাঁটা শুরু করলো,
তনু-এই pls ছাড়ুন আমাকে,রাস্তার মানুষ দেখলে কি ভাববে,pls ছাড়ুন,,
শিশির-যেতে হবে
তনু-আচ্ছা আচ্ছা যাবো,ছাড়ুন
শিশির -ওককককককে,,ছেড়ে দিলো
ঠাসসসস!
তনু-মাগো,কোমড় গেলো গো,,
শিশির- চলো,হাত বাড়ালো,
তনু হাত না ধরে নিজে নিজে উঠলো,তারপর গেলো,
ছাদে party হচ্ছে,,শিশিরের সব frd রা এসেছে,,
রুনাও এসেছে,,
শিশির -আসো রুনা dance করবো,,শফিক গান লাগা
শফিক-ওকে,,
গান শুরু,,,
shuru!
Jo akh lad jaave,,,.
Saari raat neend na aave
Mainu bada tad paave
Dil chain kahin na paave paave paave
Khan khan khan khan choori
Teri khan khan khan khan khanke re
Khan khan khan khan khanke
Vekh vekh ke chehra Mera dil yeh dhak dhak dhadke re Dil yeh dhak dhak dhadke
Tar saave tere bin yeh reh na paave Maahi jo tu na aave aave aave Jo akh lad jaave Saari raat neend na aave Mainu bada tad paave
Dil chain kahin na paave paave paave,,
শিশির তনুকে দেখিয়ে রুনার কাঁধে হাত দিলো,আরও কয়েকজন কাপল ও নাচতেছে,,
তনু -হ্যালো শিমুল,,আমাদের বাসার এদিকে আসো,,First!
১০মিনিটে শিমুল আসলো,তনু ছাদে থেকে শিমুলকে ডাক দিলো,
শিমুল আসলো,,
তনু শিমুলকে টান দিয়ে কাপলদের মাঝে ঢুকে গেলো,
শিশির শিমুলকে দেখে রেগে গেলো,রুনাকে ছেড়ে দিয়ে দূরে চেয়ার নিয়ে বসলো,
রুনা-কি হয়সে বেবি??
তনু শিমুলের গলায় হাত রাখলো,,
শিশির গিয়ে গান অফ করে দিলো,
শিশির-নাচানাচি শেষ,সবাই খেতে আসো,
শিমুল তনুর পাশে বসা ধরলো শিশির এসে বসে গেলো,পাশে রুনাকে বসিয়ে দিলো,
শিমুল ঘুরে গিয়ে তনুর ডান সাইডে বসলো,
রুনা-ইস কি তেল জাতীয় খাবার,আমি তো এসব খেলে মুটকি হয়ে যাবো,
শফিক-(তুমি তো এমনিতেই মুটকি)
রুনা-কিছু বললা?
শফিল-না আপা,??
শিশির মুরগীর রান নিয়ে তনুর পাতে দিলো,তনু প্রিয় সব জিনিস শিশিরের জানা,,
শিশির-সবাই খাওয়া শুরু করো,,আমার অফিসে promotion হয়সে সেই উপলক্ষে party,,,
শিমুল হাত নিয়ে তনুর চেয়ারে রাখলো,,
শিশির খেয়াল করলো,ঠাস করে glass টেবিলে রাখলো,
তনু চমকে উঠলো,,
শিশির-এত ভয় পাওয়ার কিছু নাই,,
শিশির-বেবি হা করো,,হা
রুনা-হা
শিশির ধরে খাইয়ে দিলো,,
তনু-??
তনু শিমুলের মুখ টিপে ধরে খাইয়ে দিলো,,,
শিশির-??
খাওয়া শেষে তনু আর শিমুল চলে যাওয়া ধরলো,,
শিশির-আমি কাউকে এখনও যেতে বলিনি, party শেষ হয়নি,
শিমুল-আমি আসি,,আমার ভার্সিটিতে কাজ আছে,শিমুল চলে গেলো,,
শিশির রুনাকে সবার সামনে specially তনুকে দেখিয়ে হাতে bracelet পরিয়ে দিলো,,
তনু আর চোখের পানি সামলাতে পারলো না,চোখ মুছে ওখান থেকে চলে এলো,
মুনা-আপু দাঁড়াও কই যাও,কাঁদতেছো কেন??
তনু-কিছু নাহ,চোখে কি যেন পড়েছে তাই,,
তনু চলে গেলো,
শিশির-কিরে মুনা তনু কই??
মুনা-আপু কাঁদতে কাঁদতে চলে গেলো,তুই কি বলেছস??
চলবে♥

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে