Crush যখন বর? Season_2 Part_31/32/33

0
2848

Writer-Afnan Lara
Crush যখন বর? Season_2 Part_31/32/33
শিশির-হুম বুঝলাম,,আচ্ছা ঠিক আছে,আমি ওরে এখানে Doctor দেখাবো,,
শিশির Report নিয়ে বাসায় আসলো,,তনু টিভি দেখতেছে,,
শিশির -তনু আমার রুমে আসো,,তনু আসলো
শিশির-বেশি ছোটাছুটি করিও না,Doctor মানা করসে,
তনু তাকিয়ে আছে শিশিরের দিকে,,তারপর চলে যাওয়া ধরলো,,শিশির হাত ধরে ফেললো,
শিশির-কই যাও?
তনু -মুনার কাছে,
তনু হাত ছাড়িয়ে চলে গেলো,,
শিশির ল্যাপটপ নিয়ে বসলো,,রুনা কল দিলো,
শিশির-হ্যালো
রুনা-বেবি কেমন আছো
শিশির-ফোন দিসো কেন??
রুনা-কথা বলার জন্য,কাল মিট করবা??
তনু শিশিরের রুমে আসি দেখলো শিশির রুনার সাথে কথা বলতেছে,
শিশির -কেন করবো?
রুনা-pls বেবি অনেকদিন তোমাকে দেখি না,,
শিশির-পারবো না
রুনা-pls সোনা,
শিশির লাইন কেটে দিলো,Number blk করলো,
তনু চলে গেলো,,ছাদে গিয়ে কাঁদতেছে বসে বসে,
শিশির-উফ বলসিলাম ২০মিনিটের বেশি বাইরে থাকবা না,মুনা তনু কই??
মুনা-জানি না,ছাদে মনে হয়
শিশির ছাদে গেলো তনু এক কোনে হেলান দিয়ে বসে আছে,,শিশির হাত ধরলো,
শিশির-চলো,ঠান্ডায় বাইরে থাকতে হবে না
তনু-আপনি যান আমি যাবো না,,
শিশির-চলো,,
তনু-রুনা কি চাইসে আপনার থেকে??
শিশির-কিছু না
তনু-দিয়ে দেন যা ও চায়,
শিশির-আমার বিয়ে হয়ে গেসে,
তনু-আপনি তো ২নৌকায় পা দিয়ে চলতে পারেন,,
আমার সাথে কাল সব করে আজ আবার রুনার সাথে মিট করে এসেছেন,
আমাকে তো কিনে নিসেন তাই না?যখন যা ইচ্ছা করবেন আমার সাথে,,
আর মন চাইলে রুনা তো আছেই,,
শিশির -তনু চুপ করো
তনু-কেন চুপ করবো??কেন??যা সত্যি সেটাই তো বলতেছি,,
চাহিদা মেটানোর জন্য আমি তো আছিই??আর রুনাকে তো ভালোবাসেন,,আর কি চাই
শিশির ঠাস করে চড় মেরে দিলো,,
তনু গালে হাত দিয়ে বসে আছে
শিশির-Enough is enough,, চুপ করতে বলি নাই,,আদো জানো তুমি আমার ব্যাপারে??কি জানো??? আমি কিরকম ৪বছরেও জানলা না??চাহিদা মেটানো না??পরশু আমার থেকে স্বামীর অধিকার কে চাইসে??
তনু চুপ করে তাকিয়ে আছে,,
শিশির-হ্যাঁ মেটায় চাহিদা,তুই আমার বউ,তোর সাথে আমি সব করতে পারি সব,,সেটাকে যদি তুই চাহিদা মনে করস তো সেটাই,,
শিশির তনুর হাত ধরে ছাদ থেকে নিয়ে এলো,,
রুমে এনে খাটে ছুঁড়ে মারলো,,
শিশির-আমাকে বুঝস তো তুই তাহলে কেন এমন করস??খুব বড়বড় কথা না তোর??
শিশির shirt খুলে ছুঁড়ে মেরে দরজা লাগিয়ে দিলো,, তনুর কাছে এসে তনুকে ঝাঁপটে ধরলো,,
তনু তাকিয়ে আছে শিশিরের দিকে,চোখ থেকে পানি যাচ্ছে,,
শিশির আরেকদিকে তাকালো,এই চোখের পানি শিশিরের সবচেয়ে বড় দূর্বলতা,,
শিশির তনুর মুখ চেপে ধরে তনুর সারা শরীর কামড়াতে লাগলো তনুর,,
তনু চিৎকার দিচ্ছে,,কিন্তু আওয়াজ টা শিশির ছাড়া কেউ শুনতে পাচ্ছেনা,,
একসময় তনু চুপ হয়ে কাঁদতে লাগলো,,
শিশির তনুকে ছেড়ে দিয়ে বারান্দায় চলে গেলো,,
তনু কাঁদতে কাঁদতে ঘুমিয়ে গেসে,,
পাশে ল্যাপটপ ছিলো,
তনুর হাত লাগতেই জ্বলে উঠলো,
তনুর চোখে আলো পড়তেই তনু চোখ খুললো,
ল্যাপটপে তনুর একটি ছবি ওয়ালপেপারে দেওয়া,,
তনু কষ্ট করে উঠে বসলো,
একটা Folder আছে নাম “আমার তনু”,,তনু folder টা খুললো,সব তনুর অজানা ছবি,,
মনে হয় লুকিয়ে তোলা,,আমাকে ভালো না বাসলে এত ছবি তুলে ল্যাপটপে রাখলো কেন,,?তনু ল্যাপটপ রেখে শুয়ে পরলো,,
রাত ১২টায় শিশির বারান্দা থেকে রুমে আসলো,Bathroom এ গিয়ে চোখমুখ ধুয়ে বিছানায় আসলো,,তনু ঘুমাচ্ছে,,শিশির তনুর শাড়ীর আঁচল টেনে দিতে গিয়ে দেখলো সারা গায়ে কামড়ের দাগ বসে গেসে,,একেক জায়গায় লাল হয়ে আছে,,শিশির আঁচল ঠিক করে গায়ে দিয়ে কাঁথা টেনে দিলো,
পরেরদিন ♥
শিশির অফিসে চলে গেলো তাড়াতাড়ি,,তনু উঠে বসলো,,গা ব্যাথা করতেছে,,গোসল করে শাড়ী আরেকটা পরে নিলো,,ভালো করে গা ঢাকলো,দাগ দেখলে ১০০টা প্রশ্ন করবে মা,,টেবিলে দেখলো ঔষধের পাতা,,একটা চিঠি,,
ঔষধ খেয়ে নিও,আর বিকালে রেডি হয়ে নিও, তোমাকে নিয়ে হসপিটালে যাবো,,
তনু খাবার খেয়ে ঔষধ খেলো,,
বিকালে শিশির এসে তনুকে নিয়ে হসপিটালে গেলো,,
Doctor -উনাকে কিছু পরীক্ষা দিসি করে নেন,Then উনার মাথার চোটের ব্যাপারে সঠিক ধারনা পাওয়া যাবে,
শিশির-ঠিক আছে,,
নার্স-উনার গায়ের এসব কেমন দাগ?
শিশির-জামাই অনেক আদর করে তো তার প্রমান,
Test করানো শেষে,,
Doctor – কাল পাবেন। রিপোর্ট,
বাসায় এসে তনু খাটে বসে রইলো,,
শিশির একটা মলম এনে তনুর পিছন বসে শাড়ীতে হাত দিতেই তনু কেঁপে উঠলো,,শিশির আস্তে আস্তে গায়ের দাগে মলম লাগিয়ে দিতে লাগলো,,
শিশির আয়নাতে দেখতেছে তনু কাঁদতেছে,,
শিশির -আমি রুনাকে ভালোবাসি না,
তনু অবাক হয়ে পিছনে তাকালো,
শিশির-হুম,,
তনু কিছু বললো না,,
শিশির মলম লাগিয়ে দিয়ে শাড়ী টেনে দিলো,,
তনু আরেকদিকে ফিরে শুয়ে পরলো,,শিশির টিসুর বক্স এগিয়ে দিলো,,
শিশির চুপ করে বসে আছে,,নিজের হাতের দিকে তাকিয়ে আছে,,এই হাত দিয়ে কতবার তনুর গায়ে হাত তুলেছে,,
একটা গ্লাস শক্ত করে চেপে ধরে রাগ কমাচ্ছে শিশির,,
এত শক্ত করে ধরসে যে গ্লাস ফেটে শিশিরের হাত অনেকটা কাটা গেসে,শিশিরের খবর নেই,,
তনু গ্লাস ভাঙার শব্দে উঠে তাকালো,,
তনু-একি,
তনু দৌড়ে এসে শিশিরের হাত থেকে গ্লাস নিয়ে নিলো,
তনু-পাগল হয়ে গেসেন??
তনু কি করবে ভেবে না পেয়ে নিজের ওড়না একটা এনে হাত বেঁধে দিলো,,
চলবে♥
“এখনই জয়েন করুন আমাদের গল্প পোকা ডট কম ফেসবুক গ্রুপে।
আর নিজের লেখা গল্প- কবিতা -পোস্ট করে অথবা অন্যের লেখা পড়ে গঠনমূলক সমালোচনা করে প্রতি সাপ্তাহে জিতে নিন বই সামগ্রী উপহার।
আমাদের গল্প পোকা ডট কম ফেসবুক গ্রুপে জয়েন করার জন্য এখানে ক্লিক করুন



Writer-Afnan Lara
Crush যখন বর?
#Season_2
#Part_32
তারপর উঠে চলে গেলো,,,
তনু একদিকে ফিরে শুয়ে আছে,আর শিশির আরেকদিকে,,ঘুম নেই দুজনের,,
একসময় শিশির উঠে তনুকে ধরে উঠালো,,শক্ত চোখে তনুর দিকে তাকিয়ে রইলো,,
শিশির তনুর হাত ধরে বারান্দায় নিয়ে গেলো,,
তনুর দিকে তাকিয়ে গান ধরলো
Wooaaoooo Wooaaooo
Naaee Naaeera Naaraa Naaara
Naaaenara nara naara naa nee
Jhuki Teri Palko Mein
Mil Jaaye Mujhe Panah
Palke Ghire Aansu Bhari
Reh Jaaye Mere Nishan
Tute Dil Ki Mat Kar
Tu Fikar Mere Hamnawa
Pyaar Du Tujhko Is Kadar reh jaaye merenishaan Mere Nishaan.Mere Nishaan
Mere Nishaan.Mere Nishaan
Mere Nishaan.Mere Nishaan
Mere Nishaan.Mere Nishaan
Mere Nishaan.aan.aaa
Khak me mil jaau me
Jeise ke ek lamha
Aa lag ja seene se
Ban ja mera rehnumaa
Dekhta hu sapne tere,sun le meri jaan-e-jaan Khwaab ye sach ho jaae,a’gar khuda ho meherbaan
Mere NishaanMere Nishaan.Mere Nishaan.
Mere Nishaan.Mere Nishaan.Mere Nishaan.
Mere Nishaan.Mere Nishaan.haaannnMere Nishaan.aaan…aaannMere Nishaan.Mere Nishaan.Mere Nishaan.Nishaan Nishaan NishaanMere Nishaan.Nishaan Nishaan NishaanMere Nishaan.Naaee Naaeera NaaraaNaaaraNaaaenara nara naara naa
গান শেষে তনুকে টান দিয়ে নিজের বুকে নিয়ে এলো,,শক্ত করে ধরে রাখলো,,
তনুর গলায় চুমু দিয়ে তনুকে উপরে তুললো,,
তনু নিচে তাকিয়ে শিশিরকে দেখছে,,
শিশির তনুকে নিচে নামিয়ে গায়ের সাথে লাগিয়ে ধরলো,,
শিশির-আমার তনু,,আমার হাসির কারন,
তনু অবাক হয়ে শিশিরের দিকে তাকিয়ে আছে,শিশির তনুর গায়ের দাগের দিকে তাকিয়ে নিচে বসে পরলো,তনু ও পাশে বসলো,
শিশির-খুব ব্যাথা লেগেছে?তুমি কেন বললা সব আমার চাহিদা ছিলো,,?
তনু চুপ হয়ে রইলো কিছু বললো না,
শিশির তনুর মাথা ধরে কাছে নিয়ে এলো,কি হলো বলো,,বলবা না?
শিশির তনুকে ধরে কিস করতে গেলো তনু পিছিয়ে গেলো,,
শিশির তনুর হাত ছেড়ে দিলো,
তনু মুচকি হেসে এগিয়ে এসে কিস করতে লাগলো শিশিরকে,,শিশির জড়িয়ে ধরলো তনুকে দুহাত দিয়ে,,
শিশির ৫মিনিট পর তনুকে কাতুকুতু দিলো,তনু সাথে সাথে শিশিরকে ছেড়ে দিলো,
শিশির-হাহাহা,,শিশির তনুর হাত ধরে রুমে নিয়ে গেলো,,
শিশির তনুকে খাটে বসিয়ে চুমু দিতে লাগলো,,
মুনা-ভাইয়া
শিশির-ধুর,
শিশির গিয়ে দরজা খুললো,
মুনা-রুনা আপু আসছে,
শিশির-what!,,
তনু শাড়ী ঠিক করে উঠে দাঁড়ালো,,
শিশির সোফার রুমে গেলো,
রুনা-কেমন আছো??
শিশির-তুমি এখানে আসছো কেন?
রুনা-ওমা আসতে পারি না?আগে আসি নাই?
রুনা-আচ্ছা আসল কথাই আসি,,আমি শিশিরের বাচ্চার মা হতে চলেছি,
মা-কিহহহ
শিশির-আর ইউ ম্যাড?
তনু-?
রুনা-এই দেখো রিপোর্ট,, আমি pregnant,, এতদিন তোমার সাথে আমার রিলেশন ছিলো,বাবুর বাবা তুমি,আমাকে না মানলে পুলিশ কেস করবো,,রুনা গিয়ে তনুকে সরিয়ে শিশিরের রুমে গিয়ে খাটে বসলো,
শিশির-পাগল হয়ে গেসে,,
তনু রিপোর্ট হাতে নিলো,শিশির মাথায় হাত দিয়ে সোফায় বসলো,শরীফরে কল দিলো,সব বললো,
শরীফ-কার না কার বাচ্চা তোর ঘাড়ে চাপাইতেছে,তনু কি বলে?
শিশির-ও রিপোর্ট হাতে নিয়ে বসে আছে,
শিশির তনুর কাছে গিয়ে বসলো,তনু তুমি কি আমাকে বিশ্বাস করো?
তনু-হুম
শিশির-ঠিক আছে,,
শিশির নিজের রুমে গিয়ে রুনার হাত ধরে টেনে নিয়ে বাসা থেকে বের করে দিয়ে দরজা লাগিয়ে দিলো,,
মা-মেয়ে যদি থানা পুলিশ করে?
শিশির-আমি দেখে নিবো,
তনু চিন্তায় শেষ,,শিশিরকে বিশ্বাস করে বাট শিশিরকে এই ঝামেলা থেকে কিভাবে বের করবে,,গালে হাত দিয়ে বসে আছে তনু,
শিশির এসে পাশে বসলো,
তনু-আরও আমাকে দেখিয়ে দেখিয়ে পিরিত করেন?
শিশির-আমি জানতাম না ও এত বড় problem create করবে,শিশির তনুর হাত ধরলে তনু হাত ছাড়িয়ে নিলো,
শিশির-?কি?
তনু-হুহ,
তনু উঠে চলে যেতে নিলো শিশির আঁচল ধরে ফেললো,
শিশির-তোমাকে সত্যি সত্যি আমার বাচ্চার মা বানিয়ে দিই??
তনু-?আগে এই নকল বাচ্চা সামলান
তনু এসে শিশিরের পাশে বসলো, আচ্ছা শুনেন,রুনার বাসার address আমাকে দিন তো,
শিশির-কেন??
তনু-দেন না কচু
শিশির address দিলো,,
শিশির -একা একা যেও না আমাকে নিও,
রুনা is too dangerous,,
তনু-ওকে,,
কিছুক্ষণ পর,,♥♥♥♥♥♥♥
শিশির ফোন টিপতেছে,,তনু শাড়ী নিয়ে পড়তে গেলো,,
শিশির-কি হয়সে?এই টাইমে শাড়ী change করতেছো কেন?
তনু-আরে পানি খেতে গিয়ে পুরা গ্লাসের পানি গায়ে পড়সে,
শিশির-হাহা,,
শিশির উঠে গিয়ে বাথরুমে ঢুকে গেলো,
তনু-আরে এসব কি?যান এখান থেকে
শিশির তনুর পেট ধরে কাঁধে চুমু দিলো,
তনু-শাড়ী পরতে দেন,যান
শিশির-নাহ যাবো না,,শিশির তনুকে নিজের দিকে ফিরালো,তনু আগের মত হাত দিয়ে গা ঢাকলো,
শিশির হাত সরিয়ে দেওয়ালের সাথে চেপে ধরলো,,
শিশির তনুর কাছে গিয়ে ওর নাকে কামড় দিলো,,
তনু-নাকে কেউ কামড়ায়?
শিশির-শিশির কামড়ায়,তার বউকে
শিশির ঝরনা ছেড়ে দিলো,
তনু -আল্লাহ গো
শিশির তনুকে নিজের কাছে টেনে নিলো,গায়ের সাথে লাগালো,,
তনু-আমার ভালো শাড়ীটা দিলেন তো ভিজিয়ে,,
শিশির তনুকে নিয়ে অনেকক্ষন ভিজলো,,
তনু-হাইচ্ছু!?
শিশির ঝরনা অফ করলো,
,তনু ভিজা শাড়ী নিয়ে বের হয়ে দাঁড়িয়ে আছে,
শিশির shirt খুলে তনুর কাছে আসলো, তনু শীতে কাঁপতেছে,,
শিশির তনুর গা থেকে শাড়ী সরিয়ে নিতে লাগলো,,কাঁধ থেকে তনুর ভিজা চুল সরালো,,তনুকে কোলে করে বিছানায় নিয়ে গেলো,,(বাকি সব আপনারা জানেন??)
রাতে তনু ঘুমাচ্ছে শিশিরের গায়ের shirt পড়ে,,তনু পরে নি,শিশির পরিয়ে দিছে নইতো ঠান্ডা লেগে যাবে
চলবে♥
“এখনই জয়েন করুন আমাদের গল্প পোকা ডট কম ফেসবুক গ্রুপে।
আর নিজের লেখা গল্প- কবিতা -পোস্ট করে অথবা অন্যের লেখা পড়ে গঠনমূলক সমালোচনা করে প্রতি সাপ্তাহে জিতে নিন বই সামগ্রী উপহার।
আমাদের গল্প পোকা ডট কম ফেসবুক গ্রুপে জয়েন করার জন্য এখানে ক্লিক করুন



Crush যখন বর?
Writer-Afnan Lara
#Season_2
#Part_33
শিশির ঘুমাচ্ছে, তনু আস্তে আস্তে উঠে রেডি হয়ে বেরিয়ে গেলো,,
সোজা রুনাদের বাসায় গেলো,,
লুকিয়ে ওদের বাসার পিছন দিয়ে গিয়ে জানালায় উঁকি মারলো,,রুনা ঘুমাচ্ছে,,
তনু একটা নতুন সিম কিনে ফোন করলো রুনাকে,রুনা ধরলো,
হ্যালো কে??
তনু রুমাল দিয়ে পেঁচিয়ে বললো
তনু-ম্যাডাম আপনি যে pregnant, বেবির বাবা কে তা এখনই জানা সম্ভব, আপনি কি তা করবেন??
রুনা- না না থাক,,
তনু-আমরা তো ভাবসি আপনার লাগবে তাই test ও করিয়েছি,,আপনি এসে রিপোর্ট টা নিয়ে যান,নইতো শিশির স্যারকে কল দিবো? আপনি বাবার নামে শিশির লিখসেন তাই বললাম,
রুনা-না না,আমি আসতেছি
তনু-আচ্ছা,
তনু-হিহি এবার বুঝবে ঠ্যালা,,
তনু একটা নকল রিপোর্ট তৈরি করে এনেছিলো,,
এবার শরীফকে কল দিলো,,
শরীফ হসপিটালের কর্মচারীকে টাকা দিয়ে বললো এই রিপোর্ট টা রুনা আসলে দিতে,,
রিপোর্টে লিখা আছে রুনার বাচ্চার বাবা শিমুল??
তনু জানে এটা সত্যি,,
শিমুল রুনার সাথে অবৈধ সম্পর্কে জড়িত ছিলো,
তনু জানতো ব্যাপারটা,,guess করে সব করেছে,,
এখন রুনার Reaction -এ সব টের পাবে,
কর্মচারী রুনাকে রিপোর্ট টা দিলো,
রুনা রিপোর্ট নিয়ে শক হয়নি একটুও,,Just ঘামাইতেছে,
শরীফ আর তনু লুকিয়ে দেখতেছে,,
শরীফ-দেখসো?আমাদের আন্দাজই ঠিক হয়সে,,ছিঃ
তনু-এবার পরের কাজ করতে হবে,,
রুনা হসপিটাল থেকে বের হতেই তনু আর শিমুল গিয়ে সামনে দাঁড়ালো,,
রুনা-এসব কি?আমার পথ আটকালে কেন??
তনু-শিমুলের বাচ্চা না এটা??
শরীফের ওয়াইফ দূর থেকে ভিডিও করতেছে,
রুনা-না শিশিরের,
তনু-তাহলে রিপোর্ট?
রুনা-কিসের রিপোর্ট??
তনু হাত থেকে রিপোর্ট নিয়ে নিলো,,
তুমি নিজ থেকে বলবা নাকি সবাইরে ডেকে আমি বলবো?
কি হলো??শরীফ ভাইয়া ডাকেন
শরীফ-কেউ আছো?
রুনা-stop it, ওকে মানসি আমি মিথ্যা বলসি,এটা শিশিরের না শিমুলের বেবি,,
তনু-কেমনে কি?বুঝাও
রুনা-একদিন শিমুল বাসায় এসেছিলো,,আমার ওরে ভালো লাগত,ব্যাস,,
তনু-আমার husband কে কেন ফাসাইতে চাইসো?
রুনা-আসলে
তনু-সত্যি বলো নাহলে ফাঁস করে দিব
রুনা-ও আমার সাথে প্রেম করে তোমাকে বিয়ে করসে,
তনু-তুমি শিশিরের খবর নিসো একবারও যখন শুনসো ওর জব শেষ?
শরীফ-ভাগো,নাহলে পুলিশে দিব,,
রুনা পালাই গেলো,
শরীফ-ভাবী কাজ হয়ে গেসে,
শরীফের ওয়াইফ আসলো,
৩জন মিলে হাসতেছে,,
শিশির ঘুম থেকে উঠে তনুকে না দেখে অচেতন হয়ে গেসে,
মুনা তনু কই??
মুনা-জানি না তো
শিশির-কই পাবো,,বাসায় গেলো নাকি,,হ্যালো বাবা,,তনু কি আপনাদের বাসায়?
বাবা-নাতো, কেন কি হয়সে?
শিশির-ওহ,না আসলে ওকে সকাল থেকে দেখছি না
বাবা-কি বলো,কল দাও,,
শরীফ সিয়া আর তনু হাঁটতেছে আর কথা বলতেছে,
তনুর মাথাটা ঘুরে উঠলো,,তনু সব ঝাপসা দেখতেছে,কিছুক্ষণ পরই পড়ে গেলো নিচে,,
সকাল ১১টায়♥
শরীফ-হ্যালো শিশির,,উপশম হসপিটালে চলে আয়,,
তনু Senseless হয়ে গেসে
শিশির-what!
শিশির তাড়াতাড়ি করে আসলো,তনু বেডে শুয়ে আছে,,
শিশির-কি হয়সে ওর?
শরীফ-আরে কিছু না মেবি কিছু খায়নি তাই,,
doctor -উনি কি আগে মাথায় চোট পেয়েছে?
শিশির-হ্যাঁ,
Doctor -এই জন্যই,
শিশির-তোরা ওরে পেলি কই??
সিয়া-সে এক বিরাট কাহিনি,,
সিয়া ভিডিও নিয়ে শিশিরকে দেখালো,,
শিশির -ওরে বলসিলাম আমাকে না বলে যেন বের না হয়,,
শরীফ-হয়সে যা হয়সে তা গেসে,,বউরে সামলা,,
শিশির গিয়ে পাশে বসলো,,কখন জ্ঞান ফিরবে?
Doctor -বিকালের দিকেই,,
বিকালে তনুর জ্ঞান ফিরলো,শিশির মুখ গোমড়া করে তাকিয়ে আছে,
তনু-সরি
শিশির-একটা চড় মেরে দিব,
তনু-?
শিশির -চলো!!!
শিশির হাত ধরে উঠালো, তনু হাঁটতে পারছে না,শিশির কোলে নিতে পারতো কিন্তু সব মানুষ,
শিশির তনুর কোমড় ধরে আস্তে আস্তে নিয়ে গেলো,,বাসায় নিয়ে এলো,
শিশির -Next time এমন কিছু করলে মেরে ফেলবো তোমাকে
তনু-?
শিশির খাবার এনে খাইয়ে দিলো,,,
তনু-সরি তো,,
শিশির-হুমম,আচ্ছা rest নাও,আমি অফিস থেকে ঘুরে আসি,,আজ যেতে পারিনি
তনু-আচ্ছা,,
রাতে শিশির আসলো,তনু ঘুমাচ্ছে,,
শিশির fresh হয়ে নিয়ে তনুর পাশে এসে শুলো,,
তনুর মাথায় হাত বুলিয়ে দিলো,তনু পিছন ফিরে তাকালো,
শিশির-ঘুমাও নি?
তনু-জেগে গেসি আপনার টাচে,
শিশির-ওহ,সরি
তনু-না ঠিক আছে,,,
শিশির তনুকে জড়িয়ে ধরলো,,আচ্ছা শুনো Doctor বলসে Full bed rest-এ থাকতে,
তনু-হ,,বিছানা নিয়ে বাথরুমে জামু
শিশির-?
তনু-???????
শিশির তনুর মাথা ধরে কাছে আনলো,নাকের সাথে লাগিয়ে ফেললো,
শিশির-আমাকে একা রেখে কোথাও যাবা না,মেরে ফেলবো,,
তনু-?আচ্ছা
শিশির-হুম গুড girl,,শিশির তনুর ঠোঁটে চুমু দিতে লাগলো,,তনু শিশিরকে জড়িয়ে ধরলো,,
চলবে♥

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে