নেশালো সে পর্ব-০৯

0
1697

#নেশালো_সে💖
#লেখনীতে:#তানজিল_মীম💖

০৯.

“বালিশ দিয়া উড়াধুরা মারছি আমি আয়াফকে’!!আর আয়াফ আমার এমন কাজে চোখ বড় বড় তাকিয়ে আছে আমার দিকে’!!কিছুক্ষণ আগেই রুমে আসলো আয়াফ’!!আয়াফ রুমে ঢোকার সাথে সাথে মারামারি শুরু..

“এদিকে আয়াফ অবাক হয়ে বলছেঃ

———–“আশ্চর্য তুমি এইভাবে মারছো কেন আমায়?’

———-“আজকে তোরে আমি মেরেই ফেলবো…

———-“তুমি আমায় তুই করে বলছো!😳

———-“বেশ করেছি বলেছি আরো বলবো তুই তুই, শয়তান কোথাকার বউ থাকতে অন্য মেয়েদের সাথে ডলাডলি করে😤

“এতক্ষণ পর আয়াফ বুঝতে পারলো আফিয়া এমন কেন করছে তার মানে আফিয়া জ্বেলাস ফিল করছে’!!আয়াফ মনে মনে অনেক খুশি হয়েছে কারন এসব ও ইচ্ছে করেই করছে’!!হুট করেই আয়াফ আফিয়ার হাত ধরে দিলো টান’!!সাথে সাথে আফিয়া এসে পরলো আয়াফের বুকে’!!

————“ছাড়ুন বলছি একদম ধরবেন না আমায়….

————“খুব কষ্ট হচ্ছে বুঝি আমি জুলির সাথে কথা বলছি বলে…

————“আমার কেনো কষ্ট হবে,আমার কোনো কষ্ট হচ্ছে না’!!

———–“তাই বুঝি!তাহলে আমায় মারছো কেন….

———–“ভালো লাগছে তাই মারছি আপনার তাতে কি?

“আয়াফ আফিয়ার কথা শুনে অবাক হয়ে বললোঃ

———-“আমার ডায়লগ আমাকেই শোনাচ্ছো….

———-“আপনি খুব পঁচা আয়াফ…🥺

“বলেই আয়াফের বুকে কিল ঘুসি মারতে মারতে নেকা কান্না করে দিলাম আমি’!!এদিকে আয়াফ ভাবতেই পারে নি আফিয়া এমন কিছু করবে’!!আয়াফ আফিয়াকে বুকে জড়িয়ে ধরে বললঃ

———-“ভুল হয়ে গেছে বউ আর হবে না!

———-“তুমি জানো আমার কত কষ্ট হচ্ছিল….

———–“কি করে জানবো তুমি না বললে….

———-“তা জানবে কেন হুহ শয়তান কোথাকার?

———-“একটা সত্যি কথা বলবো?’

———–“কি(আয়াফের বুক থেকে মাথা সরিয়ে ওর দিকে তাকিয়ে বললো আফিয়া)

————“আসলে তোমায় জ্বালাতে না আমার হেব্বি লাগে তাই তো একটু বেশি কথা বলতাম জুলির সাথে!

————“কি তার মানে আমায় জ্বেলাস ফিল করার জন্য এত নাটক!আজকে তোমার একদিন আমার একদিন বলেই উড়াধুরা আবার মারামারি শুরু করে দিলাম…..

———–“আরে এখনও মারছো আমায়,ভুল হয়ে গেলো না সত্যি কথা বলছি বলে…

বিনিময়ে আফিয়া কিছু বললো না’!!উড়াধুরা খালি মারতেই ছিল’!!

“পুরো রাত এইভাবেই কেটে গেল ওদের’!!

____________________________

“সূর্যের প্রবল তাপে ঘুম ভাঙল আমার’!!নিজেকে আয়াফের বুকে ঘুমিয়ে থাকতে দেখে অতোটা অবাক হয় নি আমি’!!কাল শেষ রাতে আয়াফকে মারা বন্ধ করে ওকে জড়িয়ে ধরেই ঘুমিয়ে পড়েছিলাম আমি’!!হর্ঠাৎই মাথায় একটা প্রশ্ন আসলো আমারঃ

———-“হুট করে আয়াফ কি এমন দেখলো আমার মাঝে যে ভালোবেসে ফেলেছে’!!সেদিন “ঝুমকা” দেখানোর পরেই এমন বদল হলো আয়াফের’!!কি ছিল ওই ঝুমকার মাঝে’!!ধুম করে এমন একটা ভাবনা কেন আসলো মাথায় বুঝতে পারলাম না আমি’!!আজকেই জিজ্ঞেস করবো আমি আয়াফকে’!!কি ছিল ওই “ঝুমকায়”…….

||

“ব্রেকফাস্ট টেবিলে বসে আছি আমরা সবাই’!!এমন সময় আয়াফ খেতে খেতে বলে উঠলঃ

———“বাবা অফিসের কিছু কাজের জন্য আমাকে চট্টগ্রাম যেতে হবে একসপ্তাহের জন্য!’

“হুট করে আয়াফ এমন কিছু বলবে এটা একদমই কল্পনার বাহিরে ছিল আমার’!!কই কাল রাতে তো এমন কিছু বলে নি আমায় আয়াফ’!!শশুর মশাই আয়াফের কথা শুনে কিছুক্ষন চুপ থেকে বলে উঠলঃ

———–“ঠিক আছে!

———–“হুম!

“বলে খাবার খেতে লাগলো আয়াফ’!তারপর নেমে আসলো টেবিলে কুটকুটে নীরবতা শুধু চামচের শব্দ ছাড়া তেমন কোনো আওয়াজ শোনা গেল না এখানে’!!কিছুক্ষন পর’!!আয়াফ তার বাকি খাবার শেষ করে উঠতে যাবে এমন সময় শশুর মশাই বলে উঠলেনঃ

———-“তুমি চাইলে আফিয়াকেও নিয়ে যেত পারো তোমার সঙ্গে…..

“আয়াফ যেন এতক্ষণ এই কথাটা শোনার জন্যই অপেক্ষায় ছিল’!!তাই খুশি হয়ে বলে উঠল সেঃ

———-“ঠিক আছে বাবা!

“সাথে সাথে সবাই হাসলো’!!”একটা জিনিস তো পাক্কা আমাদের আয়াফ বউ বলতে পাগল”!😁

———–“তা কবে যাচ্ছো তুমি?

———-“এই তো বাবা কালকে!

___________________

“বিকাল_৪ঃ০০টা……

“আয়াফ আর আফিয়া যাবে শপিং করতে!গাড়ির সাথে হেলান দিয়ে দাঁড়িয়ে আছে আয়াফ’!!পরনে তার ব্লাক জিন্স আর ব্লাক শার্ট,হাতে ব্রান্ডেড ব্লাক ওয়াচ,চুলগুলো বরাবরই খুব সুন্দর করে জেল দিয়ে সাজানো’ আর চোখে কালো সানগ্লাস’!!এককথায় বলতে গেলে অল্প সাজেই অসম্ভব সুন্দর লাগছে তাকে’!!অন্যদিকে বাড়ির ভিতর থেকে বাহিরে আসছে আফিয়া পরনে তার ব্লাক গর্জিয়াস থ্রি-পিচ,, মুখে হাল্কা মেকাপ,চোখে কাজল,আইলাইনার, হাতে ব্যাচ আর চুলগুলো খুলে রেখেছে সে’!!চুল খোলার বিষয়টা আয়াফ তাকে বলেছিল তাই খোলা রেখেছে আয়াফ’!! এই মুহুর্তে দুজনই দুজনকে দেখে একদফা ক্রাশ খাইছে’!!দুজনেই পলক বিহীন তাকিয়ে আছে দুজনের দিকে’!!আয়াফ তাড়াতাড়ি তার চোখ নামিয়ে নিল আফিয়ার উপর থেকে’!!আর মনে মনে বললোঃ

———–“তোমার ওই মায়াবী চোখে যে বেশিক্ষণ তাকিয়ে থাকার ক্ষমতা নেই আমার ”মায়াবতী”!

||

“আয়াফদের গাড়ি এসে থামলো একটা বড় শপিং মলের সামনে’!!আয়াফ আফিয়া দুজনেই গাড়ি থেকে নেমে গেল’!!তারপর একসাথে ঢুকলো শপিংমলের ভিতরে!!শপিংমলের ভিতর ঢুকতেই আফিয়ার বান্ধবী রুহি আর তিশা’ এসে হাজির’!!ওরাও শপিং করতে এসেছে’!!আফিশাকে ঢুকতে দেখেই চলে আসলো ওরা আফিয়াদের সামনে’!!এমন একটা কিছু হওয়ার জন্য মটেও প্রস্তত ছিল না আফিয়া’!!চোখ তার চড়ুইগাছ’!!মুখ থেকে অটোমেটিক বেরিয়ে আসলো তারঃ

———-“তোরা!

———–“হুম আমরা….(রুহি)

“এতটুকু আফিয়াকে টেনে এনে ওদের পাশে দাঁড় করালো তিশা’!!তারপর বললোঃ

——–“দোস্ত ছেলেটা কে?

———“তোদের দুলাভাই!আফিয়ার কাছ থেকে আয়াফের পরিচয় পেতেই’!!তিশা তার হাত আয়াফের দিকে এগিয়ে দিয়ে বললোঃ

———“আসসালামু আলাইকুম দুলাভাই!

তিশার কথা শুনে আয়াফ মুচকি হেঁসে বললোঃ

———-“ওয়ালাইকুম আসসালাম….

———–“নিশ্চয়ই চিনতে পারছেন না অবশ্য চিনবেন কি করে আফিয়া তো কোনোদিন পরিচয় করিয়ে দেই নি আমাদের,,তাই আমরাই পরিচয় দিচ্ছি আমি হলাম তিশা আর ও রুহি!আর আমরা দুজনই আফিয়ার সেই ছোট বেলার বান্ধবী এককথায় বলতে গেলে আমরা বেস্টফ্রেন্ড!!তিশার কথা শুনে হালকা হেঁসে আয়াফ বললোঃ

———-“ওহ!

“এদিকে তিশা আফিয়ার কানে কানে বললোঃ

———-“দোস্ত তোর জামাইরে এত সুন্দর দেখতে জানতাম না তো!উফ ক্রাশ খাইছি দোস্ত….

“এমন সময় আরেকজন রুহি সেও এসে বললোঃ

———-“দোস্ত আমিও কিন্তু খাইছি’!!বলেই আবারো আয়াফের সাথে কথা বলতে চলে গেল রুহি আর তিশা’!!

“আয়াফও ওদের সাথে সুন্দর হেঁসে হেঁসে কথা বলতে লাগলো’!!এদিকে আফিয়া তো ভিতরে ভিতরে পুরো জ্বলে পুড়ে যাচ্ছে!!না পারছে কিছু বলতে না পারছে সইতে’!!এক পর্যায়ে আফিয়া ওদের মাঝখানে দাঁড়িয়ে আয়াফের চোখ তার হাত দিয়ে চেপে ধরে বললোঃ

———–“এই চোখ বন্ধ!একদম নজর দিবি না এই চিকনী জামাই আমার….

“আফিয়ার এমন কাজে সবাই অবাক হয়ে হেঁসে দিল’!!তারপর বললোঃ

————“হুহ আমরাও নজর দিমু না যা তোর চিকনী জামাইরে….

————“হুহ,এখন তোরা যা আমি এখন শপিং করবো….

————“হুম ঠিক আছে ঠিক আছে আমারও চলে যাচ্ছি….

“বলেই রুহি তিশা আয়াফকে মিষ্টি করে বাই বলে চলে গেল’!!আয়াফ এতক্ষণ শুধু নীরব দর্শকের মতো আফিয়ার কাজের মজা নিচ্ছিল’!!রুহি, তিশা যেতেই আয়াফ বলে উঠলঃ

———–“যাই বলো তোমার বান্ধবীদের দেখতে খুব সুন্দর…..

আয়াফের কথা শুনে আফিয়া হাল্কা রেগে গিয়ে বললোঃ

———–“কি সুন্দর তাহলে যাও না আমার বান্ধবীদের কাছে আমার কাছে কি হুহ..😒

“আয়াফ হাল্কা হেঁসে বললোঃ

———–“আরে মজা করছিলাম তো….

“হাসলো দুজনেই!!

“তারপর দুজনই একসাথে শপিং করতে চলে গেল’!!একের পর এক দোকান ঘুরে শপিং করলো দুজন’!!শপিং শেষ করে দুজনেই বেরিয়ে গেল শপিংমল থেকে’!!

“রাস্তায়র এপারে দাঁড়িয়ে আছে আয়াফ আর আফিয়া আর তাদের উল্টো দিকে রয়েছে তাদের গাড়ি’!!আয়াফ সেদিকে পা বাড়াতে নিলেই আফিয়া তার হাত ধরে বসলো’!!আচমকা এমনটা হওয়াতে আয়াফ অবাক হয়ে তাকালো আফিয়ার দিকে’!!আয়াফ তাকাতেই আফিয়া বলে উঠলঃ

———-“চলো না ফুচকা খাই!

———–“কি এখন…

———-“হুম এখন নয় তো কখন ওই দেখুন ফুচকার দোকান(হাত দিয়ে দেখিয়ে)

“আয়াফ কিছুক্ষন ভেবে বললোঃ

———-“ঠিক আছে!আগে শপিংগুলো গাড়ির ভিতর রেখে আসি তারপর খাওয়াবো ঠিক আছে….

“আয়াফের কথা শুনে আফিয়া খুশি হয়ে আয়াফের একহাত জড়িয়ে ধরে বললঃ

———-“ঠিক আছে!

“তারপর দুজনেই একসাথে অগ্রসর হতে লাগলো গাড়ি দিকে’!!গাড়ির ভিতর ব্যাগগুলো রেখে আবারো উল্টোদিকে হাঁটা শুরু করলো আয়াফ আর আফিয়া’!!তারপর তাঁরা চলে গেল ফুচকার দোকানের সামনে’!!সুন্দর একটা লেকের পাশে দাঁড়ালো আয়াফ আর আফিয়া’!!তারপর আফিয়া ফুচকা খেলেও আয়াফ খেলো না’!!সন্ধ্যার দ্বীপ প্রহরী’!!সূর্য ডুবে যাচ্ছে প্রায়’!!পুরো আকাশটা লাল বর্ন ধারণ করেছে’!!সাথে শীতল মেশানো বাতাস’!!তার সাথে আছে আয়াফের মায়াবতী সত্যি খুব সুন্দর মোমেন্ট’!!হাসলো আয়াফ…….

__________________________________________

_______________________

“রাত_৮ঃ০০টা……..

“জামা কাপড় গুছাচ্ছি আমি’!!তারপর আমার থেকে কিছুটা দূরে সোফায় বসে মোবাইল গুতাচ্ছে আয়াফ’!! হুট করেই সকালে সেই ভাবনাটা মাথায় আসলো আমার’!!আমি জামাকাপড় গুলো বিছানার উপর রেখে আস্তে আস্তে এগিয়ে গেলাম আয়াফের কাছে’!!তারপর আয়াফের পাশে বসে বলে উঠলাম আমিঃ

———–“আমার কিছু বলার আছে তোমায়….

আয়াফ তার মোবাইলের দিকে তাকিয়েই বলে উঠলোঃ

————“হুম বলো…..

————“সত্যি কথা বলবে কিন্তু…..

এইবারের কথা শুনে আয়াফ আফিয়ার দিকে তাকিয়ে বললোঃ

————-“এমন ভাবে বলছো কেন,কি বলবে বলো তুমি আর মিথ্যে বলবো কেন?’

“আয়াফের কথা শুনে আফিয়া একটা ছোট্ট শ্বাস ফেলে কিছু বলতে যাবে তার আগেই আয়াফের ফোনটা বেজে উঠল!’আয়াফ ফোনটা হাতে নিয়ে বললোঃ

———–“হ্যালো,

“আফিয়া কিছু বলতে গেলেও আয়াফ থামিয়ে দিয়ে বললো আফিয়াকেঃ

———-“জাস্ট দু’মিনিট আসছি আমি” বলেই রুম থেকে বেরিয়ে গেল আয়াফ’!!তারপর আফিয়াও আর কিছু না বলে তার কাজে ব্যস্ত হয়ে পরলো!

“সেদিন রাতে আয়াফের রুমে আসতে আসতে আফিয়া ঘুমিয়ে পরেছে’!!তাই আর জানা হলো না আয়াফের কি বলতে চাইছিল আফিয়া’!!

||

“সকালে খুব তাড়াতাড়ি তৈরি হয়ে গাড়ি করে বেরিয়ে পরলো আয়াফ আর আফিয়া চট্টগ্রাম যাওয়ার উদ্দেশ্যে’!!আফিয়া মনে মনে ভেবে রেখেছে চট্টগ্রাম গিয়েই বলবে আয়াফকে…..
!
!
!
!
!
!
!
!
!
!
!
!
#চলবে…………

~ ভুল-ত্রুটি ক্ষমার সাপেক্ষ!!🖤🥀
আর গল্প কেমন লাগছে অবশ্যই কমেন্ট করে জানাবে!!🥰🥀

#TanjiL_Mim♥️

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে