নেশালো সে পর্ব-০৫

0
1605

#নেশালো_সে💖
#লেখনীতে:#তানজিল_মীম💖

০৫.

“কোলে তুলে নিয়ে দাঁড়িয়ে আছে আয়াফ’!!আর আমিও ভয়ে ঘাবড়ে গিয়ে খিচে চোখ বন্ধ করে আয়াফের শার্টের হাতা খামচে ধরে আছি’!!এইমাএ কি হলো সব যেন মাথার উপর দিয়ে গেল’!!কিছুক্ষণ আগে…..

“আলমারির উপর থেকে ব্যাগটা নামাতে গিয়ে আমারি ভুলের জন্য বিছানার উপর থেকে পড়ে যেতে নিলাম আমি’!!এমন সময় হুট করে কোথা থেকে আয়াফ এসে ধরে ফেললো আমায়’!!আচমকা এমনটা হওয়াতে ভয়ে চোখ বন্ধ করে আছি আমি’!!

____

“এদিকে আয়াফ রুমে এসেছিল একটা ফাইল নিতে ভুলে গেছিল সে সেটা নিতে’!!এমন সময় আফিয়াকে পড়ে যেতে দেখে ছুটে গিয়ে ধরলো তাকে’!!আফিয়ার চোখের দিকে একদৃষ্টিতে তাকিয়ে আছে আয়াফ’!!কিছু একটা অনুভব হচ্ছে তার’!!এই চোখ খুব চেনা লাগছে আয়াফের!হুট করেই আয়াফের সেই মেয়েটার চোখদুটো অনুভব করছে’!!তাহলে কি,,ভেবে পাচ্ছে না আয়াফ?…

“খিচে চোখ বন্ধ করে আছি আমি’!!চোখ খুলবো কি খুলবো না বুঝতে পারছি না’!!না জানি আয়াফ কি বলবে আমায়’!!কিন্তু এভাবেও তো বেশিক্ষণ থাকা যাবে না’!!আস্তে আস্তে চোখ খুলে ফেললাম আমি’!!তারপর আয়াফের দিকে তাকাতেই দেখলাম উনি একদৃষ্টিতে তাকিয়ে আছে আমার দিকে’!!আমি একটু অবাক হয়ে বললামঃ

———–“আমাকে কি এর আগে দেখেন নি নাকি…

“বিনিময়ে আয়াফ কোনো উওর দিলো না’!!এতে আরো অবাক হলাম আমি’!!হলো কি বেটার’!!!একটু উচ্চ স্বরে বলে উঠলাম আমিঃ

————-“এই যে মিস্টার “করলার জুস”!আমায় কি এইভাবে কোলে তুলে রাখবেন নাকি, নামাবেন না….

“আফিয়ার এইবারের কথায় ধ্যান ভাঙল আয়াফের’!!চটজলদি আফিয়াকে নামিয়ে দিয়ে বলে উঠল সেঃ

————“চোখ কোথায় থাকে তোমার এইমাএই তো একটা এক্সিডেন্ট হয়ে যেত!

————“ইয়ে না মানে….

————“চুপ কর!তোমার ইয়ে না মানে সব দেখছি আমি!ব্যাগটা উচুতে চোখে দেখো না তুমি!সরো আমি নামিয়ে দিচ্ছি!

“বলেই আমায় সরিয়ে আয়াফ বিছানার উপর উঠে ব্যাগ নামিয়ে আনলো’!!তারপর ব্যাগটা বিছানায় রেখে বললোঃ

————“যেটা পারো না সেটা করতে যাও কেন?

“বলেই টেবিলের উপর রাখা তাঁর ফাইলটা নিয়ে চলে গেল আয়াফ’!!আর আমি শুধু আয়াফের যাওয়ার পানে হাবলার মতো তাকিয়েই রইলাম’!!যেন কি হলো আর কি বললো কিছু বুঝতেই পারলাম না…..

||

“বাড়ি থেকে বেরিয়ে সোজা আয়াফ বসে পরলো গাড়িতে’!!আয়াফ গাড়িতে বসতেই ড্রাইভার গাড়ি চালাতে শুরু করল’!!এদিকে আয়াফ এখনো ভাবছে আফিয়ার চোখের কথা’!!খুব মিলে যাচ্ছে কি,,আয়াফ আবারো চোখ বন্ধ করে নিলো তার আর ভাবতে লাগলো সেই মেয়েটার চোখের কথা!আবারো সব এলেমেলো হয়ে যাচ্ছে আয়াফের’!!আর ভাবতে পারছে না আয়াফ’!!চোখ খুলে ফেললো আয়াফ’!!আর বলে উঠল সেঃ

———-“সত্যি আমি পাগল হয়ে গেছি মনে হয়,কবে দেখা মিলবে তোমার সাথে “মায়াবতী”….

“ভেবেই দীর্ঘশ্বাস ফেললো আয়াফ!একটা মেয়ে শুধুমাএ তার চোখের মায়ায় পড়ে কি করে এতো পাগল হলো আয়াফ!তা সে নিজেও বুঝতে পারছে না!

🌸”ভালোবাসা হয়তো এমনি হয়,কারো মায়াবী চোখ দেখে,কারো কথার মায়ায় পড়ে,নয়তো কারো হাসির মুগ্ধতার পরশে’!!হুট করেই হয়ে যায় ”ভালোবাসা”!!কিভাবে হবে কখন হবে সেটা তো শুধুমাএ সময়ই বলে দিতে পারে”!! 🌸

“কিন্তু ভালোবাসা যে মানুষকে খুব কষ্ট দেয় এটা হারে হারে বুঝতে পারছে আয়াফ’!!

_________________________

“বিকেল_৪ঃ০০টা……

“কিছুক্ষণ আগেই আয়াফ আসলো বাসায়’!!কতোক্ষনের মধ্যেই আমরা চলে যাবো আমাদের বাড়িতে’!!ভাবতেই আনন্দ লাগছে আমার’!!কতদিন হলো আমার রুমটা একা একা থাকছে,,আই মিস ইউ ছুনারা, আমি আর কতক্ষন পরই আসছি তোমাদের কাছে জাস্ট ওয়েট.😘উমম্মা….

“এমন সময় রুমে ঢুকলো আয়াফ’!!আমায় এইভাবে চুমু দিতে দেখে তার চোখ অটোমেটিক বড় বড় হয়ে গেল’!!আমি তো তাকে দেখেই ঠোঁটে হাত দিলাম’!!আমি কিছু বলার আগেই আয়াফ বলে উঠলঃ

———“তাড়াতাড়ি নিচে আসো বেশি দেরি হলে তোমায় রেখেই চলে যাবো কিন্তু….

“বলেই আর দু’মিনিট দাঁড়ালো না আয়াফ!হন হন করে চলে গেল সে!আয়াফ যেতেই নিজের মাথায় নিজেই একটা চাটি মারলাম’!!তারপর তাড়াতাড়ি তৈরি হয়ে চলে আসলাম নিলাম নিচে’!!বরাবরের মতো শাড়ি পড়েছি আজকে!যেদিন থেকে বিয়ে হয়েছে শুধু শাড়ি পড়তে হচ্ছে শুধু ভার্সিটির যাওয়ার সময় থ্রি-পিচ পড়েছিলাম!!চুল গুলো একদিকে বেনুনি করা,চোখে কাজল,সাথে হালকা মেকাপ’!আমি কখনোই ভাড়ি মেকাপ করে সাজি নি!জীবনে একবার সেঁজেছিলাম, তাও আমার জন্মদিনের দিন!বাবা গো বাবা সেদিনের কথা ভাবলে আজও হাসি পায় আমার’!!সব শয়তান বন্ধু গুলোই আমায় গায়ে ময়দা ডিম দিয়ে পুরো ভুত বানিয়ে দিয়েছিল….

“এমন সময় হর্ঠাৎই মনে পরে গেল আলমারিতে থাকা বক্সটার কথা’!!একরাশ কৌতূহল নিয়ে চললাম আমি আলমারির দিকে আজকে দেখেই ছাড়বো বক্সটায় কি আছে’!!একটু একটু করে আলমারির দিকে এগিয়ে গেলাম আমি’!তারপর আয়াফের জামাকাপড়ের ভিতর থেকে বক্সটা বের করে খুলে যা দেখলাম তাতে অবাকের চরম সীমানায় পৌঁছে গেঁছি আমি’!!

———-“একটা ঝুমকো’!!সামান্য একটা ঝুমকোর জন্য আয়াফ আমায় সেদিন সকালে এত কথা শোনালো’!!হর্ঠাৎই কি ঝুমকোটা হাতে নিয়ে নাড়াতে লাগলাম আমি’!!কোথায় যেন দেখেছি আরে এটা তো ভাবতেই চোখ বড় বড় হয়ে গেল আমার’!!কিন্তু এটা আয়াফের কাছে আসলো কোথা থেকে?’….

“এমন সময় আরিশা ডাক দিলো আমায়’!!সাথে সাথে হাল্কা কেঁপে উঠলাম আমি’!!তারপর চটজলদি বক্সটা আলমারিতে রেখে চললাম আমি বাহিরে!কিন্তু কিছুতেই মাথায় আসছে না আয়াফ ঝুমকোটা কোথায় পেলো!😳

||

“বাড়ির সবাইকে বিদায় জানিয়ে বসে পরলাম আমি আর আয়াফ গাড়িতে’!!আমরা বসতেই ড্রাইভার কাক্কু গাড়ি চালাতে শুরু করলেন’!!গাড়ি চালাতেই কাঁচের জানালা ভেদ করে বাতাস বয়ে আসছে গাড়ির ভিতরে’!!একরাশ প্রশ্ন ঘুরছে মাথায়!কিন্তু আমি এই মুহুর্তে কিছু বলতে চাচ্ছি না!তাই চুপচাপ বসে আছি গাড়িতে’!!

এদিকে আয়াফও নীরবে কিছু একটা ভাবছে’!!

“বেশকিছুক্ষন পর……

“আমাদের গাড়ি এসে থামলো আমাদের বাড়ির সামনে’!!গাড়ি থামতেই আমি খুশি হয়ে যেই না গাড়ি থেকে নামতে যাবো এমন সময় আয়াফ আমার হাতটা ধরে ফেললো’!!আয়াফের এমন কাজে আমি অবাক হয়ে তাকালাম তার দিকে’!!আমি তাকাতেই সে বলে উঠলঃ

———-“একদম গরুর মতো লাফালাফি করবে না বলছি….

“মুহূর্তের মধ্যে আয়াফের কথা শুনে মেজাজ টা বিগড়ে গেল আমার’!!আমি একটু ক্ষিপ্ত মেজাজে বলে উঠলামঃ

———-“কি আমি গরু,,আমি গরু হলে আপনি তাহলে ছাগল..

———–“কি আমি ছাগল..

———–“ছাগল নয় তো কি,শুধু শুধু ভ্যা ভ্যা করেন…

“আয়াফ আরো শক্ত করে আমার হাত ধরলো’!!সাথে সাথে ব্যাথায় কুঁকড়ে উঠলাম আমি’!!আয়াফ একটা রাগী লুক নিয়ে বললোঃ

———–“আমি সারাদিন ভ্যা ভ্যা করি নাকি তুমি সারাদিন ভ্যা ভ্যা কর…

———–“দেখুন আয়াফ এই মুহুর্তে আমি আপনার সাথে ঝগড়া করার মুডে নেই, ছাড়ুন আমায় আমি ভিতরে যাবো…

————“এত ভিতরে যাওয়ার তারা কিসের কি আছে ভিতরে….

“আয়াফের এমন আহামকের মতো কথা শুনে আমি অবাক হয়ে বললামঃ

———-“আপনি কি বলতে চাচ্ছেন বলুন তো,আমি কিছু বুঝতে পারছি না!

———-“তোমাকে কিছু বুঝতে হবে না

“বলেই হাত ছেড়ে দিলেন উনি!তারপর গাড়ি থেকে নেমে গেলেন আয়াফ’!!ওনার এমন কাজে আমি পুরোই অবাক!কি বলতে চাইলেন উনি!কিছুক্ষণ বসে থেকে আমিও নেমে পরলাম গাড়ি থেকে’!!তারপর তাড়াতাড়ি চললাম বাড়ির ভিতরে…

.

কলিং বেল বাজাতেই আম্মু এসে দরজা খুলে দিল’!!আমাদের দেখে খুশি আম্মু বলে উঠল আয়াফকেঃ

———-“কেমন আছো বাবা!

“আয়াফও খুশি মনে জবাব দিলো…

———-“আলহামদুলিল্লাহ ভালো আপনি….

“আম্মু মুচকি হেঁসে বললোঃ

———–“আমিও ভালো আছি….

“তারপর আম্মু আয়াফকে নিয়ে চলে গেল ভিতরে!এদিকে আমি শুধু নীরব দর্শকের মতো তাকিয়ে তাকিয়ে ওনাদের কাহিনি দেখলাম’!!এটা হলো আম্মু আমায় কিছু না বলে আয়াফকে এতো কিছু বললো!বাহ বাহ জামাইকে পেয়ে মেয়েকে ভুলে গেল নাকি!আমার ভাবনার মাঝে আম্মু বলে উঠলঃ

———–“তুই কি বাহিরেই দাঁড়িয়ে থাকবি ভিতরে আসবি না….

“আম্মুর কথা শুনে একরাশ অভিমান নিয়ে বলে উঠলামঃ

————“হুম আইতাছি…

“ভিতরে ঢুকেই সোজা নিজের রুমে চলে গেলাম’!!!আয়াফ আর আম্মু সোফায় বসে ছিল’!!কিন্তু সেদিকে চোখ দিয়ে আমি আমার মতো চলে আসলাম রুমে’!!রুমে ঢুকেই, সোজা এক লাফে বিছানায় শুয়ে পরলাম’!!উফ এখন খুব শান্তি লাগছে’!!কতোদিন পর আবার রুমটার সাথে দেখা হলো আমার’!!ভাবতেই ভিতর থেকে শান্তি লাগছে খুব’!!

“আচমকাই কিছু একটা মাথায় আসতেই ঠাসস করে বিছানা থেকে উঠে বসলাম আমি’!!তারপর চলে গেলাম আলমারির কাছে’!!

———“যা ভেবেছিলাম সেটাই, কিন্তু আয়াফ কোথায় পেলো…..

__________________________________________

_______________________

“রাত_৯ঃ০০টা……

“ডিনার সেরে বিছানায় বসে আছি আমি’!উদ্দেশ্য হচ্ছে আয়াফ কখন রুমে আসবে আর আমি তাকে কিছু বলবো!বেশ কিছুক্ষন পর আয়াফ চলে আসলো রুমে’!!উনি রুমে আসতেই ওনার সামনে দাঁড়িয়ে পরলাম আমি’!!আচমকা আমি সামনে চলে আসাতে আয়াফ অবাক হয়ে বললোঃ

——–“কি হলো এভাবে সামনে দাঁড়ালে কেন?

———“আপনার সাথে আমার কথা আছে….

———-“কি বলবে তুমি….

“আয়াফের কথা শুনে আমি তার সামনে একটা ঝুমকো হাতে নিয়ে বলে উঠলামঃ

———–“আপনার আলমারিতে এই ঝুমকোটা কোথা থেকে আসলো…..

“আমার হাতে ঝুমকো টা দেখে আয়াফ ঘাবড়ে গিয়ে বললোঃ

———“তুমি তুমি এটা কোথায় পেলে এটা….

———“কোথায় পেয়েছি আপনি বুঝতে পারছেন না আগে বলুন আপনি এই ঝুমকো কোথায় পেয়েছেন…….
!
!
!
!
!
!
!
!
!
!
!
!
#চলবে…………

~ ভুল-ত্রুটি ক্ষমার সাপেক্ষ!!🖤🥀
আর গল্প কেমন লাগছে অবশ্যই কমেন্ট করে জানাবে!!🥰🥀

#TanjiL_Mim♥️

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে