নেশালো সে পর্ব-০৪

0
1671

#নেশালো_সে💖
#লেখনীতে:#তানজিল_মীম💖

০৪.

“ভরা ভার্সিটির সামনে দাঁড়িয়ে হাতে গোলাপ ফুল নিয়ে প্রপোজ করলো আশিক’!!ও আমার বেস্টফ্রেন্ড’!!আর ওর এমন কাজে চোখ বড় বড় হয়ে গেছে আমার’!!আমি অবাক হয়ে বলে উঠলামঃ

———–“এসব কি বলছিস তুই….

———–“সত্যি বলছি আফিয়া তোকে আমি খুব ভালোবাসি রে…..

————“তোর কি মাথা খারাপ হয়ে গেছে নাকি…..

————“মাথা খারাপ হয় নি আমার, সত্যি বলছি আমি তোকে খুব ভালোবাসি….

————“দেখ আশিক এই ড্রামা অফ কর বলছি সবাই কিভাবে তাকিয়ে আছে বলতো….

————“তাকিয়ে আছে থাকুক আগে তুই আমার প্রশ্নের উওর দে তুই আমায় ভালোবাসিস কি বাসিস না….

————“দেখ আশিক এর আগেও বলছি আর এখনো বলছি বন্ধুত্বে ভালোবাসা পছন্দ নয় আমার’!!আর তার থেকে বড় কথা আমার বিয়ে হয়ে গেছে…..

“এইবারের কথা শুনে আশিকের চোখ বেরিয়ে আসার উপক্রম!আশিক বসা থেকে উঠে দাঁড়িয়ে বললোঃ

———-“কি😳

———“হুম….

“এমন সময় ছুটে আসলো আমার বন্ধুদের পুরো হল্লা পাট্টি’!!সবাই চোখ বড় বড় তাকিয়ে বললোঃ

———“তুই বিয়ে কবে করলি,আর আমরা জানতে পারলাম না এখনও……

“তারপর ওদের সামনে গিয়ে বললামঃ

———“হুট করেই হয়ে গেছে তোদের সব বলছি আগে চল!আর আশিককে বল ওর ড্রামা শেষ হয়ে গেলে আমাদের সাথে আসতে….

“আফিয়ার কথা শুনে আশিক ও একটা দাঁত কেলানি দিয়ে বললোঃ

———-“হুম হয়ে গেছে তাড়াতাড়ি চল তোর বিয়ের গল্প শুনবো…

“ব্যস!আমি জানতাম আশিক এতক্ষণ যা করছিল সব নাটক ছিল!কারন এই নিয়ে বহুবার এমন করেছে ও তাই বিষয়টা নিয়ে ওতোটা মাথা ঘামালাম না!সবাই মিলে হাঁটতে শুরু করলাম ক্যান্টিন থেকে একটু দূরে থাকা ইয়া বড় মাঠের কাছে’!!ওইখানেই আমরা সবাই মিলে গাছের নিচে বসে আড্ডা দেই!!সবাই মিলে সেদিকে রওয়ানা দিলাম!আমরা ছয় বন্ধু!আমি,আশিক,আরিফ, হৃদয়,তিশা আর রুহি!আমরা ছয়জনই বেস্টফ্রেন্ড!

“সবাই হাসতে হাসতে আড্ডার আসরে চলে যাচ্ছি!

||

“এদিকে আশিক ভাবছে অন্যকিছু!আশিক সেই কলেজ লাইফ থেকে আফিয়াকে ভালোবাসে’!!বহুবার বলেও ছে কিন্তু আফিয়া গুরুত্ব দেয় নি’!!তার একটাই কথা বন্ধুত্বে ভালোবাসা Not Allow!তাই বার বার আশিক প্রপোজ করলেও শেষে গিয়ে বলে ফেলে সে ড্রামা করছে’!!কারন সে চায় না তাদের বন্ধুত্ব নষ্ট হোক’!!আসলে বাস্তবতাটা বড়ই কঠিন…..!!

“আশিকের ভাবনার মাঝখানে ওর মাথায় একটা চাটি মেরে বলে উঠলাম আমিঃ

————“কোন রাজ্যে হারিয়ে গেছিস তুই….

————“কোনো রাজ্যে হারাই নি তো আগে বল কিভাবে তোর বিয়ে হলো….

“আশিকের কথা শুনে সবাই খুব মনোযোগ নিয়ে তাকালো আমার দিকে’!!অপেক্ষা কখন শুনবে তাঁরা….

“আমি ছোট্ট একটা শ্বাস ফেলে বিয়ের আসর থেকে হয়ে যাওয়া সব ঘটনা বললাম ওদের!সবাই হা হয়ে গেছে আমার কথা শুনে!যেন কেউই বিশ্বাস করতে পারছে না সত্যি সত্যি আমার বিয়ে হয়ে গেছে’!!সবাইকে এইভাবে হা হয়ে তাকিয়ে থাকতে দেখে বললাম আমিঃ

———–“তোরা ওভাবে তাকিয়ে আছিস কেন??

“এমন সময় আরিফ বলে উঠলঃ

————“এ তোরা কেউ আমায় চিমটি মার,,আমাদের আফিয়া রানীর নাকি বিয়ে হয়ে গেছে’!!লাইক সিরিয়াসলি….

“আরিফের কথা শুনে হৃদয়ও বললোঃ

———-“ভাই তুই একা না আমি শকট…

“ওদের একেকজনের একেক কথা শুনে বিরক্ত হয়ে বলে উঠলাম আমিঃ

———-“এই তোদের বক বক বন্ধ করবি না আমি চলে যাবো….

“সাথে সাথে সবাই থেমে বললোঃ

———-“না দোস্ত! বিশ্বাস কর আমরা সত্যি অবাক হয়ে গেছি তোর কথা শুনে কেমনে কি সম্ভব তুই আর বিয়ে….

————“অসম্ভব হওয়ার কি আছে,আমি খারাপ নাকি…

————-“দোস্ত আমার খুব কষ্ট হচ্ছে (তিশা)

ওর কথা শুনে আমি অবাক হয়ে বললামঃ

————-“তোর আবার কবে থেকে আমার জন্য কষ্ট হতে শুরু করল….

————-“দোস্ত তোর জন্য না তোর জামাইর জন্য না জানি বেচারার কতো কষ্ট হবে তোর সাথে থাকতে…..

“ওর কথা শুনে সবাই উচ্চস্বরে হেঁসে দিল’!!আর আমি হাবলার মতো শুধু সবাইর দিকে তাকিয়ে রইলাম!

“সারাদিন বন্ধুদের সাথে হাসি ঠাট্টা আর মজাই কেটে গেল’!!

__________________________

“বিকেল_৫ঃ০০টা…….

“আয়াফ দাঁড়িয়ে আছে সেই রোডের কিনারায়’!!যেখানে প্রথম আয়াফ সেই মেয়েটাকে দেখেছিল’!!কিছুতেই আয়াফ সেই মেয়েটাকে ভুলতে পারছে না’!!বার বার ভাবছে ভুলে যাবে কিন্তু চোখ বন্ধ করলেই সেই মেয়েটার চোখদুটো ভেসে আসছে’!!খুব জোরে নিশ্বাস ফেলে দু-চোখ বন্ধ করে নিল আয়াফ’!!আবারো মেয়েটার দৌড়ে তার দিকে আসার প্রতিচ্ছবি ভাসছে’!!সত্যি সত্যি পাগল হয়ে যাচ্ছে আয়াফ’!!সবকিছু এলেমেলো লাগছে খুব’!!হর্ঠাৎই এমন সময় এক ঠান্ডা শীতল মেশানো বাতাস বয়ে এসে লাগলো আয়াফের গায়ে’!!চোখ বন্ধ করে অনুভব করছে আয়াফ বাতাসটাকে’!!চারপাশটা কেবল অন্ধকারে ডুব দিবে এমন একটা মুহূর্ত….

“এমন সময় কেউ আয়াফের সামনে এসে বললোঃ

———–“আপনি কি চোখ বন্ধ করে ধ্যান করছেন নাকি….

“আচমকা কারো মুখে এমন কথা শুনে চোখ খুলে তাকালো আয়াফ’!!সামনে আফিয়াকে দেখে মেজাজ বিগড়ে গেল তার’!!পরক্ষণেই সে গম্ভীর আওয়াজে বলে উঠলঃ

————“ধ্যান করতে যাবো কেন এমনি দাঁড়িয়ে ছিলাম…..

————-“তা তো দেখতেই পারছি….

————-“কি দেখতে পারছো তুমি….

————-“এই তো আপনি রাস্তার লামপোস্টের মতো দাঁড়িয়ে আছেন…

“আফিয়ার কথা শুনে আয়াফ রেগে বলে উঠলঃ

———-“কি আমি ল্যামপোস্ট….

“হাসলাম আমি’!!তারপর বলে উঠলামঃ

———–“ওসব বাদ দিন আগে বলুন তো এই সময় এখানে দাঁড়িয়ে কি করছেন আপনি, কারো জন্য অপেক্ষা করছেন বুঝি….

———–“অপেক্ষা হ্যাঁ ইয়ে না মানে…

————“কি ইয়ে না মানে মানে করছেন…

———–“না কিছু না, তুমি আগে বলো তুমি এখানে কি করছো….

————“আমি তেমন কিছু নয় আরিশাকে নিয়ে হাঁটতে বের হয়েছিলাম’!!

————“ওহ তাহলে তুমি একা কেন আরিশা কোথায়….

————“আরিশা ওদিকে আইসক্রিম কিনতে গেছে,আমিও গেছিলাম হর্ঠাৎ আপনাকে এইভাবে ল্যামপোস্টের মতো দাঁড়িয়ে থাকতে দেখে এদিকে চলে আসলাম আর কি 😁

————“হু কি,কি বললে তুমি😳

———–“কিছু না! 😁

“বলেই আমি দৌড়ে পালালাম…..

“এদিকে আয়াফ তাকিয়ে আছে আফিয়ার দিকে’!!কিছু একটা ফিল হচ্ছে তার’!!কিন্তু কি, বা কেন হচ্ছে বুঝতে পারছে না সে…..

__________________________________________

_______________________

“রাত_১০ঃ০০টা……

“ডিনার সেরে বিছানায় ঘুমিয়ে আছে আয়াফ’!!আর সোফায় বসে আছি আমি’!!হর্ঠাৎই সকালের সেই বক্সতার কথা মনে পরলো আমার’!চুপিচুপি পা টিপে সোফা থেকে উঠে দাঁড়ালাম আমি’!!ধীরে ধীরে এগোতে লাগলাম আলমারির দিকে’!!এমন সময় আয়াফ পিছন থেকে বলে উঠলঃ

———-“চোরের মতো ওদিকে কোথায় যাচ্ছো তুমি….

“আচমকা আয়াফের মুখে এমন কথা শুনে শুকনো ঢোক গিললাম আমি’!!তারপর সোজা হয়ে দাঁড়িয়ে আয়াফের দিকে তাকিয়ে বলে উঠলাম আমিঃ

————“চোরের মতো যেতে যাবো কেন?এমনি হাঁটছিলাম….

————–“তুমি যে চোরের মতো কিছু একটা দেখতে যাচ্ছিলে সেটা আমি ভালোই বুঝতে পারছি…..

“এই রে বুঝে গেলো নাকি আমি ওই বক্সটা খুলে দেখতে চাইছি…!!আমি আমতা আমতা করে বললামঃ

———–“দেখুন একদম ভুলভাল মন্তব্য করবেন না,আর আপনি এখনো ঘুমোন নি কেন…..

————‘না ঘুমাই নি! তোমার সাথে ঝগড়া না করলে ঘুম আসবে না তাই….

————-“দেখুন একদম বক বক করবেন না,,আমি ঘুমাবো বলেই হাঁটতে হাঁটতে আয়াফের পাশে কাঁথা মুড়ি দিয়ে ঘুমিয়ে পরলাম আমি’!!আমাদের মাঝখানে আছে কোলবালিশ,অবশ্য এটা আমরাই আইডিয়া ছিল!

“কিছুক্ষণ পর….

আস্তে আস্তে কাঁথা সরিয়ে আয়াফের দিকে তাকালাম আমি’!!উদ্দেশ্য ঘুমিয়ে পরছে কিনা তা দেখার’!!কাঁথা সরাতেই দেখলাম আয়াফ তাকিয়ে আছে আমার দিকে’!!তা দেখেই সাথে সাথে আবার কাঁথা মুড়ি দিয়ে চোখ বন্ধ করে নিলাম আমি’!!

||

“এদিকে আয়াফ আফিয়ার কান্ড দেখে দমকের স্বরে বললোঃ

———–“একদম চালাকি করার চেষ্টা করবে না ঘুমাও বলছি….

“আয়াফের দমকে কেঁপে উঠলাম আমি’!!তারপর আর কি অবাধ্য মন নিয়েই ঘুমিয়ে পরলাম আমি’!!!

___________________

“সূর্যের ফুড়ফুড়ে আলোতে ঘুম ভাঙল আমার’!!হুট করেই মনে হলো কাউকে জড়িয়ে ধরে আছি আমি’!!মিটমিট করে চোখ খুলে তাকালাম আমি’!!সামনে আয়াফের ফেস দেখেই চমকে উঠলাম’!!সাথে সাথে চটজলদি আয়াফকে ছেড়ে উঠে বসলাম আমি’!!ভাগ্যিস আমার আগে ঘুম ভেঙে ছিল না হলে দেখলে আমায় কি ভাবতো আয়াফ ছিঃ ছিঃ……

||

“ডাইনিং টেবিলে বসে সবাই ব্রেকফাস্ট করছিলাম’!!এমন সময় শশুর আব্বায় আয়াফকে বলে উঠলেনঃ

———–“আজকে তুমি আফিয়াকে নিয়ে ওদের বাড়ি থেকে ঘুরে এসো আয়াফ….

“আয়াফ কিছুটা অবাক হয়ে বললোঃ

———–“কেন?

———–“কেন মানে কি!বিয়ের রীতি অনুযায়ী তোমায় একবার বউমাকে নিয়ে তাদের বাড়িতে যেতে হবে!এটা নিয়ে তোমার কোনো কথা শুনতে চাচ্ছি না আমি এমনিতেই তুমি বউভাতের অনুষ্ঠান করতে বারন করেছো আমি কিছু বলেনি,,তাই তার বিনিময়ে তোমায় আমার কথা রাখতে হবে আয়াফ!

“আয়াফ কিছুক্ষন ভেবে বললোঃ

————-“ঠিক আছে!আমি অফিস থেকে ফিরে বিকেলে যাবো তোমাদের বউমাকে নিয়ে তাকে তৈরি হয়ে থাকতে বলো….

“বলেই আয়াফ চলে গেল……

“এমন সময় শাশুড়ী মা এসে বললোঃ

———–“বউ মা তুমিও তাহলে তাড়াতাড়ি তৈরি হয়ে থেকো!

“আমিও মাথা নাঁড়িয়ে হা সমর্থন দিলাম!তারপর চলে আসলাম নিজের রুমে’!!রুমে ঢুকেই ব্যাগটা নামাতে লাগলাম আমি আলমারির উপর থেকে এমন সময়……
!
!
!
!
!
!
!
!
!
!
!
!
#চলবে…………

~ ভুল-ত্রুটি ক্ষমার সাপেক্ষ!!🖤🥀
আর গল্প কেমন লাগছে অবশ্যই কমেন্ট করে জানাবে!!🥰🥀

#TanjiL_Mim♥️

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে