নেশালো সে পর্ব-০৩

0
1765

#নেশালো_সে💖
#লেখনীতে:#তানজিল_মীম💖

০৩.

“ভেজালো শরীর নিয়ে আয়াফকে জড়িয়ে ধরে দাঁড়িয়ে আছি আমি’!!ভয়ে হাত পা কাঁপছে’!!এই জন্যই মা বলেছিল রাত জেগে এত horror movie না দেখতে’!!এখন বেশ হয়েছে বার বার খালি মনে ওই মুভির শয়তানটা পিছন থেকে আমার গলাটা চেপে ধরবে’!!

“কিছুক্ষণ আগে ওয়াশরুমে গোসল করছিলাম’!!কতোক্ষন আগে আরিশার সাথে বসে বসে Horror movie দেখছিলাম’!!এখন ওয়াশরুমে বসে চোখ বন্ধ করলেই সেই মুভির ভয়ানক দৃশ্য ভেসে আসছে সামনে’!!এমন সময় আচমকা ঝর্না অফ হয়ে গেল’!!আমি তো ভয়ে শেষ হর্ঠাৎই কোথা থেকে একটা টিকটিকি এসে পরলো গায়ে’!!ব্যস হয়ে গেছে যতটুকু সাহস ছিল তাও শেষ’!!এমনিতে টিকটিকি আরশোলা ভয় পাই না আমি কিন্তু এই মুহুর্তে’!!ভুত…

“বলেই ভেজালো অবস্থায় ওয়াশরুম থেকে বেরিয়ে আসলাম আমি’!!ছাইপাশ কিছু না ভেবেই আয়াফকে জড়িয়ে ধরলাম আমি’!!হাত পা এখনো কাঁপছে আমার’!!

||

“এদিকে আয়াফ এখনো শকট যেন কি হচ্ছে সব তার মাথার উপর দিয়ে যাচ্ছে’!!আফিয়া আয়াফকে এতটাই শক্ত করে ধরে আছে মনে হয় ছেড়ে দিলেই তার প্রানটা চলে যাবে’!!আয়াফ বুঝতে পেরেছে কিছু একটা দেখে প্রচন্ড ভয় পেয়ে আফিয়া এমনটা করেছে’!!হাত পাও কাঁপছে তার’!!আয়াফ আসতে আসতে আফিয়ার মাথাটা ধরে বললোঃ

———–“কি হয়েছে তুমি এত কাঁপছো কেন??

“আয়াফের কথা শুনে আফিয়া কাঁপা কাঁপা গলায় বলে উঠলঃ

————“বাথরুমে ভূত আছে…..

“আফিয়ার এমন আহামরি কথা শুনে আয়াফ কি বলবে বুঝতে পারছে না’!!আয়াফ অবাক হয়ে বললোঃ

————“কি?তোমার মাথা খারাপ হয়ে গেছে নাকি বাথরুম ভূত আসবে কোথা থেকে….

————-“আমি সত্যি বলছি হুট বাথরুমের ঝর্না অফ হয়ে গেছে….

“আফিয়ার এবারের কথা শুনে আয়াফ হাসতে হাসতে শেষ’!!আয়াফের হাসি দেখে আফিয়া বলে উঠলঃ

————–“এত হাসার কি আছে হুহ😒

“আফিয়ার কথা শুনে আরো উচ্চ স্বরে হাসলো আয়াফ’!!তারপর যথাসম্ভব নিজের হাসিকে কন্ট্রোল করে বলে উঠল সেঃ

————-“পাগল মেয়ে হয়তো পানি শেষ হয়ে গেছে…..

“আয়াফের কথা শুনে মাথাটা উঁচু করে তার দিকে তাকিয়ে বলে উঠলাম আমিঃ

————-“মানে…..

————-“বোকা মেয়ে হয়তো টাংকিতে পানি শেষ তাই ঝর্না অফ হয়ে গেছে’!!এই সামান্য বিষয়টা নিয়ে এইভাবে কেউ ভয় পায়….

————“আসলে বিষয়টা তেমন না,কিছুক্ষণ আগে আরিশার সাথে horror movie দেখছিলাম,,এখন ওই চোখ বন্ধ করলেই ওই মুভির ভয়ানক দৃশ্য ভেসে আসছে তারপর হর্ঠাৎ পানি অফ হয়ে গেল এতে আরো ভয় পাই আমি!তারওপর আবার কোথা থেকে একটা টিকটিকি এসে পরলো হাতে তাই এতোটা ভয়ে ঘাবড়ে গেছি আমি…..

” আফিয়ার কথা শুনে আয়াফের কি রিয়েকশন দেওয়া উচিত তা ভুলে গেছে সে’!!আয়াফ হাল্কা অসস্তি বোধ করলে…

“ভেজালো শাড়ি পড়ে আছে আফিয়া’!!পুরো শাড়ি ভিজে লেপ্টে আছে শরীরের সাথে,,চুলগুলো থেকে টপটপ করে পানি পরছে খুব,, তার সাথে ঠান্ডায় ঠোঁটগুলো কাঁপছে আফিয়ার’!!হর্ঠাৎ আয়াফের চোখ গেল আফিয়ার সেই ভেজালো চোখের দিকে’!!এক ঘোর লাগানো মুহূর্তে চলে গেছে সে’!!দুজনেই তাকিয়ে আছে দুজনের দিকে’!!আচমকাই নিজের ঘোর লাগানো মুহূর্ত থেকে বেরিয়ে আসলো আয়াফ’!!চোখ নামিয়ে নিয়ে আফিয়াকে বলে উঠল সেঃ

———-“আর কতোক্ষন ধরে থাকবে আমায়,তোমার সাথে সাথে আমিও তো ভিজে যাচ্ছি…..

||

“এতক্ষণ পর আয়াফের মুখে এমন কথা শুনে লজ্জায় মাথা কাটা যাচ্ছে আমার’!!চটজলদি তাকে ছেড়ে দিয়ে বলে উঠলাম আমিঃ

———–“সরি সরি……

“বলেই আবারো ওয়াশরুমের ভিতর ঢুকে পরলাম আমি’!!

.

“আফিয়ার মুখে “সরি সরি” শুনে আবারো সেই মেয়েটার কথা মনে পরে গেল আয়াফের’!!কিছুতেই সেই মেয়েটার চোখদুটোকে ভুলতে পারছে আয়াফ’!!কিছুক্ষনের জন্য হলেও আয়াফ কিছু একটা ভাবলো’!!চোখ দু’টির কি মিল আছে…..

“এমন সময় ডাক পরলো আয়াফের’!আয়াফ তার ভাবনার জগৎ থেকে বেরিয়ে আসলো’!!এবং যা ভাবছিল পরক্ষণেই মাথা থেকে সরিয়ে ফেললো সে’!!

_______________________________

“মাঝখানে কাটলো দুদিন……

“সূর্যের প্রবল তাপে ঘুম ভাঙল আমার’!!পাশ ফিরে আয়াফকে দেখে হাল্কা চোখ আঁটকে গেল আমার’!!সূর্যের আলোকিত তাপ এসে পরছে তার মুখে’!!সূর্যের তাপে চকচক করছে তার মুখ,কপালের সামনে অল্প কিছু চুল লেপ্টে আছে!ইচ্ছে করছে হাত দিয়ে তার কপালের চুলগুলোকে একবার ছুঁয়ে দেই’!!পরক্ষণেই আবার ভাবলাম না যদি উঠে যায় তখন…..

“এক অপূর্ণ ইচ্ছে নিয়ে বিছানা থেকে উঠে বসলাম আমি’!!তারপর মিটমিট করে হেলেদুলে চলে গেলাম ওয়াশরুমে’!!

“ভাবছি আজকে থেকে ভার্সিটি যাবো’!!কালকেই শশুর মশাই আর শাশুড়ী মা বলেছেন আমায় ভার্সিটি যেতে’!!আমি তো বেশ অবাক ভেবেছিলাম ওনারা হয়তো আর পড়াশোনা করতে দিবে না আমায়’!!এসব ভাবতে ভাবতে ওয়াশরুম থেকে বেরিয়ে এসে টাওয়াল দিয়ে মুখ মুছতে মুছতে চলে আসলাম আলমারির কাছে’!!ভাবছি আজকে ভার্সিটিতে কি পড়ে যাবো’!!হর্ঠাৎই চোখ গেল আলমারিতে থাকা একটা ছোট্ট বাক্সের দিকে’!!কৌতুহলী বক্সটা হাতে নিলাম আমি’!!কিছুক্ষণ হাতে নিয়ে নাড়িয়ে চাড়িয়ে যেই না খুলতে যাবো এমন হুট করে আয়াফ বক্সটা ছো মেরে টান দিয়ে নিয়ে গেল”!!হুট করে এমন কিছু একটা হবে সেটা ভাবতেই পারি নি’!!

||

“এদিকে আয়াফ রেগে আফিয়াকে বলে উঠলঃ

———-“আমার পারসোনাল জিনিসে হাত দেওয়ার সাহস কি করে হলো তোমার….

———–“আসলে আমি….

———–“আসলে কি?একদম মুখে মুখে তর্ক করবে না!কি ভাবো তুমি নিজেকে,তুমি কি নিজেকে আমার বউ ভাবতে শুরু করেছো নাকি!একদম সেটা ভাবতে যেও না,খুব তাড়াতাড়ি আমি তোমায় ডিভোর্স দিয়ে দিবো….

“বলেই হন হন করে চলে গেলেন উনি!

“আর আমি চুপচাপ থ হয়ে দাঁড়িয়ে আছি’!!
“আয়াফের প্রথম কথাগুলো গায়ে না লাগলেও লাস্টের কথাটায় বুকের ভিতর কেমন করে উঠলো আমার’!!সামান্য একটা বক্স ধরার জন্য এতগুলো কথা শোনালো আমায়’!!মুহূর্তের মধ্যে মনটা খারাপ হয়ে গেল আমার’!!এখন তো জানতেই হবে ওই বক্সটার ভিতর কি আছে যার জন্য এতোটা রেগে গেল আয়াফ’!!একরাশ মন খারাপ নিয়ে ভার্সিটি যাওয়ার উদ্দেশ্যে তৈরি হতে লাগলাম আমি’!!

___________________________

“ডাইনিং টেবিলে বসে আছি আয়াফ বাদে আমরা সবাই’!!এমন সময় শাশুড়ী বলে উঠলেনঃ

————“আজকে তো তুমি ভার্সিটি যাবে তাই না বউমা!

“আমি হাল্কা হেঁসে বলে উঠলামঃ

————“জ্বী আম্মু….

————-“তুমি কোন ইয়ারে পড় যেন বলছিলে…..

————-“এই তো অর্নাস সেকেন্ড ইয়ারে…..

“শাশুড়ি মা হাল্কা হেঁসে বললোঃ

————“খুব ভালো!

“এমন সময় সিঁড়ি বেয়ে নিচে নামলো আয়াফ’!!পড়নে তার সাদা শার্ট,ব্লাক প্যান্ট,গলায় টাই,চুলগুলো সুন্দর করে সাজানো,আর হাতে কোট এক মিনিটের জন্য হলেও তাঁকে দেখে চোখ আঁটকে গেল আমার’!!কিছুক্ষণ তাকিয়ে থেকেই তাড়াতাড়ি চোখ নামিয়ে নিলাম আমি’!কিছুক্ষন আগেও যে অপমান করলো তার দিকে তাকিয়ে থাকার কথা প্রশ্নই আসে না’!!চুপচাপ বসে খাবার খেয়ে লাগলাম আমি’!!

“আয়াফ চুপটি করে এসে বসলো টেবিলে’!!তাকে দেখে আরিশা বলে উঠলঃ

———–“গুড মর্নিং ভাইয়া…

“আয়াফ মুচকি হেঁসে বললোঃ

———–“গুড মর্নিং….

“তারপর নেমে আসলো টেবিল জুড়ে নীরবতা!শুধু টুকটাক চামচের শব্দ আসলো’!!কিছুক্ষণ পর,নীরনতার বাঁধ ভেঙে বলে উঠলাম আমিঃ

———–“আমি তাহলে এখন যাই আম্মু…..

“আফিয়ার কথা শুনে একটা বার তাকালো আয়াফ আফিয়ার দিকে’!!তারপর আবার তার খাওয়াতে মনোযোগ দিলো’!!আমার কথা শুনে শশুর মশাই বলে উঠলেনঃ

———–“তুমি একা কেন যাবে মা,আয়াফ তোমায় পৌঁছে দেবে….

“শশুর মশাইর কথা শুনে আমি অবাক হয়ে বললামঃ

————“না বাবা তার দরকার নেই আমি একাই চলে যেতে পারবো!

————“তা কি করে হয় বলেই আয়াফের দিকে তাকিয়ে আব্বু বলে উঠলেনঃ

———–“আয়াফ তুমি অফিস যাওয়ার পথে ওকে ভার্সিটি নামিয়ে দিয়ে চলে যেও…..

“আয়াফ তেমন কোনো রিমেক দিলো না’!!চুপচাপ তার বাকি খাবারগুলো খেতে লাগলো’!!

||

“এদিকে আমি পরেছি বিপদে,কি করবো বুঝতে পারছি না যাবো কি যাবো না!ওই করলার জুসের সাথে যেতে মোটেও ইচ্ছে করছে না!কিন্তু এঁরা তো আমায় একা যেতেই দিবে না,ধুর বিরক্ত লাগছে এখন….

“বেশকিছুক্ষন পর…….

“আয়াফ তার খাওয়া শেষ করে উঠে দাঁড়ালো’!!তারপর মুখ মুছে বললেনঃ

———-“এখন তাহলে আমি যাচ্ছি,,আর তোমাদের আদরের বউমাকে বলো আর নক না খেয়ে গাড়িতে গিয়ে বসতে এতো নক খেলে পরে তো আঙুলটাই থাকবে না মনে হয়….

||

“হুট করে আয়াফের মুখে এমন কথা শুনে চমকে উঠলাম আমি’!!তাড়াতাড়ি মুখ থেকে হাত সরিয়ে ফেললাম আমি’!!অবাক করার ভিষণ উনি তো আমার দিকে তাকান নি এতক্ষণ তাহলে বুঝলো কেমনে!!

“আয়াফের কথা শুনে হাসলো সবাই’!!আর আমি রাগে ফুসতে ফুঁসতে চলে গেলাম বাইরে…

————“কি শয়তানরে বাবা,,সবার সামনে এইভাবে বললো আমায়,,ঠিক আছে করলার জুস আমারও সময় আসবে আমিও দেখিয়ে দিবো আফিয়াকে খোঁচা মেরে কথা বললে কি হয় হুহ…

“বলতে বলতে গাড়ির পাশে দাঁড়িয়ে দাঁড়িয়ে আয়াফের গুষ্টিউদ্ধার করতে আছি আমি।।।

||

“এদিকে বাড়ির দরজার সামনে দাঁড়িয়ে আয়াফ হাসতে হাসতে বের হচ্ছে যেন আফিয়াকে রাগিয়ে তার খুব মজা লাগছে’!!পরক্ষণেই নিজেকে স্বাভাবিক করে চলে আসলো সে’!!গাড়ির সামনে আফিয়াকে দাঁড়িয়ে থাকতে দেখে একটু ক্ষিপ্ত আওয়াজে বলে উঠল সেঃ

———-“আমায় গালাগালি দেওয়া শেষ হলে এখন যাওয়া যাক…..

……

“আচমকা পিছন থেকে কারো মুখে এমন কথা শুনে চমকে উঠলাম আমি’!!পিছন ঘুরে আয়াফকে দেখে মেজাজটা আরো বিগড়ে গেল’!!কিন্তু এই মুহুর্তে কিছু বলতে ইচ্ছে করছে না আমার’!!তাই একটা রাগী মেজাজ নিয়েই বসে পরলাম গাড়িতে…..

“আফিয়ার কান্ডে হালকা হাসলো আয়াফ’!!তারপর সেও গিয়ে বসে পরলো পিছনে সিটে’!!দুজন বসতেই ড্রাইভার গাড়ি চালাতে শুরু করল’!!

“আচমকা গাড়ির চাকায় একটা ইট বাজতেই হাল্কা বেঁকে গেল’!!আচমকা এমনটা হওয়াতে আফিয়া তাল সামলাতে না পেরে পড়ে যায় আয়াফের উপর’!!আয়াফের মাথার সাথে নিজের মাথায় বারি খেলো আফিয়া’!!মুখ থেকে অটোমেটিক বেরিয়ে আসলো তারঃ

——–“আউচ….

“বিনিময়ে আয়াফ কিছু বললো না’!!কারন এতে কারোই কোনো দোষ ছিল না’!!তারপর দুজনেই দুজনকে সামলে নিলো আবার……

__________________________________________

_______________________

“বেশকিছুক্ষন পর আমাদের গাড়ি এসে থামলো ভার্সিটির সামনে’!!আমিও কিছু না বলেই গাড়ি থেকে নেমে গেলাম’!!আয়াফরাও আমাকে নামিয়ে দিয়ে চলে গেল’!!ভার্সিটি ঢুকতেই……..
!
!
!
!
!
!
!
!
!
!
!
!
#চলবে…………

~ ভুল-ত্রুটি ক্ষমার সাপেক্ষ!!🖤🥀
আর গল্প কেমন লাগছে অবশ্যই কমেন্ট করে জানাবে!!🥰🥀

#TanjiL_Mim♥️

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে