নেশালো সে পর্ব-০১

0
2967

#নেশালো_সে💖
#লেখনীতে:#তানজিল_মীম💖
০১.

“কবুল বলেই “আয়াফ” বিয়ের আসর ছেড়ে হন হন করে চলে গেল,,আর বিয়ে বাড়ির উপস্থিত সবাই অবাক চোখে তাকিয়ে আছে’!!তবে কনে বেসে বসে থাকা আমি মোটেও অবাক হচ্ছি না’!!কারন এটা হওয়ারই ছিল বড় বোনকে বিয়ে করতে এসে ছোট বোনকে বিয়ে করতে হবে তাও আবার যাকে দু-চোখে সহ্য করতে পারে না তাকে’!!আমার জায়গায় অন্য কেউ হলে হয়তো মেনে নিতো ”অায়াফ”!!নিশ্চুপ ভাবে বসে আছি আমি’!!যেন কি কি হলো সব মাথার উপর দিয়ে গেল’!!অলরেডি বিয়ে বাড়ির মানুষরা বিষয়টা নিয়ে কানাফুসা শুরু করে দিয়েছে’!!আমি আমার মতো একটা ডোন্ট কেয়ার ভাব নিয়ে বসে আছি’!!ইচ্ছে করছে একটু মোবাইল গুতাতে কিন্তু এই মুহুর্তে সেটা করা পসিবল নয়’!!কিছুক্ষণ পর,চোখে ঘুম ঘুম ভাব চলে আসলো আমার’!!ইচ্ছে করছে নিজের রুমে গিয়ে ঘুমিয়ে পড়ি’!!এমন সময় আম্মু মাথায় একটা চাটি মেরে বললোঃ

———“সোজা হয়ে বসতে পারছিস না তুই….

“আম্মুর কথা শুনে আমি নীবরকন্ঠে বলে উঠলামঃ

———“মা তোমরা একটু বেশি বারাবারি করলে না,কে বলেছিল ওই “করলার জুসের” সাথে আমার বিয়ে দিতে,আপু পালিয়ে গেছে ওনারাও চলে যেতো মাটার শেষ,মাঝখান দিয়ে আমার সাথে ওই “করলার জুসকে”ফাঁসিয়ে দেওয়ার কি খুব বেশি দরকার ছিল…..

“আমার কথা শুনে আম্মু চোখ বড় বড় করে বললোঃ

———-“কি বললি তুই….

———-“বুঝতে পারো নি নাকি…..,

———-“তুই কেনো বুঝতে পারছিস না তোর সাথে বিয়ে না দিলে আয়াফের মানসম্মান কোথায় যেত আর আমরাও বা লোকজনদের কি বলতাম এত আত্মীয় স্বজনদের মাঝখানে…..

———–“বিয়ে দিয়ে কি লাভটা হলো সেই তো করলার জুস আমায় না নিয়েই চলে গেলেন,এখন খুব ভালো লাগছে বুঝি….

“এমন সময় আয়াফের বাবা আসলো আমার সামনে তারপর বলে উঠল সেঃ

———“চলো মা তোমায় যে যেতে হবে এখন….

“হুট করে এমন কথা শুনে মুহূর্তের মধ্যে মন খারাপ আরো চারশো গুন বেড়ে গেল’!!এমনিতেই যখন থেকে শুনেছি আয়াফের সাথে বিয়ে হবে সেই থেকেই মন খারাপ খুব,এখন আবার…

“আমার ভাবনার মাঝে আব্বু এসে বললোঃ

———–“কি ভাবছো “আফিয়া”…..

“আমি একটু নিচু সরে বললামঃ

————“এমনটা করার কি খুব বেশি দরকার ছিল বাবা…..

“আমার কথা শুনে বাবা কিছু বললো না’!!আমার হাত ধরে বাহিরে নিয়ে যেতে লাগলো’!!আব্বুর এমন কাজে বুকের ভিতর ঝড় উঠলো আমার’!!আমার রুমটা, মা-বাবা, সবাইকে ছেড়ে এখন ওই করলার জুসের সাথে থাকতে হবে!! হায় রে ভাবতেই চোখ বেয়ে পানি পরছে খুব……

“একে একে সবাই আমাদের পিছন পিছন আসতে শুরু করলো’!!আমি আম্মুকে জড়িয়ে ধরে কেঁদে দিলাম’!!আম্মুও কাঁদলো…

“একপ্রকার জোরজবরদস্তি করে আমায় বসানো হলো গাড়িতে….

“গাড়িতে বসতেই গাড়ি চলতে শুরু করল তার আপন গতিতে….!!কি অদ্ভুত শশুড় বাড়ি যাচ্ছি অথচ পাশে যার থাকার কথা ছিল সে নেই’!!তবে সেটা ভেবে আমার তেমন কষ্ট হচ্ছে না….

||

“এদিকে আফিয়ার আব্বু আয়াফের আব্বুর হাত ধরে বললঃ

——–“যেটা হয়েছে সেটা হতো বদলাতে পারবো না বেয়াইমশাই,,আমাদের জন্যই এমনটা হলো সত্যি খুব দুঃখিত আমরা’!!(হাত জোর করে)

———-“এভাবে বলবেন না,,একটা কথা মনে রাখবেন আল্লাহ যা করে ভালোর জন্যই করে!হয়তো আয়াফের জন্য আফিয়াকেই বানানো হয়েছে তাই তো এমনটা হলো!ওটা নিয়ে ভাববেন না……

“আয়াফের আব্বুর কথা শুনে স্বস্তি পেলেন আব্বু’!!তারপর আবারো বলে উঠল আব্বুঃ

———-“আপনারা ওকে একটু গুছিয়ে নিজেদের মতো বানিয়ে দিবেন,,আমার মেয়েটা একটু দুষ্ট প্রকৃতির হলেও মনটা খুব ভালো,একটু গুছিয়ে নিয়েন…

———–“ওটা নিয়ে ভাববেন না বেয়াইমশাই,,সব ঠিক হয়ে যাবে….

“বলে বিদায় জানালো আয়াফের আব্বু!!

“একে একে সবাই চলে আসতে শুরু করলো’!!পুরো বিয়ে বাড়ির লোকজনই চলে যেতে লাগলো….ধীরে ধীরে পুরো পরিবেশ ঠান্ডা হতে শুরু করল…..

________________________________

|| ফ্লাসবেক ||🌸🌿

“সকাল থেকে বাড়িতে পুরো হৈ-হুল্লোড় পরে গেছে’!!সারা-বাড়ি ঘুরে ঘুরে উড়াধুরা লুঙ্গি ড্যান্স দিতে লাগলাম আমি’!!আপুর বিয়ে বলে কথা’!!নাচতে নাচতে আপুর রুমে ঢুকলাম আমি’!!আপুও ছিল চুপচাপ খুশি মনে বসে ছিল সে’!!আমি আপুকে জড়িয়ে ধরে বললামঃ

————-“উফ!আপু এত যে মজা লাগছে আমার কি বলবো তোমায়…৷

“আমার কথা শুনে আপু শান্ত গলায় বললোঃ

————-“এত খুশি হচ্ছিস কেন বলতো…..

————-“যাগ বাবা তুমি ভুলে গেলে নাকি আজকে তোমার বিয়ে একটু পর তুমি করলার জুসের বউ হবে….

———–“আচ্ছা ধর,সেই করলার জুসের সাথে যদি তোর বিয়ে হয়ে যায়…

“আপুর কথা শুনে চোখ আমার চড়ুই গাছ!!আমি আপুকে ছাড়িয়ে চোখ গরম বললামঃ

———–“হুম ওই করলার জুসকে বিয়ে করবো আমি!তোমার মাথা খারাপ হইছে ওইসব ভুলভাল কথা বলে মাথা খারাপ না করে চুপচাপ এই নেও মুড়ি খাও…….(হাতে মুড়ির বাটি এগিয়ে দিয়ে)

“বলেই নাচতে নাচতে চলে গেলাম আমি’!!

“সারাদিন সবকিছুই সুন্দরভাবে চলে গেল’!!চারিদিকে শোনা গেল জামাই এসেছে,জামাই এসেছে’!!আপুকে সাজিয়ে বসে রাখা হয়েছিল বিছানায়’!!জামাই এসেছে শুনেই আপুকে রেখে চলে গেলাম আমি’!!আমি তো মহা খুশি’!!নিচে নেমে দেখলাম সবাই আছে অথচ জামাই নেই’!!বিষয়টাতে সবাই বেশ অবাক হলো’!!আয়াফের আব্বুর কাছে জিজ্ঞেস করতে উনি বললেনঃ

———-“এক্ষুনি আসবে আয়াফ’!!

“বিষয়টাতে বেশ অবাক আমরা সবাই’!!বেশকিছুক্ষন পর……
আয়াফ চলে আসলো বিয়ের আসরে,,তার চুলগুলো ছিল অল্প সল্প এলেমেলো’!!সেগুলো ঠিক করতে করতে চলে আসলেন উনি’!!উনি সামনে আসতেই আমরা সবাই দাঁত কেলানি দিলাম…..

||

আয়াফকে বসানো হলো কাজীর সামনে’!!এর ভিতর কাজী সাহেব আপুকে আনতে বললো’!!আমিও খুশি হয়ে উপরে গেলাম আপুকে নিয়ে আসতে’!!গিয়ে দেখি আপু নেই’!!পুরো অবাক আমরা এতটুকু সময়ের মধ্যে গেল কই’!!পুরো বাড়ি খুঁজেও কোথাও পাওয়া গেল না তাকে’!!এরপর আব্বু আম্মু আসলো’!!আব্বু রীতিমতো ভেঙে পড়েছিল’!!কি করবে না করবে পুরো দিশা হারা হয়ে গেছে’!!আব্বু গিয়ে আয়াফের আব্বুকে ডেকে আনলো’!!তারপর তাকে সব বুঝিয়ে বললেন’!!আয়াফের আব্বু ছিল খুব ভালো একজন মানুষ’!!ওনার জায়গায় অন্য কেউ থাকলে নিশ্চয়ই বিষয়টা নিয়ে রাগারাগি করতো’!!

“সবাই চিন্তিত হয়ে গেল’!!কি করবে?হুট করেই আয়াফের আব্বু বলে উঠলেনঃ

———–“আদিবার জায়গায় আফিয়াকে আমাদের বাড়ির বউ করে নিয়ে যাবো কেমন হবে বেয়াইমশাই…….

“আমি তো রীতিমতো ওনার কথা শুনে অবাকের চরম সীমানায় পৌঁছে গেছি’!!কি বলছে উনি তার মানে তখন আপুর বলা কথাটাই সত্যি হয়ে যাবে নাকি…..

“আব্বুও আয়াফের কথা আর আমাদের কথা ভেবে শুরুতেই রাজি হয়ে গেলেন’!!তারপর আর কি আপুর জায়গায় আমায় নিয়ে যাওয়া হলো’!!বিষয়টা এত তাড়াতাড়ি হয়ে গেল যে আমায় কিছু বলতেই দিলো না’………

“আয়াফ আপুর জায়গায় আমায় দেখে কিছুতেই বিয়ে করতে রাজি হতে চাইছিল না’!!কিন্তু তার বাবা একপ্রকার জোর করেই তাকে দিয়ে কবুল বলিয়ে নিও’!!কবুল বলে আর এক মিনিটও দাঁড়ালো না আয়াজ হন হন করে বিয়ের আসর থেকে চলে গেল……

………..

———-“আমরা চলে এসেছি আসো ভাবি,,হর্ঠাৎ মেইলি কারো কন্ঠ শুনে আমি আমার ভাবনার জগৎ থেকে বেরিয়ে আসলাম’!!

__________________________________________

_______________________

“রাত_১০ঃ০০টা……

“একরাশ বিরক্ত মাখা মুখ নিয়ে ভাড়ি ভাড়ি গয়নাগাটি আর ভাড়ি লেহেঙ্গা পড়ে বসে আছি আমি’ সাজানো ফুলের বিছানায়’!!অসহ্য লাগছে খুব’!!একরাশ বিরক্ততা নিয়ে মাথায় থাকা ঘোমটা খুলে ফেললাম আমি’!!কিছুক্ষণ আগেই আয়াফের বোন আরিশা এত সাজিয়ে গুজিয়ে বসিয়ে রেখে গেছে’!!এমন সময় দরজার খোলার শব্দে নড়েচড়ে বসলাম আমি’!!আয়াফ চুপচাপ রুমে ঢুকে সোজা ওয়াশরুমে চলে গেল’!!যেন ভিতরে কেউ আছে ও দেখেই নি…..

“আমিও চুপচাপ বসে আছি বিছানায়…..!!কিছুক্ষণ পর আয়াফ বের হয়ে আলমারি থেকে বের করে একটা টিশার্ট পড়ে নিলো’!!তারপর বিছানায় এসে আমায় দেখে ভূত দেখার মতো চমকে গিয়ে বলে উঠল সেঃ

———–“তুমি এখানে কি করছো……..

“হে হালুয়া এতক্ষণ পর আয়াফের মুখে এমন কথা শুনে কি রিয়েকশন দিবো আমি ভুলে গেছি’!!হুট করেই মেজাজ বিগড়ে গেল আমার’!!একটু ক্ষিপ্ত মেজাজে বলে উঠলাম আমিঃ

————-“হে হালুয়া,এত তাড়াতাড়ি ভুলে গেলেন নাকি আমার সাথে আপনার বিয়ে হয়েছে…..

———–“বিয়ে হয়েছে তো কি হয়েছে, তুমি কি ভেবেছো বিয়ে হয়েছে তাই আমি তোমার সাথে সংসার করবো,আর তুমি আমার বিছানায় কি করছো….

“আয়াফের কথা শুনে রেগে আরো আগুন আমি’!!একি তো কতক্ষণ যাবৎ নিজের ঘুমকে কন্ট্রোল করে বসেছিলাম আমি,,আর বলে কিনা বিছানায় কি করছি’!!আমি রেগে বলে উঠলামঃ

————-“আপনি যদি ভেবে থাকেন ওই স্টার জলসার নাটকের মতো বিয়ে মানেন না বলে ওই সোফায় ঘুমাবো তাহলে ভুল ভাবছেন,আমি এই খাটেই ঘুমাবো,,আপনার ঘুমাতে ইচ্ছে করলে ঘুমান না ইচ্ছে করলে ওই বাথরুমে চলে যান….

“আমার কথা শুনে আয়াফ চেঁচিয়ে বলে উঠলঃ

————“তোমার সাহস তো কম না আমার রুমে বসে আমাকেই দমকাচ্ছো…..

————“সাহসের দেখছেন কি আমিও আফিয়া হুহ,,কোথায় ওনার মানসম্মান বাঁচালাম তার জন্য ধন্যবাদ জানাবে তা না উল্টো রাগারাগি করছে….

“আমার কথা শুনে আয়াফ রেগে চেঁচিয়ে বলে উঠলঃ

———–“মানসম্মান বাঁচিয়ে ছো মাই ফুট উল্টো আরো সমস্যায় ফাঁসিয়ে দিয়েছো….

————“কি ফাঁসিয়ে দিয়েছে মানে…..

————“আরে তোমার বোনকে পালিয়ে যেতে তো আমি নিজেই সাহায্য করেছি…..

“আয়াফের কথা শুনে চোখ বড় বড় হয়ে গেল আমার’!!আমি অবাক হয়ে চেঁচিয়ে বললামঃ

———–“কি,😳😳😳😳
!
!
!
!
!
!
!
!
!
!
!
!
#চলবে…………

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে