তোমাকে_চাই (Season 2) পার্ট_১

0
1147

তোমাকে_চাই (Season 2) পার্ট_১
#আরবি_আরভী
দেখতে দেখতে আমাদের রিলেশনের ৭ মাস হয়ে গেছিল।। এমনি একদিন রেহান ভাইয়ার সাথে আমার প্রচুর কথা কাটা কাটি হচ্ছে টপিক (আমাদের আগে ছেলে বাবু হবে নাকি মেয়ে বাবু হবে)।। রেহান ভাইয়া মেয়ে বাবু চান আর আমি ছেলে বাবু ,,, উনার মতে আমাকে নাকি দেখলেই বোঝা যায় যে আমার আগে মেয়ে বাবুই হবে ?এই নিয়ে আমাদের মধ্যে অনেক রাগারাগি হচ্ছে।। এক পর্যায় রেহান ভাইয়া প্রচুর রেগে আমাকে এক ধমক দিয়ে চুপ করিয়ে দিলেন। আমি আর কথা না বারিয়ে চুপটি করে তার পাশে বসে আছি,,,, কিছুক্ষণ পর উনি নিজে থেকেই বলে উঠলেন,,,,,
-আচ্ছা সময় হলেই দেখা যাবে মেয়ে হয়ে নাকি ছেলে আল্লাহ ভরসা,, কিন্তু এখন আমার বউটার কাছে আমার ছোট একটা আবদার আছে,,(রেহান ভাইয়া দুষ্টুমি করে আমাকে বউ ডাকে)?
আমি তার দিকে কিছুটা বিরক্তিকর দৃৃষ্টিতে তাকিয়ে,,,
-কি?
উনি দৌড়ে গিয়ে কোথা থেকে যেন একটা বল এনে দাঁতগুলো বের করে হেসে বললেন,,,
-এটা পরতো দেখি তোকে প্রেগন্যান্সির সময় কেমন দেখাবে,,?
-What!!কি এইটা ????(উনার দিকে হা করে তাকিয়ে থেকে)
-এটা একটা বল যেটা পড়ে এখন আপনে আপনার বেলি ফুলাবেন,,,, প্লিজ প্লিজ ??
-অসম্ভব,, আল্লহ না, আমি এটা পরতে পারব না ?
-প্লিজ শুধু একবার প্লিজ লহ্মী বউটা আমার প্লিজ??(আমার দিকে বিনয়ী দৃষ্টিতে তাকিয়ে)
আমি যত না করছি উনি তত জোর করছেন আমি উনার সাথে কথা বলে আর পারছিলাম না শেষ-মেষ তার প্রস্তাবে রাজি হতে বাধ্য হলাম,,,তারপর বলটা নিয়ে রেহান ভাইয়ার রুমের ওয়াশরুমে ডুকে পরলাম,,,বলটা নিজের বেলিতে দিয়ে আয়নাতে নিজেকে দেখে আমি নিজেই শিহরিত।। আমাকে ঠিক একটা গোল আলোর মত লাগছিল আয়নাটার দিকে তাকিয়ে ভাবতে লাগলাম (আল্লাহ রে এই অবস্থায় আমি কিভাবে উনার সামনে দাড়াবো) ? ওদিকে রেহান ভাইয়া অস্থির হয়ে পড়ছেন আমাকে দেখার জন্য,,,
-নিসাআআআআ অই নিসা কি হল এত্তখন লাগে নাকি ??
-হুম্ম আসছি তো,,,(কথাটা বলে নিজেকে কিছুতেই মানাতে পারছি না লজ্জাও করছে অনেক,,,, কিভাবে কি??)??
রেহান ভাইয়া তো রীতিমত চিল্লাচিল্লি শুরু করে দিয়েছেন তাই বাধ্য হয়ে ওয়াশরুম থেকে বেরিয়ে এসে উনার দিকে তাকাতেই উনি আমাকে দেখে খিল-খিলিয়ে হেসে খাটে গড়াগড়ি শুরু করলেন ?,,,,,আমি বলটা সরিয়ে এক ডজন বিরক্তি নিয়ে বললাম,,,
-কি হইছে ??? এইভাবে হাসাহাসি করার কি আছে???
উনি হেসেই চলছেন,, আমি আর দেরি না করে রুম থেকে চলে যাব বলে পাটা বাড়াতেই উনি পেছন থেকে হাসতে হাসতে বলে উঠলেন,,
-নিসা একটু দাড়া তোর একটা পিক তুলি ?
আমি আর কিছু না বলে একগাদা রাগ নিয়ে রুম থেকে চলে এলাম,,,
সন্ধ্যাবেলায় রেহান ভাইয়ার রুমে এসে পড়ছি আর রেহান ভাইয়াকে ডিসটার্ব করছি ( আমার তার কাছে পড়তে আসার তো এইটাই মূখ্য কারন??) উনি বারবার আমাকে পড়ায় মনোযোগী হওয়ার আদেশ দিচ্ছেন আর আমি বারবার তার আদেশ অমান্য করছি।। কিছুখন পর রেহান ভাইয়ার ফোনে কল এলো নাম্বারটা একটা মেয়ের নামে সেইভ করা,, যা দেখে তাৎক্ষণিক ভাবে আমার চোখগুলো কপালে উঠে গেছে ?,,,,,, উনি কলটা রিসিভ করতেই ওপাশ থেকে স্পষ্ট একটা মেয়ের কন্ঠ শোনা যাচ্ছে,,,,,,
-জান খেয়েছ ??
কথাটা শোনে আমার উপরে যেন আকাশটা ভেঙে পড়লো,,,,, আর উনি বিষয়টা একদম সাভাবিকভাবে নিয়ে উত্তর দিলেন,,
-হুম্ম তুমি খেয়েছ???
এইভাবে শুরু হল তাদের নানান বিষয়ে আলাপ রেহান ভাইয়া এমনভাবে মেয়েটার সাথে কথা বলছেন যেন তার পাশে কেউ নেই মেয়েটার প্রতিটা কথার উত্তর দিচ্ছেন উনি,, আমি যে তার পাশে বসে কাঁন্না করছি সে দিকেও তার কোন খেয়ালি নেই ??,,,,,চলবে

এখনই জয়েন করুন আমাদের গল্প পোকা ফেসবুক গ্রুপে।
আর নিজের লেখা গল্প- কবিতা -পোস্ট করে অথবা অন্যের লেখা পড়ে গঠনমূলক সমালোচনা করে প্রতি মাসে জিতে নিন নগদ টাকা এবং বই সামগ্রী উপহার।
শুধুমাত্র আপনার লেখা মানসম্মত গল্প/কবিতাগুলোই আমাদের ওয়েবসাইটে প্রকাশিত হবে। এবং সেই সাথে আপনাদের জন্য থাকছে আকর্ষণীয় পুরষ্কার।

গল্পপোকার এবারের আয়োজন
ধারাবাহিক গল্প প্রতিযোগিতা

◆লেখক ৬ জন পাবে ৫০০ টাকা করে মোট ৩০০০ টাকা
◆পাঠক ২ জন পাবে ৫০০ টাকা করে ১০০০ টাকা।

আমাদের গল্প পোকা ফেসবুক গ্রুপে জয়েন করার জন্য এই লিংকে ক্লিক করুন: https://www.facebook.com/groups/golpopoka/?ref=share

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here