জীবিত বিবাহিত

0
332

পৃথিবীর প্রতিটি স্ত্রীর কাছে দুনিয়ার সবচাইতে বোকা মানুষটা হচ্ছে তার স্বামী।পুরো পৃথিবী যেন বসে আছে তার স্বামীকে ঠকানোর জন্য।

ভাবটা এমন যে “তোমার জীবনে আমি না থাকলে কি যে হতো, তুমি যে কিভাবে চলতা? সবাই তোমাকে লুটেপুটে খেত”

সেটা আপনি যত বড় কম্পানির সি ই ও হন অথবা সরকারী আমলা হন, ব্যাপারটা অনেকটা একই রকম।

আর ছেলেরাও ভাব করে হুম কথা সত্য। আমার মা এর পরে তুমিইতো আমাকে দেখে শুনে রাখছো। ছেলেদের চোখে থাকে উদাস দৃষ্টি। কি যে হতো আমার।আমিতো ভেসেই যেতাম খড়কুটোর মত।

হুম কথাটা যেন সব সময় মনে থাকে।

তো আমার এক ভাই এর গল্প।

ভাই এর সাথে গেলাম মাছ বাজারে। তার খুব মাছ খাওয়ার শখ।

ভাই জোড়া ইলিশ কত?

স্যার আপনার জন্য একদাম ২৪০০ টাকা।

কি কও মিয়া এত দাম।

স্যার পদ্মার ইলিশ, নদীর ইলিশ। খাইলেই বুঝবেন। আর আপনিতো স্যার আমার পুরানো কাস্টমার। আপনার সাথে কি দামাদামি করুম।

তাও পুরানো কাস্টমারের সাথে অনেকক্ষণ দামাদামির পর। জোড়া ইলিশ কেনা গেলো ২০০০ টাকায়।

সেই জোড়া ইলিশ নিয়ে আমারা ঢুকেছি ভাইয়ের বাসায়।

ভাই আমাকে ফিসফিস করে বলছে একটু সাপোর্ট দিয়েন।

ভাইয়ের বউ বলছে; তুমি আজকেও মাছ কিনে নিয়ে আসছো? কত দাম নিয়েছে এই জোড়া ইলিশের? নিশ্চয় ঠকেছো।

না, বেশী না, দাম পরেছে ১০০০ টাকা।

আমি হতভম্ব। একটু হতবাক হয়ে চেয়ে আছি, এক ধাক্কায় ১০০০ টাকা কম।
উনার চোখের ভাষা, ভাই চেপে যা।

কি বললা এই ২ টা ইলিশ ১০০০ টাকা নিছে, এই ২ টার দাম বেশী হলে ৮০০ টাকা। আরে এখন ইলিশ পানির মত সস্তা। তুমি আজকেও ২০০ টাকা ঠকছ।

না পদ্মার ইলিশতো। উনার আত্মপক্ষ সমর্থন।

আরে রাখো, পদ্মার ইলিশ আমার চেনা আছে। এজন্যই তোমাকে বাজারে পাঠাই না। সবসময় ঠকো।

বেশ কিছুদিন পর আবার উনার বাসায়। আজকে কিনেছে শিং মাছ।

উনার বউ জিজ্ঞেস করছে। আবার মাছ কিনছ? কত নিলো?

আরে ডার্লিং, আজকে মাছওয়ালাতো আমাকে মাছ ফ্রি দিল।

কি দিল?

ফ্রি দিল। বলল স্যার আপনি সব সময় আমার কাছ থেকে মাছ নেন। আমার মেয়ের বিয়েতো। ভাবছিলাম আপনাকে দাওয়াত দিব। কিন্তু আপনি এত বড় মানুষ, আপনারাতো যাবেন না। তাই স্যার আপনার জন্য শিং মাছ ফ্রি।

হুম তোমাকে আগেই বলছিলাম না, এই মাছওয়ালা তোমার কাছ থেকে অনেক টাকার ব্যাবসা করছে। অনেকবার তোমাকে ঠকিয়েছে। তাই এখন অনুতপ্ত হয়ে তোমাকে কিছু টাকা ফেরত দিচ্ছে।

(মেয়েদের মন সহজ এবং সরল। বাইরের দিকটাই কঠিন।)

ভাই বলছে হুম। তাই মনে হয়।

শুন, এখন মাঝে মাঝে ওরে কিছু ফ্রি দিতে বইলো। তাহলে ব্যালেন্স হবে।

আলবৎ। প্রতিমাসে একবার বলব ফ্রি দিতে।

তখন আমার বউ আমার দিকে তাকাচ্ছে।

মিনসে ,তুমি তো বাজারও পারো না, তোমাকে কেউ কোনদিন কিছু ফ্রিও দেয় না। তোমাকে দিয়ে যে কি হবে?

আমার চোখে উদাস দৃষ্টি। কি যে হবে আমাকে দিয়ে??

#আমিনুলের_গল্প

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here