আন্টির সাথে ফেসবুকে পরিচয়, পরিচয় থেকে সুসম্পর্ক।

0
214

আন্টির সাথে ফেসবুকে পরিচয়, পরিচয় থেকে সুসম্পর্ক।
কিছুদিন আলাপচারিতার পর আন্টি অত্যন্ত বিনয়ের সাথে বললেন,
– অনিকেত তোমার যদি আপত্তি না থাকে তাহলে তোমাকে আমার মেয়ের জামাই বানাতে চাই।

আমি লাজ লজ্জার মাথা খেয়ে একটি “ফল ইন লাভ” ইমু সেন্ড করলাম। কুইক রিপ্লাইয়ে আন্টি তার মেয়ের ছবি পাঠালেন।

অসাধারণ রূপবতী মেয়ে, ধুলাবালির পৃথিবীতে এমন রূপসী মেয়ে সচরাচর দেখা যায় না। আমার ভাগ্য ভালো বলে পেতে যাচ্ছি। খেয়ে না খেয়ে সারাদিন ফেসবুক চালানো অবশেষে সফল হতে যাচ্ছে।

আন্টির মেয়ে সবে কলেজে উঠেছে, আন্ডার এইজ তাই ছ’মাস পর এইট্টিন প্লাস হলে আমাকে পারিবারিক ভাবে জামাই বানাবেন।

আন্টিকে আমি শাশুড়ীর আসনে স্থান দিলাম । সকাল বিকাল ফোন করে ব্লাড প্রেশার, ব্লাড সুগারের খোঁজ খবর নিলাম। মনে করে ঔষধ খাওয়ার তাগিদ দিলাম। অরিজিনাল শাশুড়িরাও তাদের জামাইদের কাছ থেকে এমন ভালোবাসা পায়না। সম্মান, শ্রদ্ধা, মর্যাদা জানাতে কোনো কার্পণ্য করিনি।

কিন্তু আন্টি আজ এটা কী বললেন ?
এতোদিন পরে এসে বলছেন, তার নাকি কোনো মেয়েই নাই! এ কেমন বিশ্বাসঘাতকতা?

শাশুড়ী হয়ে সম্মান নিবেন, শ্রাদ্ধা নিবেন কিন্তু মেয়ে দেবার সময় অস্বীকার করবেন, তা হতে পারেনা।

আন্টিকে কঠিন হুশিয়ারি দিয়ে বললাম,

– আমি আপনার মেয়েকেই বিয়ে করবো!
– সত্যি বলছি বাবা আমার কোনো মেয়ে নাই।
– তাহলে রিডিং টেবিলে বসা ঐ মেয়ের ছবিটা কার ?
– ওটা আমার মেয়ে না!
– তাহলে কার মেয়ে?
– কার মেয়ে জানিনা, আমি ফেসবুক থেকে নিয়ে দিয়েছি।
– আমি আপনার কথা বিশ্বাস করিনা।
– বিশ্বাস করো বাবা, সত্যি আমার কোনো মেয়ে নাই। আমার শুধু দুইটা ছেলে আছে।
– আমার সাথে এসব হাংকি পাংকি করবেন না।
– তোমার সাথে হাংকি পাংকি কেন করবো বাবা।
– অবশ্যই করেছেন, আপনি আমার ইমোশন নিয়ে খেলেছেন।
– আমার ভুল হয়ে গেছে বাবা, আমাকে মাফ করে দাও।
– মাফ করতে পারবো না, আপনার বয়স কতো বলেন?
– এসব কী সর্বনাশা কথা বলছো ?
– আরে আগে বলেন আপনার বয়স কতো ?
– আমার বয়স বিয়াল্লিশ!
– অসুবিধা নাই চলবে!
– চলবে মানে?
– ঐশ্বরিয়া রাই ফোর্টি প্লাসে মেয়ে জন্ম দিছে, চেষ্টা করলে আপনিও পারবেন!
– কী বলছো এসব?
– জী আন্টি, আঙ্কেলকে বুঝিয়ে বলুন?
– কী বলবো ?
– বলবেন, মেয়ের জামাই নাছোরবান্দা যেভাবেই হোক তাকে মেয়ে দিতে হবে।
– অনিকেত তুমি কী পাগল?
– আই এ্যাম ওকে আন্টি। আঙ্কেলের সাথে কথা বলে চেষ্টা করেন। চেষ্টা করলে উপায় হয়।
– এমন নির্লজ্জ ছেলে আর দেখিনি।
– আন্টি প্রয়োজনে আমি আরো দুই যুগ অপেক্ষা করবো। আমার ধৈর্যের অভাব নাই আপনি চেষ্টা করেন!

(সত্য ঘটনা অবলম্বনে রচিত। এক আন্টি আমাকে মেয়ের জামাই বানাবে বলে আশ্বাস দিয়ে,অনেকদিন ঘুরিয়ে এখন বলছে তার নাকি কোনো মেয়েই নাই🙄!)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here