Crush যখন বর?Season_2Part_10/11/12

0
2861

Writer-Afnan Lara
Crush যখন বর?Season_2Part_10/11/12
বাবা-তনু শিশিরের মা আগামী মাসের ৫তারিখে engagement করবে বলসে,
তনু-যা খুশি করো,
তনু নিজের রুমে আসলো,,একটু একটু খুশি লাগতেছে,কারন আমি শিশিরকে ভালোবাসি আর তার সাথেই আমার বিয়ে হচ্ছে,,রাজি হচ্ছি না কেন??
শিশির-হ্যালো রুনা,আমার তো বিয়ে ঠিক হয়সে তনুর সাথে,,
রুনা-কিহ?আমি তোমাকে ছাড়া বাঁচবো না শিশির,,
শিশির-(আজ ওরে হাতেনাতে ধরবো)জানো আমার চাকরি টা শেষ,,এখন আপাতত মুদি দোকান নিয়ে বসবো আর তনুর বাবা সেটাতেই খুশি,
রুনা-ওও,তোমার চাকরি শেষ??সো স্যাড,,আচ্ছা আমাকে মম কল দিসে পরে কথা বলবো,
শিশির-(হুম,রুনাকে চিন্তে ভুল করি নাই,)থাক আপদ বিদায় হয়সে,,বিয়ে তো তনুকেই করবো,,হিহি,মুনার কথাই ঠিক,,ওরে সারাজীবন জ্বালাবো,,
মা-শিশির চল মার্কেটে
শিশির-কেন?
মা-আংটি কিনবো,,তনু ও যাবে আর মুনা
শিশির-?
শিশির আর তনু এক রিকসায় আর মা আর মুনা আরেক রিকসায়,,
শিশির হুদাই ফোন নিয়ে তনুকে দেখিয়ে কথা বলতে লাগলো
শিশির-হুম জান,বলো, আচ্ছা তোমার জন্য ও গিফট আনবো,,
তনু-?(শালা লুচু,বিয়ে কয়েকদিন পর এখনও পিরিত দেখাইতেছে)
শিশির-কিছু বললা?
তনু-উহু,
মার্কেটে♥♥
মা-তনু পছন্দ করো,,শিশির তুই ও,
তনু -বাহ
শিশির-বাহ
মা-হুম তাইলে এটা পছন্দ,, শিশির আর তনু তাকিয়ে আছে দুজন দুজনের দিকে,,
কর্মচারি-ম্যাম স্যার আপনাদের চয়েস অনেক সুন্দর,,
তনু নিলো রিংটা,,এবার শিশিরের টা চয়েস করার পালা,,
শিশির-ধুর একটাও সুন্দর নাই,,
তনুর চোখ পরলো পাশের দোকানের একটা রিংয়ের উপর তনু গিয়ে হাতে নিয়ে দেখলো,,শিশির খপ করে হাত থেকে নিয়ে নিলো,
শিশির-মা দেখো আমি চয়েস করসি,নাইস না?
মা-বাহ,অনেক সুন্দর,
তনু-?চয়েস করসি আমি,নাম নেয় উনি
রিকসায়♥
শিশির একটা কানের দুল পকেট থেকে বের করে তনুকে দেখালো,
তনু-ওয়াও,,আমার?
শিশির-পাগল নাকি তুমি?তোমার জন্য কেন হবে,আমার লাভ রুনার জন্য,
তনু-হুহ,,
বাসায় তনু চলো গেলো,
শিশির দাঁড়িয়ে দেখতেছে
মুনা-Sachi muchi hun tenu love karta????
শিশির-শয়তান মাইয়া যা এখান থেকে,
শিশির বাসায় চলে আসলো,,
শিমুল-তনু তোমার নাকি বিয়ে??
তনু-হুম
শিমুল-নিশ্চই শিশিরের সাথে
তনু-হুম
শিমুল-আর আমি??
(এবার আপনাদেরকে শিমুলের পরিচয় দিই,,শিমুল রাগী,,বেয়াদব,একটা ছেলে,ওর জিএফ এর অভাব নেই,,,রুনার সাথেও প্রেম করসিলো একবার,,তনু সব জানে,শুধু শিশিরের দেওয়া কষ্ট মুছার জন্য রিলেশন করসে,,তাও নামেই রিলেশন)
তনু-বলসিলাম,আব্বু যার সাথে বলবে তাকেই করবো,,তনু আচ্ছা ৫লাখ দেনমোহরে বিয়ে করবে,,তাহলে চলো পালায় যাই??
শিমুল-পালাবো না, আম্মু বকবে,,
তনু-(জানতাম) ঠিক আছে,
শিশির তনুকে মেসেজ দিলো,,
রসগোল্লায়ায়ায়ায়ায়ায়ায়ায়ায়া
তনু-এই একদম এই নামে ডাকবেন না
শিশির-ডাকবো,,দিন দিন তো হেভি স*** হয়ে যাচ্ছো
তনু-ছিঃ,আমি রুনা না,আমাকে এসব নামে ডাকবেন না একদম,
শিশির-শুনেন,আম্মা আপনার জন্য শাড়ী রাখছে,,কাল আমাদের বাসায় আসবেন, এসে খেয়ে যাওয়ার সময় শাড়ী টা নিয়ে যাইয়েন,,engagement -এ পরবেন,মা বলসে,
তনু-?আপনি না থাকলে আসবো
শিশির-আমি অফিস যাবো
তনু-তাহলে আসবো,
পরেরদিন ♥
মুনা-আরে তনু ভাবী,আসো আসো,,
তনু গিয়ে মুনার রুমে বসলো,
মুনা-মা বাথরুমে,আসবে,
তনু-ওহ,,
তনু বারান্দায় গেলো,,তারপর আসার সময় গ্রিলে তনুর ওড়না টা গেলো আটকিয়ে,
তনু-ইস,মানুষের জামাই,বি এফের সাথে ওড়না আটকে আর আমার জিনিস পত্রের সাথে,
তনু টানতে টানতে ছাড়াতে পারলো না ওড়না ছেড়ে দিয়ে দাঁড়িয়ে আছে,
শিশির-মুন!!
তনু-!!!এ্যাই এখানে কি করেন,তনু গায়ে হাত দিয়ে আরেক দিকে ফিরে গেলো,
শিশির-আমি আসলে মুনাকে ডাকতে আসছিলাম,তুমি কখন আসলা,আর এই অবস্থা কেন?
তনু-যান এখান থেকে,,
শিশির -বলো
তনু-ওড়না আটকে গেসে,
শিশির-হাহাহা,শিশির এসে ওড়না টা খুলে তনুর হাতে দিলো,
শিশির -এটা নয় যে ওড়না ছাড়া আগে দেখি নাই,,
তনু-মানে কি
শিশির-হাহাহা,
তনু-আপনি না অফিস থাকবেন?
শিশির-হুম,আম্মু বলসে আজ অফিস গেলে মাইর দিবে,,
তাই
তনু-ও,
মা-তনু এসেছিস,,আয় বস এখানে,আজ আসলে শিশিরের ফুফুরা আসবে তোকে দেখতে,,
তনু রাগী চোখে শিশিরের দিকে তাকালো,কারন শিশির তনুকে এই ব্যাপারে বলেনি,বললে তনু আরেকটু সাজ দিয়ে আসতে,আজ Normally এসেছে,
শিশির-(ইচ্ছে করে বলিনি,কারন তনুকে ন্যাচারালি সুন্দর লাগে,মেক আপ এ আমার কাছে ভালো লাগে না)?
ফুফুরা আসলো,,
ফুফু-আরে তনু??তনু শিশিরের বউ হবে??
মা-হুমম,আমার ছেলেকে যে বুঝবে সেই তার বউ হওয়ার যোগ্যতা রাখে,,
চলবে ♥
“এখনই জয়েন করুন আমাদের গল্প পোকা ডট কম ফেসবুক গ্রুপে।
আর নিজের লেখা গল্প- কবিতা -পোস্ট করে অথবা অন্যের লেখা পড়ে গঠনমূলক সমালোচনা করে প্রতি সাপ্তাহে জিতে নিন বই সামগ্রী উপহার।
আমাদের গল্প পোকা ডট কম ফেসবুক গ্রুপে জয়েন করার জন্য এখানে ক্লিক করুন



Writer-Afnan Lara
Crush যখন বর?
#Season_2
#Part_11
ফুফুরা কথা বলতেছে,,
মুনা আর তনু কথা বলতেছে,,
শিশির-কেউ কি আমাকে কফি বানিয়ে দিবে???নাকি না খেয়ে থাকব?
মুনা-আপু তুমি করে দাও না,আমার স্কুলে দেরি হয়ে যাচ্ছে,
তনু-আচ্ছা,,
তনু কফি বানিয়ে শিশিরের দরজায় নক করে খুললো
তনু-আস্তাগফেরুল্লাহ!
শিশির-কি হয়সে??
তনু-এই রুমে কি মানুষ থাকে,?আল্লাহ রুমের কি অবস্থা
শিশির-?আমার রুম তো সুন্দর
তনু-এটাকে সুন্দর বললে সুন্দররে কি বলবে??
তনু শিশিরের হাতে কফিটা দিলো,,
তনু-আমি যাই
শিশির-দাঁড়াও
তনু-কি?
শিশির-ধরো আমার এই কাজটা complete করো,,এটা তুমি পারবা
তনু-আমার আর কাজ নাই,পারুম না
শিশির-রুম থেকে কি করে বের হও আমিও দেখব
তনু ফাইল টা নিয়ে বসলো,,কলম মুখে দিয়ে দাঁত দিয়ে কামরাচ্ছে আর কাজ করতেছে,
মা-শিশির তোর কাছে কলম আছে?
তনু নিজের টা দেওয়া ধরলে শিশির খপ করে হাত থেকে নিয়ে নিলো,,আরেকটা কলম মাকে দিলো,
তনুর টা রেখে দিল,
তনু-এসব কি?
শিশির-কিছু না
তনু চলে যাওয়া ধরলো শিশির হাত ধরে ফেললো,
তনু-আবার কি?
শিশির তনুর হাতে shirt ধরিয়ে দিলো,,
শিশির-নাও এটা ধুয়ে দাও,,আমার shirt আমি ধুই,এখন থেকে তুমি ধুয়ে দিবা,
তনু-বউ হয়নাই এখনও
শিশির-হয়ে যাবা,যেটা বলসি করো,
তনু মুখ ভেঁংচি দিয়ে বাথরুমে গেলো,,গিয়ে এক চিৎকার দিলো,পা পিছলিয়ে পড়ে যাওয়া ধরলো শিশির এসে ধরে ফেললো,
শিশির-কি ভূত দেখলা?
তনু-ছিঃ কি নোংরা
শিশির-ও এই ব্যাপার?
তনু-না
শিশির-তাহলে?
তনু-Underwear?
শিশির তনুকে ছেড়ে দিলো,ঠাসসসসসসস!
তনু-আহ মাগো,যখন ছেড়েই দিবেন ধরেন কেন?
শিশির তাড়াতাড়ি করে বাথরুম থেকে underwear সরিয়ে ফেললো,,
তনু উঠে ওড়না পেঁচিয়ে shirt ধুয়ে নিলো,,
তনু-নেন ধরেন
শিশির-কি করবো?যাও ছাদে দিয়ে এসো,
তনু-?
তনু ছাদে গিয়ে shirt মেলে দিলো,
শিশির এসে আয়না দিয়ে তনুর মুখে লাইট মারতেছে,
তনু-উফ,আপনার আর কাজ নেই,
তনু চোখ হাত দিয়ে সরতেছে,
তনু-সরান,উফ,কিছু দেখতেছি না,,
তনু ছাদের শেষ পর্যন্ত চলে এসেছে,,
শিশির এটা খেয়াল করে এক দৌড় দিলো,তনু হাত ধরে টান দিয়ে নিজের কাছে নিয়ে এলো,,
তনু তাকিয়ে আছে শিশিরের দিকে,
শিশির-এভাবে দেখার কি আছে,I know I’m enough handsome ?
তনু-কচু!ডাকাত ছাড়া কিছু না,
শিশির-কি?আমি ডাকাত??
তনু-হ্যাঁ
শিশির-দাঁড়াও,
তনু এক দৌড়ে বাসায় আসলো,পিছন পিছন শিশির ও আসলো,,
তনু গিয়ে ফুফুদের সাথে বসে পরলো,
শিশির-পরে দেখে নিবো,
দুপুরে♥♥
সবাই খেতে বসেছে,,,
ফুফু-তা বিয়ের মার্কেট কবে হবে??
মা-Engagement শেষ হলেই পরেরদিন আমরা যাবো,,তনু শিশির তোরা কোন কালার ম্যাচিং করবি?
তনু-Deep red
শিশির-Deep red
দুজন দুজনের দিকে তাকিয়ে আছে,
মা-আজীবন দুজনের পছন্দ এক,,ঠিক আছে,Deep red এর লেহেঙ্গা আর শেরওয়ানি হবে,
খাওয়া শেষে♥
মা-তনু ধর এই শাড়ীটা engagement এর দিন পরবি,,
তনু-বাহ অনেক সুন্দর,
মা-এটা আমার মায়ের,,আমাকে দিসে, আমি তোকে দিলাম,
তনু-আচ্ছা,আন্টি আসি তাহলে,,আসসালামু আলাইকুম
মা-ওয়ালাইকুম আসসালাম
তনু দেখলো শিশির নিজের shirt এর হাতা উঠাইতেছে,
তনু সেই লেভেলের speed এ দৌড় মারলো বাসার দিকে,
শিশির-হাহাহা বোকা মেয়ে,আমি তো পানির টাংকি পরিষ্কার করব তাই হাতা উঠাইসি?
৫তারিখ♥♥
মা-এ্যাই শিশির তুই নাকি তনুকে সাজানের জন্য পার্লারের লোকদের কল দেস নাই??
শিশির-হুম
মা-কেন?
শিশির-তনুকে মেক আপ ছাড়া সুন্দর লাগে
মা-এটা নরমাল দিন না,এই দিনে সাজা লাগে,
শিশির-মেইন husband মানা করে দিসে,সাজবে না,বলে দিও হালকা lipstick, দিতে,,আর একটা টিপ
মা-আর কাজল?
শিশির-তনু কাজল লাইক করে না,
মা-এই ছেলেকে নিয়ে কি করবো?ওরা কি ভাববে?
শিশির-কিছু ভাববে না..
সবাই Party center এ আসলো,,
শিশিরের আন্দাজ মতন তনু সেই সাজটাই দিল,হালকা lipstick দিয়েছে,,কপালে টিপ
মা-আল্লাহ দুজনকে দুজনের জন্য বানিয়েছে,,♥
ফুফু-দুজনের মধ্যে Bonding টা বেশ ভালো♥
মুনা-দুজন দুজনকেই লাভ করে শুধু বলতে পারে না,,♥
তিথিকে হালকা সাজে শিশিরের কাছে অপূর্ব লাগতেছে,শিশির তখন থেকে হা করে তাকিয়ে আছে,,
Golden কালারের শাড়ী,খোলা চুল,,হাতে চুড়ি,,হালকা lipstick,,কপালে টিপ♥
তনু তাকালো শিশিরের দিকে,
শিশির তনুকে দেখে আরেক দিকে ফিরে গেলো,
শিশির ও কম না,ওকেও অনেক সুন্দর লাগছে,,শিশির ও golden শেরওয়ানি পরেছে,,
চলবে♥
“এখনই জয়েন করুন আমাদের গল্প পোকা ডট কম ফেসবুক গ্রুপে।
আর নিজের লেখা গল্প- কবিতা -পোস্ট করে অথবা অন্যের লেখা পড়ে গঠনমূলক সমালোচনা করে প্রতি সাপ্তাহে জিতে নিন বই সামগ্রী উপহার।
আমাদের গল্প পোকা ডট কম ফেসবুক গ্রুপে জয়েন করার জন্য এখানে ক্লিক করুন



Writer-Afnan Lara
Crush যখন বর?
#Season_2
#Part_12
মা-শিশির তনুর পাশে এসে দাঁড়া
শিশির এসে দাঁড়ালো,
শিশির আংটি নিয়ে তনুর হাত ধরে পরিয়ে দিলো,,
তারপর তনু ও শিশিরকে আংটি পরিয়ে দিলো,,
তনু সবার সাথে কথা বলতেছে,
শিশির-তনু এদিকে আসো
তনু আসলো,
শিশির তনুর কোমড়ে হাত দিয়ে টেনে ছবি তুললো,তনু তো অবাক হয়ে হা করে তাকিয়ে আছে,,
শিশির-এভাবে তাকানোর কি আছে??আমার frder দেখাতে হবে না আজ আমার engagement হয়সে,কার সাথে হয়সে,,অনেক frdইতো আসে নাই,,
শিশির সবার সাথে কথা বলতেছে,,
হঠাৎ খেয়াল করলো তনু মুখ কালো করে দাঁড়িয়ে আছে আর কাকে যেন খুঁজতেছে,,
শিশির তনুর কাছে গেলো,,কি হয়সে??
তনু-আম্মুকে পাইতেছি না,
শিশির-কেন?তোমার আম্মুকে তো দেখলাম বাইরে খাবারের রুমের দিকে গেলো,
তনু-মুনা?
শিশির-কি হয়সে??
তনু-আমার,,,ব্লাউজের ফিতা খুলে গেসে
শিশির-ও,শিশির তনুর হাত ধরে একটা রুমে নিয়ে গেলো,,
তনুকে আরেকদিকে ফিরিয়ে ফিতা লাগাতে গিয়ে দেখলো পিঠের মাঝ বরাবর একটা তিল,,
শিশির-বাহ জামাইর হাতে মাইর খাবা
তনু-মানে?
শিশির-পিঠের মাঝখানে তিল,হাহাহা,
শিশির ফিতা লাগিয়ে দিলো,,হুম যান লাগিয়ে দিসি,
সবাই খেতে বসলো,,
মা-তনু দই খাও ধরো
তনু-আমি?
শিশির-তনু দই খায় না,
মা-ও, তাইলে থাক,,
তনু কাল সকালে আমরা মার্কেট যাবো,রেডি হয়ে থেকো,তোমাকে নিয়ে যাবো,
তনু-ঠিক আছে,
সবাই চলে যাওয়া ধরলো সাথে তনু ও,
শিশির তনুর হাত ধরে ফেললো,,দাঁড়িয়ে আছে আরেকদিকে ফিরে,
তনু-এই যে আমার হাত ছাড়ুন বাসায় যাবো না??
শিশির-এই তুমি কি মেহমান??তুমি বউ,জামাইর সাথে বাসায় যাবা,চুপচাপ দাঁড়িয়ে থাকো,
তনুর মা-কিরে তনু আয়, যাবি না?
তনু-আম্মু
শিশির-মা ওকে আরেকটু থাকতে বলসে
তনুর মা-ওহ ঠিক আছে,শিশির বাসায় দিয়ে যাইও
শিশির-ওকে,
তনু-মিথ্যুক!
শিশির-তোমার জামাই
সন্ধ্যায়♥♥
মা-শিশির তনুকে দিয়ে আয়,সন্ধা হয়ে গেসে,
শিশির আর তনু হাঁটতেছে,হঠাৎ শিশির খপ করে তনুর হাত ধরলো,,
তনু-আবার কি?
শিশির-রাস্তা দিয়ে হাঁটার সময় বাচ্চাদের হাত ধরে রাখতে হয়,,
তনু-আমি বাচ্চা?
শিশির-তা নয়ত কি,তারউপর রসগোল্লায়ায়ায়া
তনু-চুপ,,
তনুদের বাসা এসে গেলো,কিন্তু শিশির হাত ছাড়তেছে না,
তনু-আজব,হাত ছাড়ুন
শিশির-ওহ বাসা এসে গেসে বুঝি??ঠিক আছে,শিশির হাত ছেড়ে দিলো,যাই কেমন??
তনু-হুহহহহহ
শিশির -হুহহহহহহ
পরেরদিন সকালে♥
তনু-হুম,,কোনটা পরবো??Black or pink or white or blue?
শিশির মেসেজ করলো,,
তনু আজ পিংক পরবা,,
তনু-হুহ, আমি black পরবো,,
তনু শিশিরদের বাসায় গেলো,,
মা-তনু বসো,,শিশির ঘুম থেকে উঠতে দেরি করেছে,,তাই লেট,,
তনু বসে আছে সোফায়,,শিশির গোসল করে চুল মুছতে মুছতে বের হয়ে তনুকে দেখে দাঁড়িয়ে গেলো,
শিশির-তোমাকে বলসিলাম না পিংক পরবা
তনু-আমার ইচ্ছা,,
শিশির-ও তাই নাকি??শিশির রান্নার রুমে তাকালো মা কাজ করতেছে,
মুনা নিজের রুমে পড়তেছে,,,শিশির তনুর হাত ধরে টেনে নিজের রুমে নিয়ে গেলো,
তনু-আরেহ,কি হয়সে এমন করেন কেন?
শিশির তনুকে দেওয়ালের সাথে ঠেকে ধরলো,,কিছুক্ষন তাকিয়ে রইলো,,তনুর দুহাত চেপে ধরে আছে,
তনু-ছাড়ুন,আপনার মা কি ভাববে?
শিশির-কিছুই না,
শিশির তনুর হাত ধরে বাথরুমে নিয়ে গেলো,
তনু-এ্যাই পাগল হয়ে গেসেন?
শিশির-পরবর্তীতে আমার কথা শুনবা কেমন??মনে রেখো আমি তোমার ভালোর জন্য বলি,
শিশির ঝর্না ছেড়ে দিলো তনুকে নিচে দাঁড় করিয়ে,
তনু-ইস ভিজে যাচ্ছি, প্লিস এটা অফ করুন
শিশির -পুরোপুরি না ভিজা পর্যন্ত অফ হবে না,,
তনুর সাথে সাথে শিশির ও ভিজতেছে,,
১০মিনিট পর মায়ের আওয়াজে শিশির তনুকে ছেড়ে দিলো,নিজের হাত থেকে টাওয়েল নিয়ে তনুর গায়ে জড়িয়ে দিলো,যাও মুনার কাছে,মুনার একটা dress নিয়ে পড়ো,
তনু -হারামি,কুত্তা,বিলাই?
শিশির বের হয়ে মার কাছে গেলো,তনু মুনার কাছে,
মুনা-একি তোমার এই অবস্থা কেন?
তনু-ইয়ে মানে,,আচ্ছা তোমার একটা dress দাও,
তনু মুনার dress পড়ে চুল মুছে বসে আছে,
শিশির-হুমম এখন ঠিক আছে,,পাকনামি করতে আসে always,, আমাকে কি এখনও চিনো নাই?
চলবে♥

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে