Crush যখন বর?part 37/38/39

0
3073

Writer -Afnan Lara
Crush যখন বর?
#Part_37
তনু-শুনুন একটু খাবার আনবেন??উনার জন্য
Nurse -আচ্ছা
Nurse খাবার এনে দিলো,
তনু আস্তে করে শিশিরের মাথায় হাত বুলিয়ে দিলো,,
শিশির চোখ ডলতে ডলতে মুখ তুলে তাকাতেই তনুকে দেখে হেসে দিয়ে ওকে শক্ত করে জড়িয়ে ধরলো,
তনু কিছুটা অবাক হলো,
তনু -কি হয়ছে?
শিশির -I’m Sorry, আর কখনও তোমাকে একা ছাড়বো না,
তনু-ওকে ওকে,তনুর ও খুব কান্না পাচ্ছে কিন্তু নিজেকে সামলিয়ে নিলো,হুম পরে কান্নাকাটি হবে,এখন খাওয়া হবে,
শিশির-না আমি খাবো না,
তনু-খেতে হবে,নইলে আমি কিছু খাবো না,
শিশির-এখন ইচ্ছে করছে না,
তনু-খেতে হবে?
শিশির-?
তনু খাবার নিয়ে শিশিরের হাতে দিলো,
তনু-হুম খান,
শিশির আচ্ছা fresh হয়ে আসতেছি,
তনু-,আচ্ছা
শিশির বসে বসে খেতে লাগলো,তনু তাকিয়ে আছে,
তনুকে খাওয়ানো হবে বাট খালি সুপ,
শিশির খেয়ে তনুর কাছে এসে বসলো,শিশিরের এমন বিহেভ তনুর অন্যরকম লাগছে,
শিশির তার মায়াবতীকে দেখছে,
তনু-কিই??
শিশির-কিছু না,শিশির তনুর দিকে এগিয়ে ওর কপালে চুমু দিয়ে ওর ঠোঁটে ঠোঁট ছোঁয়ালো?,ওমনি দরজায় নক হওয়ায় তনু আলতো করে সরিয়ে দিলো,
মা-তনু এখন কি অবস্থা তোর??
তনু-হুম ভালো,
মা এসে তনুর পাশে বসলো,
মা-আজ আমাদের বাসায় যাবি
তনু-না মা,শিশিরদের বাসায় যাবো,
তনুকে হসপিটাল থেকে নিয়ে শিশির বাসায় আসলো,সবাই আসলো,
তনু রুমে গিয়ে বিছানায় বসলো,
শিশির এসে Shirt নিয়ে change করতে গেলো,তনুর শুধু কালকের কথাগুলা মনে আসতেছে,মাথা ব্যাথা করতেছে খুব,??
তনু উঠে রান্না ঘরের দিকে গেলো,চা বানাবে
শিশির বাথরুম থেকে বেরিয়ে তনুকে না দেখে অস্থির হয়ে পরলো
শিশির-তনু!তনু!
তনু-হুমমমমম
শিশির-এই তুমি রান্না ঘরে আসছো কেন???
তনু-চা খা,,,ব
শিশির -চুপ,শিশির তনুর হাত ধরে টেনে নিয়ে গেলো,
রুমে এনে খাটে বসিয়ো দিলো,
শিশির-এখানে বসে থাকো,
শিশির চলে গেলো,কিছুক্ষন পর চা নিয়ে আসলো,
শিশির-হুম খাও,
তনু- ?
শিশির তনুর পাশে বসে তনুর হাত ধরে বসে রইলো,,দুজনেই চুপ,
অনেকক্ষন পর একসাথে দুজন দুজনকে শক্ত করে জড়িয়ে ধরলো,তনু কাঁদতে লাগলো,শিশির ও?
শিশির-আই লাভ ইউ তনু,আই লাভ ইউ সো মাচ??♥
তনু -আই লাভ ইউ টু জামাই??♥
তনু কাঁদতে কাঁদতে শিশিরের কাঁদে মাথা রাখলো,
তনুর আজকে সবচেয়ে খুশির দিন,আজ তার Crush বর তাকে ভালোবাসি বলেছে,এইদিনটার জন্য কতবছর অপেক্ষা করেছে তনু,♥♥♥♥♥
তনুর এই কান্না খুশির কান্না,
সত্যি আল্লাহর কাছে মন থেকে কিছু চাইলে আল্লাহ তা পূরন করে দেয়, ♥♥♥♥হোক সেটা অনেক বছর পর,কিন্তু আল্লাহ আপনার ইচ্ছা ঠিকই পূরন করবে,
তনু-শুনুন
শিশির-হুম
তনু-আসেন আজ একটু লেকের পাশ থেকে ঘুরে আসি
শিশির-কিন্তু তুমি তো অসুস্থ
তনু-না কিছু হবে না,চলুন
শিশির-ওকে চলো,
সন্ধ্যা♥
দুজনেই হাত ধরে হাঁটছে,দুজনেই চুপ
তনু আগের সব ঘটনা গুলার কথা ভাবছে,শিশির ভাবছে সে তনুকে কতো কষ্ট দিসিলো,
তনু -ঐ ফুচকা,আসেন ফুচকা খাবো,
শিশির-আচ্ছা
তনু-ভাইয়া চটপটি একটা দেন আর একটা ফুচকা Extra আমার হাতে দিবেন,আর উনার জন্য ফুচকা এক plate
শিশির-ওমা
তনু -?
তনু খালি ফুচকাটার ভিতরে চটপটি পুরে নিয়ে মুখে দিলো,উম?কি মজা,আপনিও try করেন
শিশির হা করে তাকিয়ে রইলো,এটা আবার কেমন Style ফুচকা খাওয়ার,
শিশিরও একটা ফুচকা নিলো,then চটপটি এটার ভিতরে পুরলো,মুখে দিলো,ওয়াও অনেক taste তো?
তনু-??
চলবে♥

Writer -Afnan Lara
Crush যখন বর?
#Part_38
খাওয়া শেষে দুজনেই আবার হাঁটা ধরলো,,
তনু -আসেন এখানে একটু বসি
শিশির-ওকে
তনু শিশিরের কাঁদে মাথা রেখে বসলো,
একটা প্রজাপতি দেখে তনু উঠে তার পিছন পিছন গেলো,হালকা বাতাস বয়ছে,
তনু শিশিরের দিকে তাকিয়ে গান ধরলো
You want me?
You gotta know me?
If you love me♥
You gotta show me♥
Leja leja leja le jaLeja leja re♥
Mujhse door kahin na jaa♥
Bas yahin kahinrehja♥
Main teri deewani re
Afsos tujhe hai kya
Mujhse door kahin na jaa
Bas yahin kahin reh ja
Main teri deewani re
Afsos tujhe hai kya
Teri meri kahani nayi ban gayi
Tu mera ho gaya
main teri ho gayi
Jahan jaaye tu sang mujhe leja
Leja leja leja leja
Leja leja re Mehaki raat mein
Chura ke saare rang le ja
Saare rang le ja
Raati raati main
Bheegun sath mein
Tu aisi mulaqat de ja
Mulaqat de jaYeh teri meri baateinYeh meethe meethe pal
Yeh bheege bheege mausam
Milein na humein kal
Tere liye main hoon
Mere liye tu hai
Dar kis baat ka haiI wanna know you right
Boy you hold me road side
Now I wanna hear you say
Jahan jaaye tu sang mujhe lejaLeja leja leja leja
Leja leja re
Mehaki raat meinChura ke saare rang le jaSaare rang le jaRaati raati mainBheegun sath meinTu aisi mulaqat de jaMulaqat de jaLeja leja lejaLeja leja leja♥♥♥♥♥
শিশির মুচকি হেসে তনুর হাত ধরে টেনে নিজের বুকে নিয়ে এলো,শিশির তনুকে কোলে তুলে নিলো,
শিশির-চলুন ম্যাম
শিশির তনুকে নিয়ে বাসায় চলে এলো
মা বাবা সবাইকে দেখে নামিয়ে দিলো,,ভাগ্যিস কেউ দেখে নাই,ইস কি লজ্জা ???
তনু গিয়ে মায়ের সাথে সোফায় বসলো,
শিশিরের মা তনুর মাথায় হাত বুলিয়ে দিতে লাগলো,
মীম -দেখো আমারে ভুলে গেছে?
মা-ধুর, আয় আমার কাছে,
শিশির-আমি কি দোষ করলাম???
মা-আসেন বসেন,
♥রাতে
তনুর আজ কেন জানি খুব লজ্জা লাগছে,
তনু-ইস sisu কেমন কইরা তাকায় থাকে??মরে যেতে ইচ্ছা করে ???তনু গিয়ে বারান্দায় বসলো,,,
শিশির রুমে এসেই তনুকে খুঁজতে খুঁজতে বারান্দায় গিয়ে বসলো,
তনু-(ইস এই চাহনী থেকে বাঁচার জন্য পালাচ্ছি সেই আবার আমার কাছে এসেই ধরা দেয়)???
শিশির তনুকে কিছুক্ষন দেখলো,
শিশির-কি হয়ছে মুখ লুকাও কেন??আমার দিকে তাকাও, তনু তাকাচ্ছে না দেখে শিশির টেনে নিজের দিকে ফিরালো,
তনু চোখ বন্ধ করে আছে,
শিশির ফু দিলো তনুর মুখের উপর থাকা চুল সরার জন্য,
শিশির-কি লজ্জা লাগছে???
তনু-উহু
শিশির-হুম লাগছে,তা দেখেই বুঝতে পারছি,শিশির উঠে তনুকে কোলে তুলে নিলো,
শিশির- চলো আজ ছাদে যাই,আকাশ দেখবো সাথে চাঁদের আলোয় আমার মায়াবতীকে,
তনু লজ্জায় শিশিরের বুকে মুখ লুকালো,
দুজনেই ছাদে বসে আছে,তনু চাঁদ দেখছে আর শিশির দেখছে তনুকে,
তনু-আচ্ছা একটা কথা বলি?
শিশির-হুম বলো
তনু-আমি যদি মারা যায় কি করবেন?
শিশির-ঠাস!!!!!
তনু গালে হাতে দিয়ে বসে আছে শিশিরের দিকে তাকিয়ে,
শিশির কি করছে নিজেও জানে না,কথাটা তার খুব লেগেছে তাই রাগ সামলাতে না পেরে তনুকে চড় মেরে দিছে,
তনু কাঁদতেছে,
শিশির নিজেকে ঠিক করে তনুকে কাছে টেনে বুকে জড়িয়ে ধরলো,
শিশির-আর কোনোদিন এ কথা বলবা না,অনেক কষ্টে তোমাকে আমি ফিরে পেয়েছি কাল,আর হারাতে চাই না,তনু ফুঁপিয়ে ফুঁপিয়ে কাঁদছে,
শিশিরের এবার খেয়াল হলো সে তো তনুকে মেরেছে,ইস,
শিশির-I’m sorry,রাগ Control করতে পারিনি,কি করছি নিজেও জানি না,কানে ধরছি দেখো,
শিশির বুঝতে পারলো তনু ব্যাথায় কাঁদতেছে না কষ্টে কাঁদতেছে, আসলে ও আমার থেকে এটা আশা করে নি,শিশির উঠে তনুকে কোলে তুলে নিলে,
রুমে আনলো,খাটে বসিয়ে শিশির হাঁটু গেড়ে তনুর সামনে বসলো,কানে ধরলো,
আর জীবনেও এমন ভুল হবে না,সরি,আর তুমিও এমন কথা আর বলবা না,
তনু-??????
শিশির তনুর মুখ ধরে কাছে টেনে নিলো,ওর চোখের পানি মুছে দিলো,শিশিরের নিজের কাছেই নিজেকে অপরাধী লাগছে তনুকে সে মারলো,ধুর! শিশির উঠে রুম থেকে বেরিয়ে গেলো,
তনু তাকিয়ে রইলো,কখন যে ঘুমিয়ে গেছে টের ও পায়নি,সকাল হয়ে গেছে কিন্তুু শিশির কই???
তনু উঠে রুমে সব জায়গায় দেখলো কিন্তু শিশির তো নেই,ফোন নিয়ে কল দিলো তাও নেই,উফ!উল্টা রাগ দেখায় সবসময়,
মা-তনু
তনু-হুম মা
মা-শিশির কই?নাস্তা করবে না?
তনু-মা উনি কই আমি খুঁজে পাচ্ছি না,ফোন ও ধরতেছে না,
মা-অফিসে গেছে মনে হয়,
তনু-হুম সেটা হতে পারে তাও Tension হচ্ছে,
দুপুরে♥
তনু -উফ এখনও ফোন ধরতেছে না,কলিংবেলের আওয়াজ আসলো না???
তনু দৌড়ে গিয়ে দরজা খুললো,শিশির,তনু জড়িয়ে ধরলো শিশিরকে,শিশির ধরলো না,
তনু মুখ তুলে তাকালো শিশিরের দিকে তার পর ছেড়ে দিয়ে ওর হাত ধরে ডাইনিং টেবিলে বসালো,
খাবার এনে দিলো,
তনু-খান,সকাল থেকে তো কিছু খান নাই,
শিশির চুপচাপ খেয়ে উঠে রুমে চলে গেলো,
তনু ও পিছন পিছন গেলো,তনু শিশিরের হাত ধরলো,
তনু-কি?এমন করেন কেন??সকাল থেকে কতোবার কল দিসি??ধরলে কি হতো??
শিশির হাত ছাড়িয়ে নিয়ে জামা নিয়ে বাথরুমে চলে গেলো,দরজা লাগানোর সময় তনু আটকালো,,ঠেলে ভিতরে চলে গিয়ে নিজে বাথরুমের দরজা লাগালো,
শিশির তাকিয়ে রইলো
তনু-হুহ
শিশির-আমি change করবো,
তনু-তো করেন না,আমি কি আটকায় রাখছি?
শিশির বেরিয়ে যাওয়া ধরলো তনু আটকালে,
তনু-কি???সমস্যা কি??change করতে হলে আমার সামনে নইলে কোথাও না,মার খায়সি আমি উল্টা রাগ আমাকেই দেখান???চুপচাপ আমার সামনে এখানে change করবি নইলে চামড়া তুলে নিবো,
শিশির থ হয়ে তাকিয়ে রইলো
তারপর shirt খুলে পরে নিলো,তনু এক দৃষ্টিতে তাকিয়ে আছে মুখ ঘোমড়া করে,
শিশির আস্তে করে দরজা খুললো দেখলো তনু কিছু বলছে না,চুপচাপ বেরিয়ে গেলো,
তনু ও বের হলো,
চলবে♥

Writer -Afnan Lara
Crush যখন বর?
#Part_39
শিশির বেরিয়ে যাওয়া ধরলো তনু কলার ধরে টেনে বিছানায় ফেলে দিলো,
তনু-বেশি বেশি আবার ভালো লাগে না???
শিশির-কি?
করচচচচ!!!তনু দিছে কামড়াইয়া
শিশির-আউউ,কি করছো কি
তনু-শাস্তি দিলাম??
শিশির টান দিয়ে বিছানায় ফেলে দিলো তনুকে,
শিশির-এবার আমি শাস্তি দিব
তনু-কাল থাপ্পড় টা যথেষ্ট ছিলো না?
শিশির-না ওটা মাইর,আর এটা আদর,
তনু-আদর আবার শাস্তি?
শিশির-লাভ আলা শাস্তি??
তনু-ঐ এক মিনিট
শিশির-আবার কি?
তনু-কাল থেকে এমন করছেন কেন?
শিশির-ওহ তোমাকে মারসি যে খারাপ লাগছিলো,
তনু-সে খারাপ মোড আমাকে দেখাইলেই?
শিশির-সরি?তো কারে দেখাবো?
তনু-শিশিরের মুখ টেনে আনলো,ঠোঁটে কিস করতে যাবে তখনই শিশিরের ফোনে একটা কল আসলো,তনু হাতে নিয়ে দেখলো Video call, Ayesha Khan??এটা কে?ওমা পিক দেখি নাতাশার??????
শিশিরকে ধাক্কা দিয়ে ফেলে ওরে গলা চেপে ধরলাম,
তনু -হারামী, কুত্তা,********,তুই পরকীয়া করস???
শিশির-আরে না
তনু-চুপ,তোর এতো বড় সাহস?
শিশির-আ….
তনু-চুপ,
তনু বসে পরলো,
তনু-এ্যা????এই ছিলো আমার কপালে???
শিশির-আরে আমি জানি না এটা নাতাশা,আমার আইডি থেকে তো ওরে blk দিসি
তনু-তো এটা কে???
শিশির -আমি জানি না
তনু কাঁদতে কাঁদতে কল টা ধরলো,ওমা একি নাতাশা নাইটি পরে আছে,
তনু-মা******?
তনু রাগী চোখে শিশিরের দিকে তাকালো,
শিশির অসহায়ের মতো তাকিয়ে আছে,
নাতাশা তনুকে দেখে ভয়ে লাইন কাটা ধরলো
তনু-এই একদম কাটবি না
নাতাশা-????
তনু শিশিরকে টেনে পাশে বসালো,
নাতাশাকে দেখিয়ে দেখিয়ে বললো
তনু-বেবি কিস করবা??করো?
শিশির-?
তনু টান মেরে ওরে কিস করতে লাগলো,খাঁমছে ধরলো নাতাশাকে দেখিয়ে
নাতাশা-???
নাতাশা রেগে কেটে দিলো,
তনু শিশিরকে ধাক্কা মেরে সরিয়ে দিলো,
শিশির -কি??
তনু -তোমাকে তো পরে দেখবো,আগে নাতাশারে বিদায় করে নি
তনু নাতাশার আইডির একটা sreenshot নিলো,ওরে block করে দিলো,এবার শিশিরের আইডি থেকে Emon রে নক করলো,
ইমন শিশিরের Best friend
তনু-ভাইয়া,এই আইডি টা নষ্ট করতে পারবেন??
ইমন-কেন?
তনু-এটা নাতাশা,আমাদের Disturb করতেছে
ইমন-ওকে ডান
তনু ফোন রেখে শিশিরের দিকে অগ্নি দৃষ্টিতে তাকালো,
শিশিরের তো ভয়ে গলা শুকিয়ে গেছে,
তনু ও তোর frd হইলো কিভাবে?
শিশির-আমি সত্যি জানি না
তনু-বল
শিশির-জানি না,বিশ্বাস করো
তনু-দাঁত ভেঙে দিবো,কতো করে বলতাম মেয়েদের frd request নিস না নিস না,
শিশির-??????
তনু উঠে চলে গেলো,
শিশির-ইস?
তনু জামা কাপড় গুচাচ্ছে
শিশির -Pls ক্ষমা করে দাও,আমাকে ছেড়ে যেও না,pls,
তনু-কে??কে যাবে???আমি কি একা যাবো?
শিশির-মানে?
তনু-মা বলছে আমাদের জন্য হানিমুনের টিকিট কেটেছে
শিশির-কই??
তনু-Cox’s Bazar
শিশির-আমার অফিস?
তনু-?ছুটি নিবেন,
শিশির -আগে বলবা তো,আমি তো ভাবসি
তনু-আর যাই হোক আমি কখনও আপনাকে ছেড়ে যাবো না,
শিশির-????সরি আমি জানতাম না,
তনু-আমার sisu রে নাইটি পরে impress করতে চায়,শখ কতো,থাক ভালো একটা idea মনে করায় দিসে ফইন্নিটা,হানিমুনে আমিও নাইটি পরুম??কিন্তু?আমার কাছে তো একটা নাইটি আছে খালি,থাক ওটায় পরুম,
শিশির-কাল ভোর ৫টায় বাস,গাড়ী নিতাম,এখন আমি drive পারবো না?একটু rest নিবো
তনু-?????
চলবে♥

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে