Crush যখন বর?64/65/66

0
2934

Writer -Afnan Lara
Crush যখন বর?
#Part_64
তনু উঠে চলে গেলো,বারান্দায় গিয়ে কাঁদতেছে,
শিশির পিছন থেকে জড়িয়ে ধরলো,তনু ছাড়ানোর চেষ্টা করতেছে,
শিশির-আমি কি করবো বলো??এই ডিল টা করতে পারলে ৯-১০লাখ আয় হবে,কম হলে যেতাম না
তনু-আমি থাকবো কি করে??
শিশির-কিছু করার নাই আমার,আমার তো ভিসা আছে,এখন তোমার ভিসা করতেই টাইম লেগে যাবে,আমাকে ৬দিন পর যেতে হবে,
তনু শিশিরকে ছাড়িয়ে চলে গেলো,
শিশির-আমি কি করবো বলো??
তনু কিছু বললো না,কম্বল গায়ে দিয়ে ঘুমিয়ে পরলো,
২০মিনিট পর শিশির টেনে তুলে বসালো
শিশির-ঔষধ খান নাই এখনও
তনু-খাবো না
শিশির-না খেলে চড় দিব একটা!
তনু-দেন,তাও খাবো না,
শিশির মারার জন্য হাত তুললো,তনু শিশিরের দিকে তাকিয়ে আছে,চোখ থেকে পানি গড়িয়ে পরতেছে
শিশির শক্ত করে জড়িয়ে ধরলো
তনু আবার কাঁদতে লাগলো
শিশির-এভাবে কেঁদো না,আমি যাবো কি করে?
তনু-পারবো না থাকতে,বেবি একা সামলাবো কি করে
শিশির-মা বাবা মীম আছে,রিসাদ আছে
তনু-আপনাকে প্রয়োজন আমার
শিশির-পারলে থাকতাম,
তনু ঔষধ খেয়ে আরেকদিকে ফিরে ঘুমিয়ে পরলো,
শিশির কি করবে??ওর অফিসের কাজই এমন,
পরেরদিন সকালে♥
তনু উঠে শিশিরের জন্য নাস্তা করতে চলে গেলো,,হয়ত অনেকদিন ওর খাওয়া দেখতে পারবে না,আজ প্রানভরে দেখবে,,
বুয়া-আপা ছেড়ে দেন আমি করবো,
তনু-নিচের কাজ গুলা করে দাও আমি দাঁড়িয়ে রাঁধতে পারবো
বুয়া-আচ্ছা
শিশির ঘুম থেকে উঠলো,fresh হয়ে সোফার রুমে এসে দেখলো তনু কোমড়ে শাড়ী গুজে কাজ করতেছে,চুলে খোঁপা করেছে,,একটা দুইটা চুল বাইরে,কাজ করার সময় ওগুলা বার বার কানে গুজে দিচ্ছে,ইচ্ছে করসে গিয়ে জড়িয়ে ধরি,কিন্তু বুয়া আছে,নইলে ধরতাম!
শিশির বসে বসে দেখছে,ইস এতোদিন ওরে না দেখে থাকবো কিভাবে??
তনু এসে খাবার দিলো,,ওর পাশে বসলে,
তনু-নেন খান,আমি দেখি,
শিশির-তুমি খাবা না?
তনু-পরে,বমি আসতেছে
শিশির-ওকে
শিশির খেতে লাগলো,,তনু তাকিয়ে আছে,শিশিরের ঠোঁট টার দিকে সেই ৪বছর আগ থেকে তনুর নেশা ঠোঁটের দিকে তাকিয়ে থাকা,মিনিমাম ১০মিনিট তাকিয়ে থাকতো শিশিরের ছবির দিকে,
আর এখন তো বাস্তব, এখন তো সারাদিন তাকিয়ে থাকে
শিশির খাচ্ছে,তনু হা করে তাকিয়ে আছে,শিশিরের কাছে এটা নতুন না,সবসময় তনু এমন করে অবাক হয়ে শিশিরের দিকে তাকিয়ে থাকে,নাতাশা শিশিরকে মূল্য দিতো না,আর তনু??সে তো শিশিরের ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র জিনিসের প্রতি প্রেমে পাগল,,একদিন শিশির জিজ্ঞেস করসিলো,আমার মধ্যে তোমার কি ভালো লাগে?
তনু উত্তরে বলছে সব সব সব,
খাওয়া শেষে শিশির রেডি হলো অফিসে যাওয়ার জন্য,
তনু-সাবধানে যাইয়েন,
শিশির মুচকি হাসলো,
তনু শিশিরের সামনে হাসি মুখে থাকলেও মনের ভিতরটা পুড়ে যাচ্ছে, শিশির সেটা জানে,কারন তনু খুশি থাকলে সে সুন্দর করে মুচকি হাসে একটু দাঁত দেখিয়ে সেই হাসিটা আজ নেই,
শিশির তনুর কাছে এসে ওর কাঁধে হাত রাখলো,
শিশির-তুমি ঠিক না থাকলে আমি ঠিক থাকি কিভাবে??
তনু শিশিরকে জড়িয়ে ধরলো কোনো কথা বললো না,অনেক্ষনপর ছেড়ে দিলো,আরেক দিকে তাকিয়ে বললো যান,তাড়াতাড়ি আসিয়েন,,
শিশির টেনে নিজের দিকে ফিরালো,আদর দিবা না?
তনু-না
শিশির-তাহলে আমি দিই?
তনু-লাগবে না
শিশির তনুর কপালে চুমু খেলো,তনুর কিস করতে মন চাইলে শিশিরের ঠোঁটের দিকে নেশার চোখে তাকিয়ে থাকতো কিন্তু আজ তাকাচ্ছে না,
শিশির-তাকাবা না?
তনু-তাকাইসি তো
শিশির-না তাকাও নাই
তনু-যান!!
তনু শিশিরকে সরিয়ে চলে যাওয়া ধরলো শিশির আঁচল ধরে ফেললো,
শিশির-আর এক পা বারালে আজ হাল খারাপ করে দিব কিন্তু!
তনু-কি করবেন?
শিশির-দেখতে চাইলে এক কদম পার হও
তনু দাঁড়িয়ে আছে,শিশির আঁচল ধরে নিজের কাছে আনলো,
শিশির-এতো অভিমান??
তনু-কোনো অভিমান নাহ
শিশির-তাহলে?আদর সম্পূর্ন না হতেই চলে যাও কেন?৩মাস তো মুখটাই ধরার উপায় পাবো না,৫দিন বাকি তাও দিবানা?
তনু চুপ,
তনু-৩মাস থাকতে পারলে এই কইদিন আর কি?
শিশির-অনেক কিছু,
৩মাসের ভালোবাসা ৫দিনে পুষিয়ে দিব,
তনু-লাগবে নাহ আমার
শিশির-আমার লাগবে?
তনু-ইচ্ছা করতেছে দুনিয়ার যতো গালি আছে সব দিই?
শিশির-দাও,তাও যদি রাগ কমে
তনু-হা****,কু***,মা****,মা*****বা*****
শিশির- আস্তাগফেরুল্লাহ????
তনু আরও বলা ধরলো শিশির মুখ চেপে ধরলো,
শিশির-হয়সে হয়সে,ইজ্জত তো ধুয়ে দিতেসো,মানসম্মান সব গেলো আমার,কে শিখিয়েছে এসব তোমাকে?
শিশির-আপনার আর নাতাশার বা*** ভালোবাসা থেকে পাওয়া প্রাপ্ত jealousy শিখিয়েছে,
শিশির-ও, তার মানে তখন আমাকে গালি গুলা দিতা??
তনু-হুম
শিশির-এই জন্যই বলি খাইতে গেলে খালি বিষম খেতাম কেন?
তনু-???
শিশির -অবশেষে তার মুখে হাসি ফুটলো,
শিশির এবার এই হাসি মুখে আদর করে দাও
তনু-না,
শিশির গেলো রেগে খপ করে ধরে দেওয়ালের সাথে চেপে ধরলো,
তনু-আল্লাহ
শিশির-চুপ”!!!!!!
শিশির মুখ টিপে ধরে কিস করে দিলো,৫মিনিট পর হঠাৎ বুয়া এসে পরলো,
বুয়া-আপা!ইস??ইয়ে মানে পরে আসতেছি
তনু শিশিরকে ধাক্কা দিয়ে সরিয়ে দিলো,
শিশির আরেক দিকে ফিরে দাঁড়িয়ে গেলো,
তনু মুখ মুছতে মুছতে বুয়ার কাছে গেলো,
তনু-হ্যাঁ বলো
চলবে♥

Writer -Afnan Lara
Crush যখন বর?
#Part_65
বুয়া-আসলে কি রান্না হবে আজ তা জানার জন্য আসছিলাম
তনু-আজ চিকেন মাশালা করবো,,শিশিরের খুব প্রিয়, আর কদিন থাকবে
বুয়া -আচ্ছা আপা
শিশির-ম্যাম আসি তাহলে
তনু-তাড়াতাড়ি আসিয়েন
শিশির-আচ্ছা
তনু-দাঁড়ান
শিশির-জী
তনু টান দিয়ে গালের সাথে গাল ঘষে নিলো,
তনু-আসক্তি
শিশির-নেশা?
তনু-হ্যাঁ
অফিসে♥♥
শিশির-Okay but, I want to ask something
client-yeah sure,,
শিশির-My wife is pregnant so…
Client -oh Congress
শিশির-Actually I want to take her with me
Client -Sure,Don’t you know about the package?
শিশির-Wait?what??Which package?
Client -There 2visa I gave you,I for you and one for your wife, you read the letter??
শিশির-No,but, omg,thank you sooo much sir,
client -Most welcome
শিশির আনন্দে, তনুকে কল করলো,তনু তখন বাথরুমে ছিলো,
সম্ভবত শিশির অফিসে আসলে বাসায় কল করে না,তাও আজ কল করলো,
তনু-শিশির ফোন দিসে??ও তো দেয় না,
তনু টাওয়েল পেঁচিয়ে এক পা রাখতেই স্লিপ খেয়ে পড়ে গেলো,,
বিকালে♥
শিশির বাসায় আসলো,
মা-সব ঠিক হয়ে যাবে,শিশির আসবে,ওরে কল দিসি ও মনে হয় কাজে,doctor এসে যাবে
শিশির-তনু???
শিশির দৌড়ে রুমে ঢুকলো,তনু খাটে শুয়ে পেটে হাত দিয়ে কাঁদতেছে,,
শিশির তনুর কাছে এসে ধরলো,
শিশির-কি হয়সে??তনু
মা-বাথরুম থেকে বের হওয়ার সময় slip খেয়েছে,কার্পেট এ পড়সে,ব্যাথা পায়সে একটু,doctor রে কল দিসি,বলসে আসতেছে,
শিশির-এতোটা irresponsible হও কিভাবে?
তনু-আমি বুঝি নাই আসলে?
শিশির-কি বুঝো তুমি
doctor আসলো,,
Doctor -টেনশনের কিছু নাহ,কার্পেট টা বড় হওয়ায় বেবির কোনো ক্ষতি হয়নি,Just চাপ লাগায় ব্যাথা করতেছে,আমি Injection একটা দিতেসি,ঠিক হয়ে যাবে,
তনু হেলান দিয়ে বসে পেটে হাত দিয়ে মুছতে লাগলো,
তনু-সরি বেবি,আমার দোষ,
শিশির-কষিয়ে একটা চড় দিব,,আগে বেসামাল হয়ে চলতা তাই বলে এখনও??
তনু-ভয় দেখান কেন??দেন চড়
শিশির-আজ যদি কিছু হয়ে যেতো?
তনু-আপনার কল রিসিভ করার জন্য বেরিয়ে ছিলাম,
শিশির-যাই হোক,,
Good news আছে
তনু-আপনি বিদেশ যাবেন না??
শিশির-যাবো
তনু-ও?,তনু আরেক দিকে ফিরে শুয়ে পরলো,
শিশির-শুনবা না?
তনু-আর কি শুনবো?
শিশির-আমার সাথে মিসেস তনু চৌধুরীও যাবে বিদেশ
তনু-তো যাক না আমার কি??
তনু-কিহ??সত্যি?
শিশির-হুম
তনু উঠে শিশিরকে জড়িয়ে ধরলো,,
শিশির-হয়সে,কি কি নিবা বলো,আমি একেক করে গুছিয়ে দিচ্ছি
তনু-ওকে,
শিশির সব গুছিয়ে নিলো,মা বেবির জন্য কাঁথা দিলো অনেকগুলা,,
তনু ঘুমাচ্ছে,
মা-তনুকে দেখে রাখিস,,বেশি একা রাখিস না,ওখানে কি বুয়া আছে?
শিশির-আমরা হোটেলে উঠবো
মা-ও,তাহলে ভালো,তাও তনুকে একা ছাড়িস না
শিশির-অফিসে গেলে?
মা-তনু কল করলে কাটিস না যতই হোক ধরবি
শিশির-Try করবো
মা-না যেটা বলসি করবি,ওখানে মেয়েটা পুরা একা হয়ে যাবে,একা একা সামলাতে পারবে না,,তারউপর এই সময় একবার একটা লাগে,কে দিবে??তুই এক কাজ কর একটা বুয়া রাখ তনুর সাথে,
শিশির-জী ওকে,
রাতে তনু উঠলো,
তনু-আর পারবো না ঘুমাতে কচু?খালি ঘুম পায়?
শিশির-ভালো হয়সে তোমাকে ঘুমে রেখে অফিসে যাবো,
তনু-কেঁদে দিব
শিশির-দিও
তনু-আহা কি মজা আমার বেবি গুলা বিদেশি হবে
শিশির-হাহাহাহা
তনু-কি?
শিশির-ওরা ৭৮%আপনার পেটে দেশে আছে,তাইলে দেশি হবে
তনু-ও?
শিশির-হুমমমমম,
শিশির-দেখি উঠো,হাঁটো, Doctor বলসে হাঁটাচলে করতে
তনু-ওকে,তনু উঠতে গিয়েও পারলো না,পা ব্যাথা আহ মাগো?
শিশির-কি হয়সে দেখি,
শিশির তনুর পা ধরলো
তনু-মাগো ব্যাথা লাগে
শিশির-ওয়েট,শিশির মলম এনে লাগিয়ে দিলো
চলবে♥
(সরি কাল আমি Busy ছিলাম তাই গল্প দিতে পারিনি,যার কারনে আজ আরেকটা part পাবেন)

Writer -Afnan Lara
Crush যখন বর?
#Part_66
দেখতে দেখতে যাওয়ার দিন এসে গেলো,,
শিশির আর তনু সবাইকে বিদায় দিয়ে এয়ারপোর্টে গেলো
বিমানে তনু শিশিরকে খাঁমচে ধরে আছে,
তনু-আমার না বড্ড ভয় করছে?
শিশির-আরে কিছু হবে না
তনু-?
অবশেষে আমেরিকাতেতে গিয়ে পৌঁছালো,,,
তনু হা করে দেখতেছে,
শিশির-চলেন পরে দেখিয়েন,
তনু-আরে দেখতে দেন না
শিশির-ঘুরতে নিয়ে যাবো কেমন?এখন চলো,দেরি হয়ে যাচ্ছে
তনু মুখ গোমড়া করে চললো,হোটেলে গিয়ে সবাইকে কল করে জানিয়ে দিলো,,
শিশির-আমি এখন অফিসে যাই,
তনু-আমি একা?ভয় লাগে,
শিশির-আজ থাকো কাল বুয়া আসবে,আর কিছু লাগলে সাথে সাথে কল করবা
তনু-ওকে?
অফিসে♥
Client -Hii Mr,Sisir chowdhury,,
শিশির -Hello,
client -আমি কিছু কিছু বাংলা পারি, আপনার wife কই?
শিশির-হোটেলে,,
client -If you dont mind I would like to meet her
শিশির-yeah sure, কাল করাবো
Client -okay
তনু-হ্যালো রুম সার্ভিস,একটা চকোলেট কেক আর জুস পাঠাও
রাতে শিশির আসলো,
শিশির এসেই সোজা Recipient এ গেলো
শিশির-বিল কতো হয়সে?
Manager-আপনি জানেন কিভাবে যে বিল হয়সে?
শিশির মুচকি হেসে দিলো
শিশির-কারন আমার wife pregnant, আমি জানতাম এতোক্ষনে ও অনেক কিছু খায়সে
menager-oh,গুড
শিশির বিল দিয়ে রুমে গেলো,তনু বারান্দায় ঘুমিয়ে আছে,
শিশির গিয়ে বিছানা করে তনুকে কোলে তুলে এনে শুইয়ে দিলো,,নিজে fresh হয়ে তনুর পাশে শুয়ে পরলো
পরেরদিন ♥
শিশির-তনু রেডি হয়ে নাও,অফিসে নিয়ে যাবো তোমাকে, client মিট করবে,
তনু-আচ্ছা,
তনু-একটা থ্রিপিস পরে নিলো,
শিশির আর তনু অফিসে আসলো,
শিশির -Meet my wife♥
তনু-Hi(ওরে বেইল্লা)
Client -Hiii,নাইস টু মিট ইউ,You are sooo cute?
তনু-Thanku,,,You too(যদিও হনুমানের মতো লাগে)
শিশির তনুর কানে ফিসফিসিয়ে বললো
শিশির-আমার বস,একটু সম্মান দিয়ে মনে মনে কথা বলো
তনু শিশিরের দিকে বোকার মতো তাকিয়ে আছে,
Client -Take a sit
শিশির আর তনু বসলো
Client -তোহ কি খাবেন?
তনু-ফুচকা খাবো
শিশির-আরে চুপ
Client -What is fuchka?
তনু-ঐ যে মুখে পুরে নিলে মুছুড় মুছুর করে,ভিতরে টক,
Client -Sorry I cant understand your language
শিশির-এই তনু চুপ থাকো,
শিশির-কফি খাবো
Client -Your wife is soo cute
শিশির-I know
তনু -এই যে শুনুন
শিশির-কি?
তনু-আপনার টাকলু বস আমার উপরে crush খায়সে
শিশির-আস্তে
তনু-আরে বাংলা কম বুঝে
Client -কাল আমাদের বাসায় আসবেন,invite করলাম
শিশির-তনু আমার কেবিনে গিয়ে বসে থাকো আমি মিটিং সেরে আসতেছি
তনু-আইচ্ছা
Client -yeah you can go,ততক্ষন আমি উনার সাথে গল্প করি
তনু-(উফ অসয্য) জী বলেন
Client -সো তোমাদের বিয়ের কতোদিন হলো,
তনু-৫বছর?
Client -দেখে মনে হয় না
তনু-জী ছোটকালের প্রেমতো
Client -তাহলে বেবি এতো দেরিতে?
তনু-ওমা enjoy করা লাগবো না??
Client -কেমন enjoy?
তনু-বেবি হলে তো ওরে মাঝখানে শোয়াতে হবে,enjoy হবে কেমনে??
Client বিষম খেলো,পানি নিয়ে খেলো,
Client -(এই মেয়ে দেখি শয়তানের হাড্ডি)ওহ,আই সি
তনু-হ
Client -What is হ?
তনু-( হ মানে তোর মাথা)হ means yes
Client -oh
Client -How old are you?
তনু-১০০০০
Client -wait,Sisir told me that you are 18years old
তনু-(আবার আমার বয়স বলতে গেসে ধুর)হ্যাঁ?
Client- Good,I’m 26years old
তনু-(বুইড়া)ওহ ভালা
Client -Husband wife থেকে বড় হওয়া ভালো,শিশির তো মনে হয় 24,আরেকটু বড় হলে ভালো হতো
তনু-(তোর কি)its ok
শিশির-কেমন লাগলো গল্প করে?
Client -She is like a bomb
শিশির-জানি
তনু-(কি কইসি তোরে?আমাকে বোম কস কেন?হারামি)হিহি আপনিও নাহ?
শিশির-তনু, Sweetheart, একটু সামাল দিয়ে গালি দাও
তনু-?
Client -Okay,কাল আমার বাসায় আসবেন
শিশির-ওকে
হোটেলে ঢুকতেই শিশির টান দিয়ে তনুকে দেওয়ালের সাথে মিশিয়ে দিলো
তনু-আরেহ কি হয়সে?
শিশির-next time নেট হাতার জামা পরবা নাহ
তনু-কি হয়সে?এটা তো আম্মু দিসিলো
শিশির-পরতে মানা করসি,পরবা তো?ঠিক আছে,
শিশির টান দিয়ে জামার হাতা ছিঁড়ে দিলো,তনু কিছুটা ভয় পেয়ে শিশিরকে খাঁমচে ধরলো,
শিশির-সরি,
শিশির বারান্দার দিকে চলে গেলো,
তনু গিয়ে সাথে দাঁড়ালো,
শিশির-বস বারবার তাকাচ্ছিলো,আর এমন জামা পরবা না
তনু-সরি,
শিশির তনুর দিকে তাকালো,বেচারা ভয়ে শেষ,,
শিশির জড়িয়ে ধরলো,
চলবে♥

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে