Crush যখন বর? Season_2 part 7/8/9

0
3068

Writer-Afnan Lara
Crush যখন বর? Season_2 part 7/8/9
#Part_7
তনু চলে যাওয়া ধরলো শিশির এসে হাত ধরে ফেললো,
তনু-হাত ছাড়ুন
শিশির-আমি partyতে থাকা সবার জন্য return gift আনছি,তোমার টা নিয়ে যাও
তনু-লাগবে না,,
শিশির-চুপ,,
শিশির নিচে বসে পরলো,তনুর পায়ে হাত দিলো,
তনু-কি করতেছেন কি??
শিশির পকেট থেকে একটা পায়েল নিয়ে তনুর পায়ে পরিয়ে দিলো,,এত সুন্দর পায়েলটা তনু অজান্তেই মুচকি হেসে দিলো,,
তনু চলে গেলো,,পায়ে ঝুনঝুন শব্দ হচ্ছে,,শিশির চোখ বন্ধ করে ফেললো,,শব্দটা শিশিরকে টানছে,,,
পরেরদিন ♥♥
তনু -ভাইয়া যাবেন??
ধুর,!!একটা অটো ও পাই নাহ,,
শিশির-ম্যাম আসেন আমি দিয়ে আসি,
তনু-No thanks
শিশির রিকসা থেকে নেমে গিয়ে তনুর পাশে দাঁড়ালো,অটো একটা আসলো,,তনু উঠলো পাশে শিশির বসে পরলো,
শিশির-হ্যালো,রুনা বেবি,কি করো জান
তনু-????
তনু কলেজে নেমে গেলো,,
শিশির-টাটা
তনু বাসায় আসার সময়,,
তৃনা-তনু তনু(তৃনা শিশিরদের বাসার ফ্ল্যাটে থাকে+শিশিরের চাচাতো বোন)
তনু-হ্যাঁ আপু বলো
তৃনা-আগামী ২৯তারিখ আমার বিয়ে,,
তনু-ওয়াও,Congratulation
তৃনা-হুম thanks,,তুমি ২৮তারিখ থেকে আমার বাসায় আমার সাথে থাকবা,আমি কিছু শুনতে চাই না,,
তনু-না না,
তৃনা-?রাগ করসি,বাই
তনু-আরে শোনো,,
শিশির এসে হাজির,,
শিশির -আরে ভিতু,,আমি যদি খেয়ে ফেলি তাই আসবে নাহ,
তনু-?
তৃনা-তনু তোমাকে আসতে হবে,আর আমি uncle কে ফোন করে বলে দিব,,,
তনু-ওকে?
তৃনা-এই শিশির তোর কাজ নাই??অফিস যাস না?
শিশির-অফিস থেকে আসলাম?যা ভাগ,যা জামাইর লগে টাংকি মার,
তৃনা-তোর কইতে হবে না হুহ,
২৮তারিখ♥♥
তৃনা-তনু
তনু-আপু!!আসো ভিতরে আসো
তৃনা-নাহ,তোমাকে নিতে এসেছি,অনেক কাজ,হলুদের কাজ শুরু, আসো,
তনু-আরে,তৃনা টান দিয়ে নিয়ে গেলো,,
শিশির Stage সাজাচ্ছে,তনুকে দেখলো,থ্রি পিস পরা,,
শিশির-কামের বেডি আইছে?
তনু-????
তৃনা-বেয়াদব, তনুর পিছনে না লাগলে তোর শান্তি হয় না??
তৃনা তনুকে নিয়ে নিজের রুমে গেলো,নে এই লেহেঙ্গা পর,, সবাই সেম লেহেঙ্গা পরবে,
তনু পরে নিলো,,,বাহ সুন্দর তো,,
তৃনা-এটা শিশির আর আমার আম্মু গিয়ে কিনছে,তোর টার speciality হলো ঝুমকা লাগানো,,
তনু-ওহ,তো তুমি রাখো নাই কেন এটা??
তৃনা-হ শিশির আমাকে ছাদ থেকে ফেলে দিবে
তনু-কেন??
তৃনা-ও সবার জন্য আলাদা আলাদা প্যাকিং করসে,,
তনু-ওহ,,
তনু চারিদিক দেখতেছে,
শিশির ফুল লাগাচ্ছিল তনুকে দেখে হ্যাং হয়ে গেলো,হাত চলতেছে নাহ,,তনু চুল নিয়ে কানে গুজে দিয়ে দেখতে লাগল
শিশির খেয়াল করলো আশেপাশের ছেলে একটা দুটো তাকাচ্ছে,,
শিশির-মাইয়া মানুষ এখানে কি করে,যাও বাসায় যাও
তনু-?,হুহহহহ
তনু চলে গেলো,,
তৃনা-কিরে কি হয়সে?
তনু-তোমার ভাই আমাকে stage দেখতে দিলো না
তৃনা-সারাদিন লেগে থাকে তোর পিছনে,,
তিশা-কুচ কুচ হোতা হে(তৃনার বোন)
তনু-?কচু হোতা হে,তোমাদের ভাবি আছে,রুনা
তৃনা-হয় নাই এখনও
তনু-হবে তো
তিশা-তার সিউরিটি নাই,,
তৃনা-নে তনু মিষ্টি খা,তনু হাতে নিয়ে মুখে দিবে শিশির হাত থেকে নিয়ে খেয়ে নিলো
শিশির-এত মিষ্টি খাওয়া ভালো নাহ
তৃনা-এই তুই এখানে কি করিস??
শিশির-কাজ শেষ,গিয়ে দেখ কি সুন্দর করে সাজিয়েছি,,
তৃনা-আমাকে পরে নিবে,তনু গিয়ে দেখে আয়,
তনু-আমি যাবো না,,হুহ
শিশির-যাইতে হবে না,,
শিশির-রুনননননননা
তৃনা-আইসা গেসে আপদ
তিশা-অসয্য,ভাইয়া কিভাবে সয্য করে আল্লাহ জানে!
রুনা হলুদ থ্রি পিস পরেছে,,
শিশির-লুকিং হট
রুনা-জানি আমি always ?
তৃনা-হাহাহা
তনু-??,,
বিকালে♥♥♥♥♥♥
সবাই stage-এ গিয়ে বসলো,,,তনু stage -এ বসে খাবার গুলা ডেকোরেশন করতেছে,,
শিশির stageএর চেয়ার ঠিক করতেছে,,
রুনা-আমিও পারি এসব করতে বাট মেক আপ নষ্ট হয়ে যাবে
তিশা-????
তনু পিছন ফিরলো শিশির ও,দুজনেই ঠাস করে মাথায় বারি খেলো,
তনু-উহ মাগো
শিশির-?
চলবে♥
“এখনই জয়েন করুন আমাদের গল্প পোকা ডট কম ফেসবুক গ্রুপে।
আর নিজের লেখা গল্প- কবিতা -পোস্ট করে অথবা অন্যের লেখা পড়ে গঠনমূলক সমালোচনা করে প্রতি সাপ্তাহে জিতে নিন বই সামগ্রী উপহার।
আমাদের গল্প পোকা ডট কম ফেসবুক গ্রুপে জয়েন করার জন্য এখানে ক্লিক করুন



Writer-Afnan Lara
Crush যখন বর?
#Season_2
#Part_8
তনু গিয়ে মুনার সাথে বসলো,শিশির এসে তনুর পাশে বসে পরলো,,
তনু-মুনা একটু উঠো তো,
মুনা উঠলো,তনু গিয়ে মুনার সাইডে বসলো,,মুনা গিয়ে শিশিরের সাথে,
শিশির রাগে ফুলতেছে,,
তৃনা-তনু!!!!আয় হলুদ লাগায় দে,
তনু উঠে আসলো,,তৃনার গালে হলুদ লাগিয়ে দিলো,,
তৃনা-শিশির আয়
শিশির এসে দুহাতে হলুদ নিয়ে সারা মুখে লাগিয়ে দিলো তৃনার
তৃনা-এ্যা এ্যা
শিশির-হাহাহাহা
রুনা এসে এক আঙুল হলুদ নিয়ে লাগালো,,
শিশির কেক নিয়ে খেতে লাগলো,
তনু গিয়ে বসলো আগের সিটে,,গান বাজতেছে জোরে,,
শিশির-কে নাচবা আমার সাথে??আমার partner লাগবে,,
শিশির তনুর কাছে এসে তনুকে সরিয়ে রুনার হাত ধরে stage -এ নিয়ে গেলো,,
দুজনেই নাচতেছে,
Munda thoda off beat hai
Par kudiya de naal bahut sweet hai
Dhongi sa ye bada dheeth hai
Viral hogaya yeh tweet
Par phool wool karne mein cool Tu badi tezz katari hai Shagan teri ki, lagan teri ki Humne kardi tayari hai Nachde ne saare ral mil ke Aaj hil dul keLe saare ke saare nazaare
Khasma nu khaane! Hadipa!
Aaloo bade karare Karam naal aaloo bade karare Chad chad ke chaubaare Karam naal sweetu wajan maare…
তনু-হুহ?
রনি-If you don’t mind আমি আপনার সাথে একটা নাচ দিতে পারি??(তৃনার frd)
তনু-সরি
তনু দেখলো শিশির আর রুনা এখনও নাচতেছে,
তনু-ওকে,,
শিশির খেয়াল করলো তনু আর রনি কথা বলতেছে,,
শিশির নাচ শেষ দিয়ে তৃনার কাছে গেলো,
শিশির-তৃনা,তনুকে বল ওর মা আসছে ওরে ডাকতেছে,উনি এদিকে পরে আসবে,শিশির এটা বলে চলে গেলো
তৃনা-তনু
তনু-হ্যাঁ বলো
তৃনা-তোর মা আসছে,তোকে ডাকতেছে,
তনু-আচ্ছা,
তনু ভিতরে গেলো,,বাসা খালি,,
তনু-আম্মু???আম্মু??আম্মু?
শিশির এক টান দিয়ে নিজের রুমে নিয়ে এনে দেওয়ালের সাথে ঠেকে ধরলো,
তনু-আহ,ছাড়ুন,এমন করতেছেন কেন?
শিশির-রনির সাথে কিসের এত কথা??আর আমি যখন তোমার পাশে বসছি কোন সাহসে উঠে মুনাকে বসিয়ে দিলে?
কথাগুলো তনুর হাত চেপে চেপে বলতেছিলো,
তনু-লাগতেছে আমার ছাড়ুন,
হাতে কাঁচের চুড়ি,ফাটছে কয়েকটা,,
শিশির-আমার উত্তর দাও
তনু-নাচবো রনির সাথে কোনো সমস্যা??
শিশির আরও জোরে চাপ দিলো,হ্যাঁ সমস্যা, নাচবা না তুমি,
তনু-আপনি পারছেন আমিও পারবো
শিশির-মানা করসি তোমাকে,,আশা করি শুনবা,
তনু-শুনতে বাধ্য নই
শিশির ছেড়ে দিলো, তনু চোখের পানি মুছে চলে আসা ধরলো,
শিশির পিছন থেকে তনুকে আবার দরজার সাথে চেপে ধরলো,,
শিশির-পারলে এখনই সব করতে পারি,বাসা খালি,একটা পাখিও জানতে পারবে না,
তনু চোখ বন্ধ করে আছে,,আর কাঁদতেছে,
শিশির ছেড়ে দিয়ে চলে গেলো,,
তনু আর stage-এ যায় নি,সোজা বাসায় চলে এলো,,
তৃনা-শিশির তনু কই??
শিশির-জানি না আমি,,
তৃনা ফোন নিয়ে কল দিলো,ফোন সুইচড অফ,,
তৃনা-মুনা
মুনা-হ্যাঁ আপু
তৃনা-বাসায় গিয়ে দেখতো তনু কই??
মুনা-আচ্ছা,,
মুনা-আপু বাসায় নেই,
তৃনা-কি হলো, কই গেলো মেয়েটা??
মুনা-ভাইয়া তনু আপু কই??
শিশির-আমি জানি নাহ
শিশির চলে গেলো,
তৃনা-মনে হয় কিছু হয়সে দুজনের মধ্যে
তিশা-তনু আপু ঠিক আছে,আর বাসায় গেসে,যদি অন্য কিছু হতো ভাইয়া এখনও বসে থাকতো না,,
মুনা-হ্যাঁ ঠিক
তৃনা-মেয়েটা চলে গেলো কেন,কি হয়সে কে জানে
তনু বাসায় এসে রুমে চলে গেলো,,
হাত ব্যাথা করতেছে তাকিয়ে দেখলো রক্তে টলাটল,চুড়ি ফেটে হাত দিয়ে ঢুকে গেসে,,
তনু হাত পরিষ্কার করে fresh হয়ে গিয়ে কাঁথা মুড়ি দিয়ে শুয়ে পরলো,
রাতে♥
তৃনা মুনাকে নিয়ে তনুদের বাসা আসলো,
তৃনা-আমাকে না বলে চলে এলি??
তনু-ভালো লাগতেছিলো না
মুনা-ভাইয়া কি বলছে??
তনু-কিছু না,
তৃনা-চল আমার সাথে
তনু-না, যাও তোমরা,কাল যাবো
তৃনা-ঠিক আছে,,
পরেরদিন তনু রেডি হয়ে বের হলো,,লাল গাউন পরলো,,সাথে ওড়না,,চুল ছেড়ে দিলো,,
তৃনার পাশে বসে আছে,তৃনাকে সাজানো হচ্ছে,,
শিশির একবার আসছে শুধু তাও ডালা নেওয়ার জন্য,তনুর দিকে তাকালো,তনু আরেক দিকে তাকিয়ে আছে,,
মুনা-আপু তোমার হাতে কি হয়সে??
তনু-ওহ আসলে দরজার সাথে লেগে কাটা গেসে,
তৃনা-ইস রে,,মলম লাগাইছস??
তনু-হুম
শিশির বাইরে থেকে শুনতে পেলো,,,
তারপর চলে গেলো,,
তৃনা আর তৃনার বর stageএ বসে আছে,,,
তনু চেয়ারে বসে আছে,শিশির কাজের ফাঁকে ফাঁকে বারবার তাকাচ্ছে,,
খাওয়া শেষে,,
তৃনা-ভাইয়া তুই তনুকে ভালোবাসিস,,ওকে যেতে দিস না,আর ও তোকে ভালোবাসে,,
শিশির-আমি জানি ও আমাকে ভালোবাসে,,আমি ওরে ভালোবাসি নাহ,
তৃনা-তাহলে এসব??
শিশির-জ্বালাঔ,ভালো লাগে,ওরে না জ্বালায়ইলে ভালো লাগে না আমার
তৃনা মুচকি হাসলো,ভাইয়া এটাই ভালোবাসা♥শিশির আর কিছু বললো নাহ
তৃনাকে গাড়ীতে উঠানো হলো,চলে গেলো,,
চলবে♥
“এখনই জয়েন করুন আমাদের গল্প পোকা ডট কম ফেসবুক গ্রুপে।
আর নিজের লেখা গল্প- কবিতা -পোস্ট করে অথবা অন্যের লেখা পড়ে গঠনমূলক সমালোচনা করে প্রতি সাপ্তাহে জিতে নিন বই সামগ্রী উপহার।
আমাদের গল্প পোকা ডট কম ফেসবুক গ্রুপে জয়েন করার জন্য এখানে ক্লিক করুন


Writer-Afnan Lara
Crush যখন বর?
#Season_2
#Part_9
শিশির বাসায় আসলো,
তনু-আন্টি আমি আসি,,
যাওয়ার সময় শিশিরের সাথে চোখাচোখি হলো,,
শিশির-দাঁড়াও
তনু দাঁড়ালো নাহ,
শিশির-দাঁড়াতে বলসি,তনু দাঁড়ালো,
শিশির-দেখি হাত,
তনু হাত সরিয়ে ফেললো,শিশির হাত টেনে দেখলো,,
তনু-মলম লাগাতে হবে না,
শিশির-মলম কেন লাগাবো??ভালো হয়সে কাটছে,আমার কথা না শুনলে এমনই হবে,,
তনু হাত ছাড়িয়ে চলে গেলো,
শিশির-মুনা
মুনা-বলো ভাইয়া
শিশির-ধর এই মলমটা তনুরে দিবি,বলবি তৃনা দিসে,
মুনা-কেন??
শিশির-যেটা বলসি কর,
মুনা মলম নিয়ে গেলো,শিশির নিজের রুমে চলে এলো,
মা -মুনা দাঁড়া,আমি তোর সাথে যাবো,,
মুনা আর শিশিরের আম্মু তনুদের বাসায় গেলো,
মা-আপনারা কাল আমার বাসায় আসবেন,দাওয়াত দিলাম, সবাইকে নিয়ে আসবেন,,আমার আপনাদের সাথে কিছু কথা আছে,
তনুর বাবা-ঠিক আছে,আমার ও কথা ছিলো আপনাদের সাথে,
পরেরদিন সকাল♥
শিশির-মা আমি অফিসে যাচ্ছি
মা-দুপুরে আসিস,দরকার আছে
শিশির-কিসের??
মা-আসতে বলসি আসবি,
তনু-বাবা,কলেজ থেকে আসতে লেট হবে,,আজ কোচিং আছে,
বাবা-কিন্তু,,
তনু-বাই বাবা,
দুপুরে তনুর পরিবার শিশিরদের বাসায় গেলো,,
মা-দেখুন,আমরা বেশি দূরে থাকি নাহ,আমাদের ছেলেমেয়েরা তাই প্রতিদিন দেখা শুনা করে,শিশির আর তনু হয়ত দুজন দুজনকে পছন্দ করে,,
আর আশেপাশের মানুষদের কথা হয়ত আপনারাও শুনসেন,তারা শিশির আর তনুর মেলামেশা ভালো চোখে দেখছে নাহ,
তনুর বাবা-হ্যাঁ আমিও শুনসি,আমি আপনাদের বলতাম তার আগেই আপনারা বললেন,
মা-আমার শিশির তো কিছুদিন হলো চাকরিতে Join করেছে,,ভালই বেতন পায়,,আর আমার ছেলেকে তো আপনারা কবে থেকেই চিনেন,,
তনুর বাবা-সেটা তো চিনিই,,শিশির ভালো ছেলে,,বেতন সমস্যা নাহ,আমার মেয়েকে ভালো রাখলে আর কি লাগবে,
মা-আসলে ব্যাপারটা আরও পরেও বলতে পারতাম কিন্তু আশেপাশের লোকদের কথা বেড়ে গেসে,,তো আপনারা বলেন এবার,,তনুকে তো আমার পছন্দ,,ছেলের বউ করতে আমার আপত্তি নাই,,
তনুর বাবা-আমার ও আপত্তি নাই,,তনুর সাথে কথা বলে দেখি,,আপনারাও শিশিরের মত নেন
মা-ওদের কিসের মত, ওরা তো সেই কয়েক বছর আগ থেকেই দুজন দুজনকে বাচাই করে রেখেছে,,আমরা তো এখন শুধু পরে বন্ধনে আবদ্ধ করবো,,
তনুর বাবা-হ্যাঁ ঠিক,,আচ্ছা আসি তাহলে,,আসসালামু আলাইকুম,,
মা- ওয়ালাইকুম আসসালাম,
শিশির-মা,তনুর বাবা মা এখানে আসলো কেন??
মা-আমি ওদের দাওয়াত দিসিলাম,তোর আর তনুর বিয়ের ব্যাপার নিয়ে,
শিশির-wait!what???!!!!!!!!!!!!!!!!!!
মা-এত শক হওয়ার কি আছে??তুই তনুকে চিনস না??
মুনা-হাহাহা
শিশির-এই চুপ, চিনি তো তাই বলে বিয়ে??
মা-আশেপাশের লোকের কথা শুনস তো??কি বলে তারা?তোরা যে হারে প্রেম শুরু করছস তারা কি চোখে দেখে?
শিশির-কিসের প্রেম??
মা-যাই হোক, আমি ওদের বলে দিসি,রাতে কল দিয়ে আমাকে জানাবে,
শিশির-মানে কি??আমার মত নিবা না?
মা-কিসের মত,?তুই তনুরে ভালোবাসোস না??
শিশির-না,
মা-না?তাইলে রোজ দেখা করা,যেকোনো জায়গায় দুজন একসাথে সেটা কি??
শিশির-ওগুলা প্রেম নাহ,
মা-এখনও প্রেম কি জিনিস সেটাই জানস না??
শিশির-আজব তো,আমি বিয়ে করবো না,
মা-তোর এই জেদের জন্য কি এলাকা ছাড়া হবো?
শিশির-আলাদা বাড়ি কিনবো তাও বিয়ে করবো না,,
শিশির নিজের রুমে চলে গেলো,,
মুনা-ভাইয়া,তনু আপুরে বিয়ে করলে সারা জীবন জ্বালাতে পারবি????
শিশির -যা এখান থেকে,
তনু বিকালে বাসায় আসলো,,
বাবা তনুকে সব বললো,
তনু-মানে কি??আমি আর শিশির??পাগল হয়সো তোমরা?আমি ওরে বিয়ে করবো না
বাবা-আশেপাশের ৪-৫টা লোক কি বলে শুনস তো,তোদের মেলামেশা,
তনু-ওয়েট,কিসের মেলামেশা???আজব তো,
বাবা-আমি জানি না,আমার ছেলে পছন্দ,, আর ছেলের পক্ষের সবাই রাজি,,আর তুই ও রাজি হবি তোর কাছে আর কোনো ওয়ে নেই,আর হ্যাঁ তোরা দুজন দুজনকে ভালোবাসোস এটা তো মিথ্যা নাহ
তনু-হ্যাঁ মিথ্যা,,,,আমি ওরে ভালোবাসি না
বাবা-আমি কিছু শুনতে চাই না,এ এলাকায় ২০বছর ধরে আছি,কখনও কেউ আঙুল তুলে কিছু বলতে পারেনি,কিন্তু ইদানিং তোদের কর্মকান্ডে তারা যা শুরু করসে,,তুই দায়ী আমরা না
তনু নিজের রুমে চলে গেলো,,
বাবা-আমি শিশিরের আম্মুকে হ্যাঁ বলে দিচ্ছি,
বাবা-হ্যালো আপা,রাজি আমরা,
শিশিরের মা-আলহামদুলিল্লাহ! আমরাও রাজি,,
শিশির-মা এটা ঠিক হচ্ছে না,তোমরা আমার মত না নিয়েই??
মা-চুপ কর,ভিতরে ভিতরে দুজন দুজনকে ভালোবাসোস আর আমরা বিয়ে দিতে চাইলেই দোষ??
শিশির তনুকে মেসেজ দিলো,,তনু বাসা থেকে বের হয়ে পিছনের রোডে আসো,
তনু-হ্যাঁ আমার কথা আছে আপনার সাথে,
দুজনেই আসলো,
শিশির-এসব কি??
তনু-আমার একই প্রশ্ন,, আমি বিয়ে করবো না
শিশির-আমিও না,
তনু-বাবাকে বলসি বাবা শুনতেছে না
শিশির-আমার মাও শুনতেছে না,আমি তো রুনাকে লাভ করি,
তনু-হুহ,,তনু চলে আসা ধরলো শিশির হাত ধরে ফেললো,
শিশির কিছুক্ষন তনুর দিকে তাকিয়ে কি যেন ভাবলো,,
শিশির-রুনাকে বিয়ে করবো
তনু-করেন,আমার হাত ছাড়েন
শিশির হাত ছেড়ে দিয়ে শয়তানি হাসি দিয়ে চলে গেলো,
তনু-??
চলবে♥

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে