শান্তি

0
456
সন্তান তার বাবাকে পিটিয়ে হাসপাতালে ভর্তি করিয়েছে। এ ঘটনা নিয়ে এলাকায় হইহট্টগোল বেধে গেছে। সবাই ছি ছি করছে। ছেলেটিকে অভিশাপ দিচ্ছে, ছেলে জন্ম দিয়েছে শিক্ষা দিতে পারেনি। এমন ছেলে জন্ম না দেওয়াই উত্তম। এমন কুলাঙ্গার সন্তান যেন কারো ঘরে জন্ম না নেয়।এতো কথার পরেও ছেলেটা কোন প্রতিবাদ করছে না। চুপচাপ সব সহ্য করছে। যে ছেলে তার বাবার গায়ে হাত তুলতে পারে সেই ছেলে এলাকার লোকজনের কথা খুব সহজে হজম করবে এটা বিশ্বাসযোগ্য কথা না। অবিশ্বাস্য হলেও সত্য যে ছেলেটা কারো কথার কোন জবাব দিচ্ছে না।বাবাকে হাসপাতালে ভর্তি করিয়ে সকল চিকিৎসা করালো। নিজে বাবার সেবাযত্ন করলো। নিজের বাবাকে আঘাত করার পর যত্ন নিচ্ছে। এটার কারণ কেউই বুঝতে পারছে না।
বাবাকে সুস্থ করে যখন পুলিশের হাতে তুলে দেয়। তখন সবাই অবাক হয়। প্রচন্ডরকমের বিস্ময় দেখা যায় সবার মধ্যে।এর রহস্য বেশি দিন সবার অজানা থাকে না। অল্প কিছুদিন পর জানা যায় ছেলেটির বাবা এক নারীর ধর্ষক ছিলো। তার শাস্তিই ছেলে দিয়েছে। ছেলেটি একাধারে সন্তানের দায়িত্ব পালন করেছে অন্যদিকে বিচারকের দায়িত্বও পালন করেছে।লেখায়:-জুবায়ের আল মাহমুদ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here