মেয়েটা অসত্বী পর্ব/০১

13
443

মেয়েটা অসত্বী পর্ব/০১

লেখক/ ছোট ছেলে

********

বাঁসর ঘরে ডুকতে দেখি রিমি খুব সুন্দর সাঁজে বউ সেঁজে অপেক্ষা করছে আমার জন্য

ভাবতে কেমন জানি লাগে
ইসসসসস….. আজ ২৩বছর ধরে অপেক্ষা করছি এই রাতের জন্য

এক পাঁ দু পাঁ করে এগিয়ে গিয়ে বসলাম রিমির পাশে

মেয়েটা আমাকে দেখে একটু নড়েচড়ে বসলো

নিজের মনকে নিজে বোঝালাম

হয়তো এই প্রথম একটা পুরুষের সাথে রাত কাটাবে তাই হয়তো একটু লজ্জা পাচ্ছে সমস্যা নেই আমি মানিয়ে নিবো

রিমিকে একটু স্পর্শ করতে সে করুন সুরে বলতে লাগলো

রিমি/ দয়া করুন আপনি আমাকে একটু দয়া করুন

আমাকে স্পর্শ করবেন না প্লিজ

আমার না খুব খারাপ লাগছে

রিমির কথা শুনে আমার মাথাটা গরম হয়ে যায়

মেয়েটা কি পাগল হয়েছে নাকি যে তার
স্বামীকে স্পর্শ করতে দেয়না শরীর

কিন্তু বাঁসর রাত বলে এই রাত কি আর ফিরে আসবে বার বার

আমি/ এই এসব তুমি কি বলছো তোমাকে স্পর্শ করবোনা মানে
তোমার কি মাথা খারাপ হয়েছে

তুমি আমার বৌ আমি তোমার বর
আমরা দুজন দুজনার তাই কোন কথা নয় চুপ করে শুয়ে থাকো

রিমি/ তা ঠিক কিন্তু আমি একদম প্রস্তুত নয় আপনাকে একটু সুখ দিবার জন্য

কে শোনে কার কথা

মাথা থেকে রিমির কাপড় সরিয়ে দিলাম

তারপর রিমিকে শুয়ে দিলাম

মন ভরে আদর করতে লাগলাম

রিমি কিছুটা ব্যথায় ছটপট করতে লাগলো

আমি ভাবলাম সে মনে হয় খুশিতে এমনটা করছে

কয়েক মিনিট পরে রিমিকে ছেড়ে দিয়ে বললাম

আমি/ যাও এবার তুমি ঘুমাতে পারও

রিমি আমার দিকে তাকিয়ে আছে কিন্তু বলার মত হয়তো কিছুই তার জানা নেই

রিমি অসহ্য কিছু ব্যথা নিয়ে অন্যদিক ফিরে শুয়ে আছে

আমি উঠে লাইট টা জ্বালালাম

দেখি বন্ধুরা যা বলছে তা সত্যি কিনা

আমার বন্ধুরা আমাকে বলেছিলো বাঁসর রাতে যদি রক্তপাত হয় তাহলে বুঝবি তোর বউ বিয়ের কুমারী ছিলো

আর যদি নাহয় তাহলে মনে করবি তোর বউ বিয়ের আগে কাউকে তার দেহ দান করেছিলো

বন্ধুদের দেয়া উপদেশটা আমার মনে আছে

তাই আমিও এখন দেখবো আমার বউ বিয়ের আগে কি কুমারী ছিলো

নাকি একটা অস্বত্বী মেয়েকে বিয়ে করেছি

আমি বিছানা খুব ভালো করে দেখতে লাগলাম কিন্তু কোথাও এক ফোঁটা রক্ত দেখতে পাচ্ছিনা

আমি/ এই তুমি এদিকে সরে বসো

রিমি কোন কথা না বলে সরে বসলো

তারপর আমি আবারও খুব ভালো করে দেখতে লাগলাম কিন্তু শেষফল জিরো জিরো

মাথায় যেন আকাশ ভেঙ্গে পড়লো যখন-ই মনে হয় আমি একটা অস্বত্বী মেয়েকে বিয়ে করে ঘরে তুলেছি

রিমি কান্না কান্না কণ্ঠে কি জিজ্ঞেস করলো

রিমি/ কি হলো আপনি কি খুঁজেন এতক্ষণ ধরে এই বিছানায়

হাতমুখ ঘেমে গেছে আমার

তারপরও রিমিকে বুঝতে দেইনি

বাসায় আত্মীয়স্বজনে ভরা তাই আজ আর কিছু বললাম না

রিমি শুয়ে পড়লো

আমিও লাইট বন্ধ করে দিয়ে শুয়ে পড়লাম

চোখ বন্ধ করতে মনে হাজারও প্রশ্ন শেষমেষ একটা নষ্টা মেয়েকে বিয়ে করলাম

কিন্তু আমিতো কখনও কোন মেয়ের জীবন আর দেহ নিয়ে খেলেনি তবে আমার কপালে কেন একটা অসত্বী মেয়ে জুটলো

কিন্তু রিমির একটা দিক আমাকে খুব ভাবাচ্ছে

রিমি এখনও ব্যথায় ছটপট করে

নাকি সব-ই তার মিথ্যে অভিনয়

সবকিছু বুঝতে পেরে সে এমনটা করছে

হুমমমম এখন বুঝতে পারছি বাঁসর রাতে তাকে স্পর্শ করতে কেন সে নিষেধ করেছে

না এই অসত্বী মেয়ের সাথে আমি কখনও সংসার করতে পারবনা

যে মেয়ে বিয়ের আগে নিজেকে অন্যের জন্য উন্মুক্ত করে দেয়

সে আর যাই হোক কারও বউ হতে পারেনা

ঘুমানোর অনেক চেষ্টা করলাম কিন্তু ঘুমাতে পারিনি

মনে হাজারো প্রশ্ন নিয়ে সকাল হলো

কখন যে চোখে একটু ঘুম আসলো বুঝতে পারিনি

রিমি আমার আগে ঘুম থেকে উঠে নাস্তা বানিয়ে আমাকে ডাকতে লাগলো

রিমি/ এই যে শুনছেন এই যে

রিমির ডাক শুনে ঘুম ভাঙ্গলো

চোখ মেলতে দেখি রিমি আমার হাত ধরে আমাকে ডাকতে লাগলো

আমি/ এই শোন তুমি আমাকে একদম স্পর্শ করবেনা

রিমি একটু মজা করে বলতে লাগলো

রিমি/ বাহ্ ভালোতো কালরাতে যার শরীর চেটে খেয়েছেন এখন সে মেয়েটাকে বলছেন স্পর্শ না করতে

আপনি তো খুব মজার মানুষ

আমি/ এই শোন যা বলছি সত্যি বলছি

কান খুলে শুনে রাখো তুমি আজ থেকে আমার কাছে আসার একদম চেষ্টা করবেনা

রিমি/ এসব আপনি কি বলছেন

মাত্র একটা কয়েক ঘণ্টা হলো এসেছি এ বাড়িতে
একটা রাত আপনার সাথে কাটিয়েছি

এর মধ্যে আমি এমন কি করলাম

যার জন্য আপনার এমন সিদ্ধান্ত

আমি/ তুমি কিছু করোনি করেছে তোমার ঐ সুন্দর রূপে

তুমি কোন দোষ নেই দোষ হলো তোমার ঐ অসত্বী শরীরে

যা আমার আগে কেউ উপভোগ করেছে মন ভরে

রিমি/ ছিঃ…… এসব আপনি কি বলেন

আপনার কি মুখে একটুও বাঁধলোনা কারও সম্পর্কে না জেনে এমন মিথ্যে অপবাদ দিতে তার উপর আবার নিজের বউকে

আপনি যদি আমার স্বামী না হয়ে অন্যকোন পর পুরুষ হতেন তাহলে পাঁয়ের জুতো খুলে আপনার মুখে মারতাম

চলবে…..???

Comments are closed.