ভুতের প্রেম। পর্বঃ২

1
248

ভুতের প্রেম। পর্বঃ২
আপনি আমারে থাপ্পর দিলেন কেনো।
প্রিয়াঃ থাপ্পর দিবো না মানে কাল বল্লা আমার সাথে
প্রেম করবা এখন ওই ওরিশার সাথে প্রেমের কথা
হইতেছে তাইই না।।।।
আমি তো পুরা অবাক কি বলে প্রিয়ায়।।
আমি তো কাল মজা করছিলাম।।।
কিন্তু আমি মজা করি নাই(প্রিয়া)।।
আমি কি বলবো কিছুই বুজতে পারলাম না।।।
ওই সময় মায়ের ডাক বাবা খেতে আয় আমার মা
ডাকলে আমি দেরি করতে পারি না নইলে আমার মা
রাগ করে।।।।
তাই ওই দুক্ষ আর ভালোবাসার মঞ্চ থেকে তারাতারি
চলে গেলাম।।। তখন ও পিছন থেকে বল্ল্য কাল
আসবেন এইখানে,
আমি কিছু না বলেই চলে আসি।।
আর মনে মনে তো উরাধুরা
এতো সুন্দর মেয়ে আমার প্রেমে পরছে।।
আহা ডিনকা চিকা ডিনকা চিকা।।।।
পরেরদিন সকালে ছাদে গেলাম অনেক্ষন ছিলাম
কিন্তু কাউরে দেখতে পেলাম না।।।
তাই নেমে যাই, তারপর রাতে আবার ছাদে
উঠি প্রায় ১১ টায়।।।।।
গিয়ে দেখি প্রিয়া আজ আগে থেকেই হাযির।।।।
ওর কাছে যাওয়ার পর ও বলে আমার
রিপ্লাই কই।।।।
আমি কি করবো কিছুই ভাবতে পারছিলাম না।।।
তখন পকেটে হাত দিয়ে দেখি একটা কেটবেরি
চকোলেট আমার চাচাতো বনের জন্ন্য
আনছিলাম।।।
তখন ওইটা দিয়েই রোমান্টিক ভাবে ওরে
প্রোপোজ করি।।।
সাথে সাথেই এক্সেপ্ট।।।।
তখন থেকেই জিবনের প্রথম ভালোবাসা শুরু
আমার।।।
আর আমার কাছে সব ছেয়ে অবাক লাগতো এইটা
দেখে ওরে কখনো আমি দিনের বেলায়
দেখতাম না আমাদের কথা সব সময় রাতে
হতো।।।।।
আর আরো কিছু কথা যেমন আমাদের ফোনে
কখনো কথা হতো না,
ওরে কখনো গুরাতে নিয়ে যেতে পারতাম না।।।।
এই সব সিমাবদ্দতার মদ্ধেই আমাদের প্রেম
চলছিলো।।।
একদিন আমি আর ওর কিছু কতপকোথন
আমিঃআমার সোনা পাখিটা আজ সারাদিন কই ছিলা গো।।।
প্রিয়াঃআমার বাবুটার কথা ভাবছিলাম সারাদিন।।।।
আমিঃতাই নাকি জানু।।।
প্রিয়াঃহুম।।।
আমিঃ আচ্ছা আমি চাইছি আমাদের ভালোবাসার কথা
আমাদের ফেমিলি কে যানাতে।।।।
প্রিয়াঃহুম যানাবো তবে এখন না আরো পরে।।
আমিঃপরে কেনো।।।।।
প্রিয়া ঃএখন আমার একটু প্রব্লেম আছে বাবু।।।।
আমিঃহ্যা আপনার তো ওই একটাই কথা প্রব্লেম আর
প্রব্লেম।।।
প্রিয়াঃআমার বাবুটা বুজি রাগ করছে।।
আমিঃ………………..
প্রিয়াঃএইজে আমার জানুসোনা কথা বলো না
কেনো।।।।
amiঃ…………
প্রিয়াঃউমমমমম মা।।।।।

আমিঃএইটা কি হলো।।।।
প্রিয়াঃ কেন আমি আমার জানরে গালে চুম্মন করছি
আর কি।।।।
আমিঃহয়।।।।
আচ্ছা চলো না আমরা গুরতে যাই,
সব প্রেমিক প্রেমিকারা কত কিছু করে কত যায়গায়
যায় কিন্ত তুমি এমন করো কেন।।
প্রিয়াঃবাবু আমি বল্লাম তো প্রব্লেম আছে।।।।।
আমিঃআমি এতো কিছু বুজি না কাল সকালে তুমি আমার
সাথে গুরতে যাবা নইলে আর কথা বলবো না
তোমার সাথে।।।
প্রিয়াঃআচ্ছা বাবা যাবো কিন্তু দিনে না রাতে।।।।
আমিঃএই না আমার সোনা পাখিটা উমমম মা।।।।।।।।।
যাও দুস্ট(প্রিয়া)।।।
পরেরদিন ৮ টা পর বের হলাম রাস্তা দিয়ে হাটতেছি
আর বাদাম খাচ্ছি দুজনে।।।রাস্তা টা একটু অন্ধকার।।।
তো ওইসময় আসে পাস দিয়ে অনেক লোক ই
আসা যাওয়া করছিলো।।।
আমি আর প্রিয়া কথা বলতে বলতে যাচ্ছি।।
হটাৎ আমি লক্ষ করলাম মাজে মাজে কিছু লোক
কেমন ভাবে যেনো আমার দিকে তাকাচ্ছে।।।
যেনো অদ্ভুত কোনো মানুশ দেখেছে
তারা।।।
যাই হোক আমি কিছু মনে নিলাম না
বাসায় আসতে আসতে ১০ টা বেজে যায়।।।
প্রিয়ারা থাকে দিতীয় তালায় আর আমরা প্রথম তালায়।।।
তো ওরে উঠিয়ে দিতে গেলাম কিন্তু ও আমারে
যেতে দিলো না বল্ল্য আমি একাই যেতে
পারবো তুমি যাও।।।
রুমে এসে খেয়ে দেয়ে ফ্রেশ হয়ে সুয়ে
পরি।।।
কিছুক্ষন আমার এক বন্ধুর কল আসে।।
কিরে কেমন আছত।।।
ভালো তুই কেমন আছত।।।
ভালো।।।
আচ্ছা তোরে তো কখনো ওই রাস্তার পারে
একা দেখি না তো আজ একা একা গেলি জে।।।।।
আমি কি বলিস আমি একা ছিলাম না তো আর একজন ও
ছিলো।।।।
কি বলিস আমি তো শুদু তোরে একাই হাটতে
দেখলাম আর কাউরে দেখি নাই।।
আরে তুই মনে হয় দেখছ নাই।।।
আরে আমি যা দেখছি তাই বলতেছি।।।
আচ্ছা বাদ দে এখন গুম আসছে পরে কথা
বলবো।।।
আমি ভাবতে লাগলাম সারাক্ষণ আমি আর প্রিয়া একসাথে
ছিলাম না দেঝার তো কোনো কথা ই না।।।
তখন ভাবলাম রাস্তায় অনেক অন্ধকার ছিলো তাই
ভোদ হয় দেখে নাই।।।
পরেরদিন ছাদে বাশি বাজাচ্ছি প্রায় রাত ১০ টা।।।
প্রিয়া আসলো।।
আমি কই থাকো সারাদিন দেখাই যাই না তোমারে।।।
প্রিয়াঃকাজ ছিলো।।।
আচ্ছা বাবুটা আমাদের বিয়ে হলে প্রথম সন্তান টা কি
হবে।।।।
এমন সময় আমার মা এসে হাজির আর বল্ল্য বিজয়।।।।
মাজখানে কিছুক্ষন চুপ থেকে রুমে আস
এখনই।।।।
মা চলে গেলো, প্রিয়াকে ওইদিন ও কিছু না বলে
চলে আসি।।।
মায়ের সাম্নে যাই।।।
তখন মায়ের কথা সুনে আমি পুরাই অবাক।

চলবে

1 COMMENT

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here