নীলপরী (পর্ব ১২)

0
1606

নীলপরী (পর্ব ১২)
#শান্তনা_ইসলাম_শান্তা
·
·
·
নীল ঃঃএই ছারো ছারো,


পরী জরিয়ে ধরেই কেনো??

নীলঃঃঐ যে খেজুর গাছের দিকে তাকিয়ে দেখো একটা লোক গাছে বসে আছে,,আমাদের দিকে তাকিয়ে আছে,,

পরী চট করে নীলকে ছেড়ে দিলো

পরী বললোঃঃআমি বাসায় যাবো(মাথা নিচু করে নরম স্বরে বললো)


নীলঃঃহাহা লজ্জা লাগছে বাবু??ধুর এতো লজ্জা পেতে হবে না,,,চলো আমরা ঐ দিকটা ঘুরে দেখি,,,,,বলেই নীল চট করে পরীর হাতটা ধরে হাটতে লাগলো।।।


পরীঃঃআরে বলদ এভাবে না,, এভাবে ধরতে হয় হাত বুঝলে(নীলের আঙুলের ভাজে আঙুল ঢুকিয়ে দিয়ে বললো)


পরীঃঃহাতটা ধরা শিখেন নাই আপনি??

।নীলঃঃতুমি আছোতো শিখিয়ে দেওয়ার জন্য,,, আর আমিতো আগে কখনো কারো হাত ধরিনি তাই পারিনা,

।পরীঃঃহুস,,,আমি বুঝি সবার হাত ধরে ধরে প্র্যাকটিস করে রাখছি??ফিল্ম বা সিরিয়াল দেখলেইতো জানা যায়,,,


নীলঃঃহুম তা ঠিকি বলিছো,,



নীল
এখনই জয়েন করুন আমাদের গল্প পোকা ফেসবুক গ্রুপে।
আর নিজের লেখা গল্প- কবিতা -পোস্ট করে অথবা অন্যের লেখা পড়ে গঠনমূলক সমালোচনা করে প্রতি মাসে জিতে নিন নগদ টাকা এবং বই সামগ্রী উপহার।
শুধুমাত্র আপনার লেখা মানসম্মত গল্প/কবিতাগুলোই আমাদের ওয়েবসাইটে প্রকাশিত হবে। এবং সেই সাথে আপনাদের জন্য থাকছে আকর্ষণীয় পুরষ্কার।

গল্পপোকার এবারের আয়োজন
ধারাবাহিক গল্প প্রতিযোগিতা

◆লেখক ৬ জন পাবে ৫০০ টাকা করে মোট ৩০০০ টাকা
◆পাঠক ২ জন পাবে ৫০০ টাকা করে ১০০০ টাকা।

আমাদের গল্প পোকা ফেসবুক গ্রুপে জয়েন করার জন্য এই লিংকে ক্লিক করুন: https://www.facebook.com/groups/golpopoka/?ref=share




পরী ঃঃএই এখানে একটু দাড়াও,,,

।নীল দাড়ালে,, পরী পাশের গোলাপ গাছের কিছু পাপরি ছিরে ফেলে নীলের সামনে হাটু গেড়ে বসে বসলো


নীল কিছু বলতে যাবে তার আগেই নীলকে চুপ করতে বললো,,


।পরীঃঃতোমার ইচ্ছে গুলো,, ইচ্ছেগুলো,৷ তোমার ইচ্ছেগুলো ইচ্ছে হলে, আমায় দিতে পারো,,,আমার ভালো লাগা ভালোবাসা তোমায় দিবো আরো,৷,,আই লাভ ইউ গোলাপি,,,এই এতততো গুলো ভালোবাসি তোমায়,,, আমি তোমার রঙে নিজেকে রাঙিয়ে নিতে চাই সারাটা জিবন,,,,,,, তুমি কি সারাজিবন তোমার ঐ বুকে মাথা রাখার অধিকার আমায় দিবে??আমি তোমার কলিজা হতে চাি,,করবে তোমার কলিজা???



নীল পরীর কথা শুনে অবাক,৷ হা করে তাকিয়ে আছে পরীর দিকে

।ে
পরীঃঃঐ গোলাপি আর কতোক্ষণ এভাবে হাটুগেড়ে বসে থাকবো,??পা ব্যাথা করছেতো আমার,,আমার প্রপোজটা একসেপ্ট করবেনা???


নীল চট করে পরীর হাত থেকে ফুলটা নিয়ে বললো

।ঃঃনীলপরি আমিও তোমায় ভালোবাসিগো,,,কোন মেয়ে যে আমায় এভাবে প্রপোজ করবে ভাবতেও পারিনি,৷ তুমি আমার থেকে হাজারগুন ভালো প্রপোজ করেছো,,,তেমার থেকে দেখছি সবকিছুই শিখতে হবে,,,



পরীঃ শিখাবো,, তবে একটা শর্তে,,

।নীল;ঃঃকি শর্ত???


পরীঃঃআমায় কোলে নিতে হবে,,,,কোলে নাও আমায়,,,

নীল ঃঃওরে বাবা এই আাটার বস্তাকে নিলে আমার মাজা ভেঙে যাবে

পরীঃঃকি আমি আটার বস্তা??একটু মোটা বইলা এই ভাবে অপমান করছেন,,,যান নিতে হবেনা,, আমি উঠবো না আপনার কো,লে,,


বলা শেষ না হতেই নীল পরীকে কোলে তুলে নিলো


পরীঃঃনামান আমায়,,,আমিতো আটার বস্তা তাই না??আপনারতো মাজা ভাঙবে,,আপনার কস্ট হচ্ছে নানান আমায়,,,


নীলঃঃনাহ নামাবো না, এই তোমার গালে কি যেনো লেগে আছে,,মনে হচ্ছে কোনো বিষাক্ত পোকা,,৷


পরীঃঃওরে বাবারে,,,,তাড়া তার এটাকে সরান,,,প্লিজ,৷ (চিল্লিয়ে বললো)


নীলঃঃচুপ করো,,, আমি দেখছি,,,বলেই নীল পরীর গালে একটা কিস করে,,

।পরীঃঃএটা কি হলো??


নীলঃঃপোকা চলে গেছেতো,,,


পরীঃঃদুষ্টামি করা হচ্ছে আমার সাথে তাইনা,,,,???নামাও আমায় কোল থেকে,,না নামালে রেগে যাবেো,,


নীল পরীকে নামিয়ে দিলো,,

।পরীঃঃএইতো গুড বয়,,এবারে আমার পালা,,


নীলঃঃতোমার পালা মানে??

।পরীঃঃওয়েট দেখাচ্ছি,, বলেই পরী নীলকে কোলে তুলে নিলো,,

। ১মিনিট পর নামিয়ে দিলো,,

।পরীঃঃওরে বাবা কতো ভারী আপনি,,,, একদম হাপিয়ে গেছি,,

নীলঃঃওহ মাই গড,,,, মেয়ে মানুষের গায়ে এতো শক্তি থাকে জানা ছিলোনা,,,৬৮৷ কেজি ওজনের ছেলেকে তুমি কোলে নিলে কেমনে??


পরীঃঃদেখলেনতো আমার কতো শক্তি,,জানেনতো,,ভাবি­­­রা আমায় বলে তুই মটু তোর বর চিকন হবে,,কোনদিন কোলে নিতে পারবেনা,,,তখন আমি বলতাম,, কে কোলে নিবে সেটা ম্যাটার করেনা,,,আমার বর না পারুক,,আমি পারলেই হবে,,বর না পারলে,আমিই বরকে কোলে নিয়ে ঘুরবো,,,কেলে নেওয়াটা মুল বিষয়,,,কে নিলে সেটা না,,


তাই আপনারে কোলে নিয়ে দেখলাম পারি নাকি,,,যদিও আপনি চিকন না,,একদম পারফেক্ট,,, সেজন্য আমারেও তুলতে পেরেছেন,,,


নীলঃঃআমাকে কোন মেয়ে কোলে নিবে এটা আমি ভাবতেও পারিনি,, তাও আবার আমার জিএফ আমায় কোলে নিছে,,আমারতো নাগিন ডান্স দিতে মন চাইছে,,


পরীঃঃতো ডান্স শুরু করো

।নীলঃঃ তুমিতো বরকে কোলে নিয়ে ঘুরতে চাইছিলে,,আমিতো বর না,,,চলো তাহলে বিয়ে করে ফেলি,,,


পরীঃঃকি??


নর
নীল কালেমা পড়ে বললো,,ঃঃআমি তোমারে আনার অর্ধাঙ্গিনী হিসেবে গ্রহন করতে চাই,,কবুল কবুল কবুল,,,এবারে তুমি বলো??


পরীঃঃআমিও আমার গোলাপির অর্ধাঙ্গিনী হতে চাই,,,,, বলেই পরীও তিনবার কবুল বললো।

পরীঃঃএবারে চলো,,বাসায় যেতে হবে,,


নীলঃঃহুন চলো


???


এভাবেই ,, নীল পরীর ভালোবাসার শুরু হয়,,



সারাদিন ঝগড়া রাগ অভিমান, হয়,,আবার ঠিক ও হয়ে যায়,,,যতো যায় হোক কেও কথা বলা বাদ দেয়না,,, ওদের একপলক দেখা হলেই সব রাগ ভেঙে যায়,,,


।আজানের শব্দে পরীর ভাবনার বিচ্ছেদ ঘটে,,,
নীলের সাথে কাটানো দেড় বছরের কথা ভাবতে ভাবতে যে ভোর হয়ে গেছে সেদিকে পরীর খেয়াল ছিলোবা,, পরী উঠে ফ্রেশ হয়ে,, নামাজ পড়ে বিছানায় এসে শুয়ে পড়লো,পরী ঘুমিয়ে গেলো,,,


মায়ের ডাকে পরীর ঘুম ভাঙে,,,ঘড়ির দিকে তাকিয়ে দেখে ১০টা বাজে,,
।??
।পরী তাড়াতাড়ি উঠে ফ্রেশ হয়ে কলেজে যাওয়ার জন্য রেডি হয়ে নিচে যেতেই মায়ের ঝাড়ি শুনলো,,পরী সেদিকে কান না দিয়ে খেয়ে, রওনা দিলো,,,,

পরী কলেজে গিয়ে ওর বেস্টু বৃষ্টির সাথে দেখা করলো,,,

।বৃষ্টি ঃঃএ
ঐ হারামি আমায় কালকে সকালে বললি কলেজে আসতে,,আর আমি আসলাম তোর কথা শুনে,,এসে দেখি তুই নাই,,,তুই আসিস নাই কেনো???


পরীঃঃরাগ করিসনা দোস্ত,, আমিতো কলেজে আসছিলাম বাট হঠাত গোলাপি ডাকলো তাই গোলাপির সাথে ঘুরতে গেছিলাম,,

।বৃষ্টি ঃঃএকটা কথা বলি,,কিছু মনে করিস৷ না,,,তুই আমার সব থেকে ভালো বন্ধু তোর খারাপ হোক না কস্ট পা,,,সেটা আমি মানতে পারবোন,না,,,,,রোজ রোজ এভাবে ঘুরতে যাস,,,এতো গভির রিলেশনে জড়াস না,,,,ছেলেদের এতো অন্ধ বিশ্বাস করিস না,,এরা ছলনাময়ী হয়রে,,,মিস্টি মিস্টি ভালোবাসার কথা বলে,,পরে বাশ দিয়ে চলে যায়,,,তোদের দেড় বছরের রিলেশনে ঝগড়ায় হয় বেশি,,আবার বিশের কোনন খবর নাই,,,ইদানিং তুই ওর সাথে বেশি ঘুরতে যাস,আমার ভয় লাগছে তোকে নিয়ে,৷ কেন জানিনা মনে হচ্চে বিশাল বড় ঝড় উঠবে তোর জিবনে,,আমি আগেও বলেছি এখনো বলছি যা করবি ভেবে,,,বিশ্বাস ভালো বাট চোখ কান বন্ধা করে না,,,একবার ট্রাই করে দেখিস,,




বৃষ্টির এসব কথা শুনে পরীর খুব রাগ উঠলো,,ঃঃদেখ আমি আমার গোলাপিকে চিনি,,ও অন্য ছেলেদের মতো না,,ও আমায় অনেক ভালোবাসে,,,,তোর সাথে আমার কথা বলতে ইচ্ছা করছেনা, বাই,,,


বলেই পরী ক্লাসে ঢুকলো,,,কিন্তু ক্লাসে গিয়েও মন বসছেনা,,,বৃষ্টির কথা ভাবাচ্ছে পরীকে,,পরী যে ভিষন ভালোবাসে ওর গোলাপিকে,,পরী গোলাপিকে হারাতে চাইনা,,, কাওকে ভালোবাসলে তাকে হারানোর ভয়টা যে থেকেই যায়,,,বৃষ্টি ও যে পরীর বেস্ট ফ্রেন্ড,, ও কখনো পরীর খারাপ চাইনা,
।।
।পরী ভাবছে,,তবে কি গোলাপিকে ট্রাই করে দেখা উচিত???


অনেক ভাবার পর পরী ডিসিশন নিলো গোলাপিকে ট্রাই করে ূ
দেখবে,,আসলেই নীল কেমন,,, পরী তা ট্রাই করবে,,,


পরী ফেইক আইডি খুলে নীলকে মেছেজ দিলো,,,সাথে সাথে রিপ্লাই আসলো,,পরী অবাক,,,চ্যাট অফ রেখে ফেসবুকে আছে,,,

।তারপর পরী কথা বলা শুরু করলো,,৷ নীল ও একের পর এক রিপ্লাই দিচ্ছে চ,পরী নিজের আইডি থেকেও মেছেজ দিলো,বাট মেছেজের উত্তর নাই,,সিন ও করছেনা,,অথচ ফেইক আইডির মেয়েকে ঠিকি রিপ্লাই করছে


পরী নীলকে ফোন দিলো,

নীল ফোন ধরেইঃঃআমি বিজি আছি,, আমার এক আংকেল মারা গেছে ওখানে আছি পরে কথা বলবো,,বলেই ফোন কেটে দিলো,,,,,


পরী তখনি ফেইক আইডি থেকে মেছেজ দিলো,, সাথে সাথে রিপ্লাই,,ফেইক আইডিতে গোলাপিকে লাভ ইউ বললো,,নীল লাভ ইউ টু বললো,,,

পরীর,,এটা

দেখে কস্টে বুকটা ফেটে যাচ্ছে,,,

।পরী কলেজে থেকে বেড়িয়ে সোজা বাসায় গিয়ে শাওয়ারের নিচে বসে৷ শাওয়ার অন করে কান্না করতে লাগলো,,

।পরীঃঃবৃষ্টি তুই ঠিকি বলেছিসরে আমার জিবনে ঝড় উঠবে,,আর সেটা যে এতো তাড়াতাড়ি ভাবতেও পারিনি,,, নীল তুমি অন্য মেয়েদের সাথে কথা বলো, তাতে আমার কস্ট হয়নি,,,বাট তোমার অন্য অচেনা মেয়ের জন্য সময় হয়, আর আমার জন্য হয়না,,৷?? আমিতো এতোদিন ভাবতাম তুমি সারাদিন কাজে বিজি থাকো ,, তাই কখনো দিনের বেলা তোমার সাথে কথা বলিনি,,, আর আজ বুঝলাম কত বিজি থাকো,,,আমার মেছেজটা সিন করলে না,,অথচ,,অচেনা মেয়ের সাথে খোস গল্প করতে মেতে থাকলে??ছি নীল ছি,,,



পরী,৩ ঘন্টা ধরে শাওয়ার নিচে বসে কান্না করলো,,

।পরীঃঃনাহ আমি আগেই কোন ডিসিশন নিবোনা, আমি নীলের সাথে কথা বলবো


পরী নীলকে কল দিয়ে বললো কাল যেনো যেভাবেও হোক দেখা করে,নীল প্রথমে রাজি না হলেও পরীর জোড়াজুড়িতে রাজি হলো


।পরীর রাতে আর ঘুম হলোনা,,সারাদিন কান্না করেই কেটে গেলো,,,

।পরের দিন নদীর পাড়ে ওরা দেখা করলো,,,,


নীলঃঃকি বলবে যে এতো জলদি আসতে বললে??

।পরী ঃঃকিছু কথা বলতে চাই,,বাট আপনিতো জানেন আপনার সামনে আসলে সবকথা গুলিয়ে যায়,,তবুও আজ বলবোই,,,যেভাবেই হোক,গুছিয়ে না বলতে পারলেও বলবো,,,


তারপর পরী নীলকে সব মেছেজ দেখালোচ,,

নীল চুপ করে রইলো,,,

।পরীঃঃকি অপরাধ আমার বলুন এবার.??আপনি কি আমায় ভালোবাসেনননাই কোনদািন,,, বলুন???


নীলঃঃতুমি ভুল বুঝছো


পরীঃঃহুম,,আমিও চাই আমার ধারনা ভুল হোক বাট,নিজেইতো প্রমান পেয়েছি,,,একটা কথা,,জানেনতো বাপেরো বাপ থাকে,,,চোরের দশ দিন গৃহস্থের একদিন,,,


নীলঃঃ(চুপ(

।পরীঃঃঅন্তত আজ একটা৷ সত্যি কথা বলবেন???
আপনি কি সত্যি আমায় কখনো ভালোাবাসেন নি????


নীলঃজেনেই গেছেো

তাহলে সব শুনো,,,আমি তোমায় ভালোবাসি না,,,,তোমার মতো এরকম হাজারটা মেয়ে আমার জি এফ,,,মেয়েদের সাথে গেম খেলি আমি,,এটা আমার নেশা,,,তবে যাদের সাথে রিলেশন করেছি সবার সাথেই ফোনে বা মেছেজে কথা বলেছি,,,কারোর সাথেই মিট করিনি,,শুধু তোমার সাথেই মিট করেছি,,,,আর তোমার সাথেই এতোটা গভীর,,,

।পরীঃঃকেনো করলে আমার সাথো এমনটা বলো??(কাদতে কাদতে)


নীলঃঃআমিও জিবনে ঠকেছি অনেক,,, তাই এখন ঠকাতে এখন ভালো লাগে,,,,,


পরীঃঃসত্যি ভালোবাসেন না আমায়???


নীল ঃঃনা

।পরীঃঃকখনো ভালোবাসেন নি??

।ঃঃনা

।একটুও ফিলিংস কখনো কি হয়নি আমার প্র,তি??

না হয়নি,,


তাহলে যে যখন তখন আমায় একপলক দেখাতে বাসার সামনে চলে যেতেন,,,সুযোগ পেয়েও আমার সুযোগ নিতেন,, সেগুলো কি ছিলো??

নীলঃঃভালোবাসা পেতো গেলে ওরকম পাগলামি করতে হয়,,তাহলে সহজে মেয়েদের মনে জায়গা পাওয়া যায়,,,আর আমি শুধু মন নিয়ে খেলেছি,,,শরীর নিয়ে না,,বুঝলে??
।।

পরীঃঃকখনো কি কাওকে ভালোবাসেন নি??
।।নীলঃঃবেসেছি আর এখনো ভালোবাসি,,

।নীলঃঃতাহলে তার কাছে যান না কেনো??

নীলঃঃসে আমায় বন্ধু ভাবে,, কেননা ও হিন্দু,,আমাদের রিলেশন সম্ভব না,,আমি ওর জন্য সব করতে পারবো,,বাট ও ওর পরিবারকে কস্ট দিতে পারবেনা,,তাই আমরা ভালো বন্ধু হয়ে আছি,,প্রায় য় ৪ বছর ধরে,,,।তবে ভালোবাসি দুজন দুজনকে।


পরীঃঃসেই মেয়ে জানে আমার কথা??

।নীলঃঃশুধু তোমার না সবার কথায় জানে,,

।কিছু বলেনা??মানা করেনা???

।নীলঃঃনাহ

বাহ,,দারুনতো মেয়েটার চিন্তা ভাবনা কারো,, মন নিয়ে খেলাটা যেন আপনার কাছে কোন ব্যাপারি না,,

।নীলঃঃহুম,,তবে তোমার সাথে অন্যায় টা বেশি করে ফেলেছি,, তার জন্য সরি,,আমায় মাফ করে দিও,,,আর ভুলে যেয়ো

পরীঃঃবাহ,,দারুব জুতা মেরে গরুদান করছো???,,আমার রিদয়,,আমার বিশ্বাস নিয়ে খেলে এখব সরি বলছো??সরি বললেই কি সব মিটে যায়,,,,,,???জানেনতো আপনি অন্য কাওকে ভালোবাসেন এটা শুনে আমার এতোটুকু কস্ট হয় নি,,কারন কেও কাওকে ভালোবাসতেই পারে,,আমি ভালোবাসাকে সম্মান করি,,,তবে কস্ট পেয়েছি আপনি যখন বললেন আমায় ভালোবাসেন না,,,এতোটা দিন আমার, সাথে থাকার পরেও ভালোবাসতে পারেন নি???,,আরে রাস্তার কুকুরের সাথে থাকলেওতো তার ওপর মায়া হয়ে যায়,,,আর আপনার আমার ওপর এতোটুকু মায়া ভালোবাসা হলো না????আপনি এতোটা নিষ্ঠুর??আপনার রিদয় কি দিয়ে তৈরি বলুনতো???কেন আমার রিদয়টা নিয়ে এভাবে খেললেন??কি ক্ষতি করেছিলাম আমি আপনার বলুন????

।নীলঃঃবললামতো আমি ভুল করেছি,,,হাত জোড় করে মাফ চাচ্ছি,,,ভুলে যাও আমায়


।পরী হঠাত করেই নীলের গলা টিপে ধরে

।নীলঃঃআহ,,কি করছো কি ছাড়ো??


পরীঃঃ,আজ তোকে মেরেই ফেলবো আমি,,,মেরেই ফেলবো,,,,,,(বলেই আরো জোড়ে গলা টিপে ধরলো)


নীল নিজেকে ছাড়ানোর চেস্টা করছে,,কিন্তু পারছেনা,,খুব জোড়েই গলা টিপে ধরেছে পরী,,,

একটু পর পরী নিজেই নীলের গলা ছেড়ে দিয়ে,,,কাদতে কাদতে নীলের পা চেপে ধরলো,,,,

।পরী;ঃঃকেন এমন করলে নীল,,কেনো এমন করলে??এক মুহুর্তে তোমায় ঘিরে সব স্বপ্ন আমার শেষ করে দিলে,,,কেনো এতো বড় আঘাত দিলে আমায়,,??আমি যে শেষ হয়ে গেলাম নীল,,,আমি যে শেষ হয়ে গেলাম,,,,আমারে কি একটুও ভালোবাসা যায় না??একটু যায় না,,,,,???


।পরী নীলের পা ধরে কাদতে কাদতেই কথাগুলো বললো,,,নীল চুপ করে দাড়িয়ে আছে,,,,

।পরী নীলের পা ছেড়ে উঠে দাড়িয়ে বললোঃঃভুলে যেতে বলছো??সবকিছু কি এতো সহজে ভুলে যাওয়া যায় বলো??প্রথম প্রেম কখনো ভোলা যায় না,,,সবাই বলতো প্রথম প্রেম নাকি খুব কস্ট দেয়,,আজ তার প্রমান পেলাম,,,,, তবে একটা কথা জানোতো তুমি ছলনা করলেও আমি করিনি,,,,আমার ভালোবাসাটা মিথ্যা ছিলোনা,,,এই পরী আর কোনদিন তোমার সামনে আসবে না,,,শেষ একটা কথা বলে রাখছি,,আমার মতো কেও তোমায় কখনো ভালোবাসতে পারবেনা,একদিন তুমি আমায় খুজবে,,,একদিন তুমি আমার ভালোবাসা পাওয়ার জন্য খুজবে আমায়,,,,কিন্তু তখন আর আমায় পাবেনা,কেননা তকন হয়তো আমি আর থাকবোনা,,পৃথিবীর মায়া ত্যাগ করে চলে যাবো সেই দুর অজানায়,,,,,

ভালো থেকো তুমি,,,সুখে থেকো,,,

বলেই পরী ওখানে আর এক মুহুর্ত দাড়ালোনা,,সোজা হাটা ধরলো,,

,

পরীর মাথা ঘুরছে,,,,কস্টে বুকটা ফেটে যাচ্ছে,,মনে হচ্ছে ওর কলিজাটা কেও ওর থেকে বার করে নিচ্ছে,,,পরীর বাসায় যেতে ইচ্ছা করছেনা,,,পৃথিবীর এই এতো মানুষের ভিরেও পরীর নিজেকে খুব একা মনে হচ্চে,,,,

পরীর মাথায় কাজ করছেনা,,,,চিল্লিয়ে কান্না করতে ইচ্ছা করছে পরীর,,,

পরী আর বাসায় গেলোনা,, পরী এখন নির্জন জায়গায় যেতে ইচ্ছা করছে,,যেখানে কোন মানুষের ভিড় নেই,,যেখানে থাকবে শুদু প্রকৃতি আর পরী,,,, তাই পরী হাটতে হাটতেই, রেললাইনের কাছে থাকা শ্বশান ঘাটের সামনে গিয়ে রেললাইনের ওপর বসলো,,,,,



,
,
পরীঃঃনীল তুমি কেন আমার ভালোবাসা নিয়ে এভাবে খেলা করলে??কি অপরাধ করেছিলাম আমি??? কি অপরাধ ছিলো আমাার??নিজের মন প্রান উজার করে ভালোবেসেছিলাম, এটাই কি আমার অপরাধ ছিলো??বলো নীল বলো??(পরী চিল্লিয়ে কাদতে লাগলো)


আজ পরীর চোখের জল বাধা মানছেনা,,,

। পরী কাদতে কাদতে বলছে,,,

,
,
পরীঃঃকতোটা বলদ আমি,, কতোটা গাধা আমি তা আজ বুঝলাম, এতোটা দিন তোমার সাথে থাকার পরেও কখনো মনে হয়নি তুমি নাটক করেছো,,,জানো নীল তুমি অভিনয়ে সেরা,,,সিনেমা করলে অনেক বড় কিছু হতে পারবে,,,,,,আচ্ছা নীল আমারতো তোমার ওপর রাগ ঘেন্না হওয়া উচিত,,কেনো পারছিনা আমি,,, কেন পারছিনা তোমায় ঘেন্না করতে??আমার জায়গায় অন্য কেও থাকলে তো তোমার মুখ দেখতে চাইতো না,,বাট আমার কেনো তোমার কাছে যেতে ইচ্ছা করছে বলতে পারো??কেনো তোমার বুকে মাথা রাখতে ইচ্ছা করছে??কেনো কেনো কেনো??



পরী নিজের চেখের জল মুছে বললোঃঃতুমি আমায় ভালেবাসোনা,,তাতে কি? /আমিতো বাসি,,সারাজিবন না হয় দুর থেকেই ভালোবেসে যাবে,,তুমিই আমার প্রথম ও শেষ ভালোবাসা হয়ে থাকবে সারাটাজিবন,,তোমার ভালোবাসা মিথ্যা হলেও আমারটা মিথ্যা ছিলো না,,,না বা পেলাম তোমায়,,তাতে কি??ভালোবাসলে যে পেতেই হবে এমনটাতো না,,,সব ভালোবাসায় পুর্নতা পেতেই হবে এমনটাতো না,,আমি না হয় দুর থেকেই ভালোবেসে যাবো,, এই পরীর ভালোবাসাটা না হয় অপুর্ন থেকে যাক,,৷, জানিনা কখনো ফিরবে কিনা,,তবে মানুষ আশা নিয়ে বাচে,,,মনের ভিতর একটু আশা সারাজিবন থেকেই যায়,,,আমিও তাই সেই আশা নিয়েই বাচবো,,অপেক্ষায় থাকবো তোমার জন্য নীল,,,৷
·
·
·
চলবে………………..

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে