নসীব পার্ট_৮

0
4209

নসীব পার্ট_৮
#Arobi_ArVy

কথাটা বলে চলে যাচ্ছি হঠাৎ নীলয় আমার হাত দুটো ধরে হাটু গেড়ে বসে বলতে থাকেন,,,
-Will you mary me,,,,তোমার অতীত বর্তমান আমি কিছুই জানতে চাই না,, আমি শুধু তোমার ভবিষ্যত হতে চাই,,

হাতগুলো ছাড়িয়ে চোখের পানি ফেলে বলতে লাগলাম,,,

-i am sorry আমার কোনো ভবিষ্যত নেই,,, তাছাড়া আমার ব্যাপারে আপনার কোনো ধারণাই নেই,,,,,
-আমি,,,,,

খালামনি নীলয়কে থামিয়ে দিয়ে বাড়ি থেকে বেড়িয়ে যেতে বলে।।নীলয় বারেবারে আমাকে কনভেস করার চেষ্টা করছেন।।কিছু না বলে চুপ করে দাড়িয়ে আছি ।।খালামনি সবটা ম্যানেজ করে নীলয়ের পরিবারকে যতটুকু সম্ভব অপমান করে বাড়ি থেকে বের করে দেয়।। যাওয়া সময় নীলয়ও বলে যান উনি আমাকে নিজের করেই ছাড়বেন এটা উনার চ্যালেঞ্জ ।।

খালামনি আমার উপর উনার সব রাগ ঝাড়েন।। উনার সন্দেহ হয় আমিই নাকি নীলয়কে ফুসলিয়ে -ফাসলিয় এমনটা করতে বলেছি সবকিছুই আমার প্ল্যান ছিল।।খালামনিকে কিছুতেই বোঝাতে পারছি না যে আমি নীলয়কে চিনি না পর্যন্ত।।

যাইহোক শাস্তি স্বরুপ খালামনি আমাকে অন্ধকার স্টোর রুমে আটকে রাখে।। আমি অন্ধকার ভীষণ ভয় পাই।। মনে হচ্ছে সাদা পোশাক পড়ে কেউ একজন আমার দিকে এগিয়ে আসছে ভয়ে গলা শুকিয়ে কাঠ হয়ে যাচ্ছে আমার রীতিমতো ঘামতে শুরু করেছি।। বারেবার সাহায্যের জন্য সবার কাছে অনুরোধ করছি কিন্তু কেউ দরজার লক খোলে দেয়ার সাহস পাচ্ছে না যেহেতু এটা খালামনির আদেশ।।

আবির অফিস থেকে ফিরে আমালে বলতে থাকেন,,,

-নীলা কালকের ফাইলটা নিয়ে আমার রুমে আসো,,,

গভীর রাত নিস্তব্ধ পরিবেশ।। নিজেকে খুব একা লাগছে বাবা মায়ের কথা মনে পড়ে খুব কান্না পাচ্ছে।। আজ যদি তারা বেচে থাকতেন ।।দরজার পাশে বসে বসে কথাগুলো ভেবে কাদতে থাকি।। হঠাৎ একজন আমার কান্নার আওয়াজ শুনতে পেয়ে দরজায় নক করে শিউর হচ্ছিলেন রুমে কেউ আছে কি না কেননা রুমটায় মানুষ থাকার জন্য একদম অনুপযোগী।।

কারো সাড়া পেয়ে আমার মধ্যে যেন আস্থা ফিরে এলো আকুতি মিনতি করে দরজাটা খুলে দিতে বললাম।। লোকটাও আর দেরী করল না দরজাটা খোলে দিয়ে আমাকে দেখে অবাক হয়ে তাকিয়ে আছে,,,,

-তুমি?? ওয়েট ওয়েট তুমি না আজকে নিপার বাড়িতে থাকবে বলেছিলা তাহলে গভীর রাতে এখানে কি করছ,,,

ভয়টা এত বেশি জমা হয়ে ছিল যে আবিরকে দেখে নিজেকে আর কন্ট্রোল করতে পারলাম না উনাকে জড়িয়ে ধরে কাদতে লাগলাম।। কথা বলতে পারছি না ঠোঁট দুটো কাপছে।।

-কি সমস্যা তোমার,,,
-খালামনি আমাকে আটকে,,,
-ও আচ্ছা তাহলে আম্মু এমনটা করেছে নিশ্চয়ই তুমি বেয়াদবী করেছ তাই না,,

আমার অবস্থা দেখে উনি আর বেশি কিছু বললেন না।। খালামনি আমার থাকার রুমটাও লক করে রেখেছেন।।

-ও নো আম্মু তো তোমার রুম লক করে রেখেছে,
-কোথায় থাকব আমি,, আপনে একটু রিকুয়েস্ট করেন খালামনিকে প্লিজ,,,(কাদতে কাদতে)
-আর ইউ মেড এত রাতে আম্মুকে ডাকব ??
-তাহলে কি হবে,,
-হুমমম একটা উপায় আছে,, যদি তুমি চাও,,
-কি উপায়,
-আমার রুমে আমার সাথে থাকতে পারো, ,,
-অসম্ভব কল্পনাও করবেন না কোনোদিন,,,
-ওকে কল্পনা করব না বাস্তবে করব,,,এখন হেপ্পি তো,,
-চুপ,,,

শেষমেশ সিদ্ধান্ত হল আমি উনার রুমে থাকব কিন্তু আমি মেঝেতে আর উনি বিছানায়।।।

সকালে খালামনির চেচাঁমেচিতে ঘুম ভাঙলে চোখ খোলে নিজেকে বিছানায় আবিষ্কার করি আর আবির সোফায়।।
খুব নিষ্পাপ মায়াবী একটা চেহারা।।আমার সন্তানের পিতা।। কিন্তু এই মানুষটার জন্যই আমার বাবা আজ কবরে।। আমি চাইলেও উনার মায়ায় নিজেকে জড়াতে পারবো না।। উনি একজন খুনী।।

নিপা এসে আবিরকে ডাকছে খালামনি নাকি ভীষণ রেগে আছেন আমাকে স্টোর রুমে না পেয়ে।।

-স্যার তাড়াতাড়ি আসুন নীলা ম্যাম কোথায় যেন চলে গেছে,,, স্যার

আবির আমার হাতটা ধরে সিড়ি বেয়ে নিচে নামতে দেখে খালামনি চোখগুলো বড় বড় করে আমাদের দিকে হা করে তাকিয়ে আছেন,,,,

-এ মেয়ে তোর সাথে কেন আবির,,
-কেন কোথায় থাকার কথা ছিল আম্মু ঐ অন্ধকার অপরিষ্কার রুমটাতে,,,
-মানে,,,
-আম্মু ওঁ একজন মানুষ,,
-লক তুই খোলে দিয়েছিস,,বিশ্বাস করতে পারছি না আমার ছেলে এই মেয়ের সাইড নিয়ে কথা বলছে,,, ,আমার ছেলে,,
-হ্যা আমি করেছি,,, শুধু ওঁ না ওর জায়গায় নিপা থাকলে আমি এটাই করতাম,,,,

খালামনির বান্ধবী সন্দেহের দৃষ্টিতে তাকিয়ে বলতে থাকেন,,,

-নীলার রুম তো লক,, তাহলে নীলা সাড়া রাত কোথায় ছিল ,,,,

আবির নির্দিধায় বলে উঠেন,,,,
-কেন আমার রুমে আন্টি,,
-ছ্বি ছ্বি ছ্বি আবির বিয়ের আগেই এসব,,,

-আবির,,,,,,(তরী আবিরের দিকে নিথরভাবে তাকিয়ে)

তরীকে দেখার জন্য কেউ প্রস্তুত ছিল না।। খালামনি রীতিমতো মাথা ঘুরিয়ে মাটিতে পড়ে যায়।। উনার সোনার ডিম দেয়া রাজহাঁস এক্ষুনি হাত ছাড়া হয়ে যাবে এটা কি মেনে নেয়া যায়।।

চলবে,,,,

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here