ডিটেকটিভ রনি পর্বঃ০১

1
2061

ডিটেকটিভ রনি পর্বঃ০১
#রহস্য_উদঘাটন
– আবির খান

(ওসি)জাহিদ সাহেবঃ নাহ এভাবে আর পারছি না..কি মারাত্মক ভাবে মানুষগুলোকে মেরেছে..দেখলে আমারই গা শিহরে উঠে…
কামালঃ স্যার এই নিয়ে ৫ম বার এই হোটেলের কেইস পেলাম..
জাহিদ সাহেবঃ হুম..কিন্তু কে যে এই রহস্যজনক হত্যা কান্ড চালাচ্ছে আল্লাহ ভালো জানে…
কামালঃ জ্বি স্যার…এতো ইনভেস্টিগেশন করলাম তাও একটা কুলু খুজে পেলাম না হত্যাকারীর…
জাহিদ সাহেবঃ এভাবে চললেতো আমাদের ডিপার্টমেন্টের অনেক বদনাম হবে কামাল…
কামালঃ আসলেই স্যার..খুব ঝামেলা আছে এই কেইসে…
জাহিদ সাহেবঃ হুম তাইতো দেখতাছি..
কামালঃ স্যার একটা কথা বলি??
জাহিদ সাহেবঃ হুম বলো…
কামালঃ স্যার এই রহস্যময় হত্যাকান্ডের কেইসে একমাত্র একজন ডিটেকটিভই আমাদের সাহায্য করতে পারবে…
জাহিদ সাহেবঃ কে সে???
কালামঃ ডিটেকটিভ রনি…
জাহিদ সাহেবঃ সেই কেন পারবে বলে তোমার মনে হচ্ছে???
কামালঃ কারন স্যার সে এধরনের অনেক কেইসই খুব তারাতাড়ি সলভ করে ফেলেছে পূর্বে…
জাহিদ সাহেবঃ আচ্ছা তাহলে ডাকো তাকে…
কামালঃ ওকে স্যার…

পরের দিন…
কামালঃ স্যার ডিটেকটিভ রনি এসেছেন..
জাহিদ সাহেবঃ আচ্ছা তাকে ভিতরে নিয়ে আসো….

কামাল ডিটেকটিভ রনিকে নিয়ে ভিতরে আসলো..ওসি সাহেব দেখলো ২৬/২৭ বছরের একটা ডগি পেন্ট পড়া ছেলে..রনি ঘুরে ঘুরে দেখছে আর আপেল খাচ্ছে…জাহিদ সাহেব রনিকে দেখেতো পুরা অবাক…

জাহিদ সাহেবঃ কামাল তুমি কি আমার সাথে মজা করছো..ওতো একটা অল্প বয়সের ছেলে..
কামালঃ না স্যার উনিই ডিটেকটিভ রনি…
জাহিদ সাহেবঃ তুমি আসলেই একটা পাগল… ওর মতো পিচ্চি ছেলে কি কেইস সলভ করবে..আর ওকে দেখেতো কোনো দিক থেকেই ডিটেকটিভ মনে হয়না…

এবার রনি বলতে শুরু করলো হাটতে হাটতে…
ডে.রনিঃ জাহিদ সাহেব আপনার স্ত্রী কিন্তু কালকে ইচ্ছা করে লবণ বেশি দেয়নি…আপনার তার সাথে ওমন ব্যবহার করা ঠিক হয়নি..আপনার এখনই তার কাছে মাফ চাওয়া উচিৎ… না হলে সে কিন্তু এখন ব্যাগ গুছিয়ে চলে যাবে…

জাহিদ সাহেব অবাকের সাত আসমানে পৌছে গেলেন..কারন হ্যা কাল রাতে তিনি তার স্ত্রীকে অনেক বকেছিলেন..কিন্তু ও কি করে জানলো..

ডে.রনিঃ এখনই তাকে ফোন দেন..না হলে দেরি হয়ে যাবে কিন্তু…

জাহিদ সাহেব তারাতাড়ি তার স্ত্রীকে ফোন দিলেন..
জাহিদ সাহেবঃ রুমি তুমি ব্যাগ গুছিয়ে কই যাচ্ছো??
রুমিঃ বাপের বাড়ি কিন্তু তুমি জানলে কি করে??

জাহিদ সাহেব এবার চোখ বড় বড় করে রনির দিকে তাকিয়ে আছে আর কথা বলছে..আর এদিকে রনি জাহিদ সাহেবের দিকে তাকিয়ে মিটি মিটি হাসছে..

জাহিদ সাহেবঃ রুমি আসলে কাল রাতের জন্য আমি অনেক সরি…আমাকে মাফ করে দিও…আমি বুঝতে পারিনি যে কাল আসলে সত্যিই তোমার দোষ ছিলোনা…আমাকে মাফ করে দেও…এবারই লাস্ট..
রুমিঃ সত্যিতো??
জাহিদ সাহেবঃ তিন সত্যি..
রুমিঃ আচ্ছা..

জাহিদ সাহেব ফোনটা রেখে এবার একটু ভালো করে বসলেন..
জাহিদ সাহেবঃ বসুন রনি সাহেব…আসলে আপনি কি আমি বুঝতে পারি নি..
রনি বসতে বসতে বলল..
ডে.রনিঃ আরে কি করছেন আমাকে আপনি করে বলছেন কেন..প্লিজ তুমি করে বলবেন…আমি আপনার অনেক ছোট…
জাহিদ সাহেবঃ আচ্ছা রনি..এখন এই কেইসের বিষয়ে আসি..
ডে.রনিঃ আমি সব জানি..আসার আগে সব ইনফরমেশন জেনে এসেছি..৫ টা হত্যাই একি রকমভাবে করা হয়েছে..হ্যা আসলেই এই কেইসটায় অনেক ঝামেলা আছে..

জাহিদ সাহেব আবারও অবাক হয়ে গেলেন…কারণ এবার তিনি কোন প্রেস-মিডিয়াকে খবর দেননি তাহলে এ এতো কিছু জানে কিভাবে…এই কেইসের চেয়েতো ওকেই বেশি রহস্যময় লাগছে..
ডে.রনিঃ হাহা জাহিদ সাহেব সবই যদি না জানি তাহলে আর কিসের ডিটেকটিভ…
জাহিদ সাহেবঃ আরে তুমিতো দেখি মনের কথাও শুনতে পারো…
রনি হাসছে শুধু..

জাহিদ সাহেবঃ কামাল তুমিতো সাংঘাতিক লোককে নিয়ে এসেছো..
কামালঃ জ্বি স্যার…আমার বিশ্বাস উনিই পারবে এই কেইস সলভ করতে..
জাহিদ সাহেবঃ তা রনি কবে থেকে এই কেইস হাতে নিচ্ছো??
ডে.রনিঃ পরশু… কারণ কাল একটা ক্রিকেট ম্যাচ আছে আমায় যেতে হবে..তাহলে আমি আজ উঠি…
জাহিদ সাহেবঃ আচ্ছা…অবাক হয়ে…
বলেই রনি উঠে বেরিয়ে গেলো…
জাহিদ সাহেবঃ কাম…
রনি আবার একটু ভিতরে এসে..
ডে.রনিঃ জাহিদ সাহেব বাসায় যাওয়ার সময় কয়েকটা গোলাপ নিয়ে যেয়েন..বলেই হাসতে হাসতে চলে গেলো…..

চলবে… ?

1 মন্তব্য

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে