গল্প : দুষ্টু বউ (৪র্থ ও শেষ পর্ব)

0
1142

গল্প : দুষ্টু বউ (৪র্থ ও শেষ পর্ব)

–চলে গেছে মানে? (আমি)
.
–হ স্কুলে চলে গেছে। কি নাকি কাজ আছে।(আম্মু)
.
–আচ্ছা। আমি তাহলে যাই।।

রিক্সা করে স্কুল যাচ্ছি, আজ মনে হচ্ছে রিক্সা চলছে না।। রাস্তাও বুঝি আর ফুরোচ্ছে না।। কি কাজ থাকতে পারে ওর?
না তেমন কোন কাজওতো নেই,, আর প্রাইভেট স্যারেরতো আজ পড়া নাই।।
তবেকি কারো সাথে দেখা করতে আসছে,, মেজাজটা বেশ খারাপ হচ্ছে।।
রিকসা থেকে নেমে ভাড়া দিচ্ছি-
.
–মামা এই নাও
.
–কত দিলেন মামা?
.
–কেন ১৫ টাকা
.
–মামা ২০ টাকা তো।।
.
–১৫ টাকা দিছি ওটাই রাখো
.
–মামা আপনে ২০ টাকাইতো দিতে চাইছেন।।
–দুর রাখো।।

কখনো রিকসা ওয়ালা মামাদের সাথে, উচু গলায় কথা বলি না, কিন্তু কেন যানি আজ বকা দিলাম। পরে আবার গিয়ে ৫ টাকা দিয়ে আসলাম।।
ক্লাসে ঢুকে যে সিন দেকলাম তা দেখে মাথা গরম হয়ে গেলো।।
আমার বউ অন্য ছেলের সাথে হাসি তামাসা করছে।। কেমন কাছে গিয়ে কথা বলছে।।
ওদের মাঝেকি তবে কিছু আছে?
ওরাকি তবে একে অপরকে,,,,,
.
না না কি সব ভাবছি আমি, আর ও চলে গেলেতো আমার খুশি হওয়ার কথা।। আমার এমন লাগছে কেন।। কেমন যেন মনে হচ্ছে, যেমনটা প্রিয় কোন জিনিস হারালে লাগে।। ভাবতে ভাবতে গিয়ে সান্তাকে ডাকলাম-
.
–সান্তা, শোন
আমার দিকে তাকিয়ে মুখ ঘুড়িয়ে নিলো,, মনে হলো আমি যেন বিরক্ত করছি ওকে।।
–সান্তা,, এইদিকে শোন
.
–কি হইছে? (একটু রেগেই বল্লো)
.
–এদিকে একটু শোন
.
–যা বলার এখানেই বল।।
.
–না কিছুনা।।
.
বলেই চলে আসলাম।। আমি কি কম নাকি, গিয়ে টিনার সাথে আমিও হাসি তামাশা শুরু করে দিলাম। বেশ অনেক ক্ষন ধরে হাসি তামাসা করছি কিন্তু ও কোন রকম রিসপন্স করলো না।। আজ ওর মাঝে আর রাগ দেখতে পেলাম না। আজ আর চোখ গরম করলো না, বেশ স্বাভাবিক ভাবেই বসে আছে।। তবেকি সত্যি ও ঐ ছেলেটার সাথে কোন রিলেশনে জড়িয়েছে?
.
কেন জানি আজ আর ক্লাসে মন বসছে না, যে মেয়ে দিনে অনেক বার তাকাতো সে আজ ভুলেও একবার তাকায়নি।।
.
স্কুল ছুটির পর বাসায় যাবো, কিন্তু রিকসা পেলাম না।। তাই দুজন হেটেই যাচ্ছি আর মাঝে মাঝে কথা বলছি–
.
–ঐ ছেলেটা কে রে?
.
–কেও না
.
–ও,, পছন্দ করিস?
.
–তাতে তোর কি?
.
–না এমনি,, তোদের ভাল মানাবে
.
–জানি,, ও কাল ওর আম্মুকে আমার কথা বলবে।।
.
–এত ফাষ্ট তোরা?
.
–হুম
.
–আমার উপর রেগে আছিস?
.
–কেন? রাগ করবো কেন?
.
–না, এমনি মনে হলো,, আজ যে বিছানা ভিজালি না, দুষ্টমিও করলি না।।
.
–কে বলছে করি নি,, আজ ওরে (ঐ ছেলে) কিল দিছি পিঠে।।
.
–ও,, আচ্ছা তারাতারি হাট
.
কেন যানি খুব খারাপ লাগছে, আজ ও অন্য কারো সাথে দুষ্টোমি করছে।। কিছু ভাল লাগছে না।। বলতে ইচ্ছে করছে, সান্তা তুই আমার সাথে দুষ্টমি করবি, আর কারো সাথে না।। কিন্তু সে সুযোগটা হয়তো আর নেই।।
.
বাসায় গিয়ে দেখি খেয়ে দেয়ে দেখি সান্তা ব্যাগে কাপড় গুছাচ্ছে।।
.
–কিরে কই যাস? (আমি)
.
–কাল বাড়ি যামু
.
–কেন?
.
–তোগো বাড়ি থাইকে তোরে দিসটাব কইরে লাভ নাই।। কাল আম্মু আব্বু আসবো।।
.
–তুই কোথাও যেতে পারবি না।
.
–আমাকে যেতেই হবে।।
.
কেন যানি জোর করতে পারলাম না, কারন এ বাসা থেকে যাওয়ার কারনটা যে আমি।। খুব কষ্ট হচ্ছে।। বুকের ভেতরটা কেমন যেন করছে,, কাঁদতে পারছি না।। আম্মুর কোলে মাথা রেখে কাঁদতেছি আর আম্মু বলছে
.
–কিরে কি হইছে?
.
–আম্মু অনেক পেট ব্যাথা করছে। (সত্য কথাটা বলতে পারলাম না যে সান্তার জন্য খারাপ লাগছে)
.
–পানি দিয়ে ঔষধটা খা।।
.
–না খাবো না, এমনিতেই চলে যাবে।।
.
রাতে আর খেলাম না, শুয়ে পড়লাম।। সান্তা আমার পাশে আর একটা কম্বল নিয়ে শুয়ে আছে।। কেও কিছু বলছি না। অনেক ক্ষন পর আমিই কথা শুরু করলাম।।
.
–সান্তা,,,,,,,,,, ওই সান্তা,,,, ঘুমাইছিস?
.
–কি হইছে বল।।
.
–কালকি সত্যি তুই চলে যাবি?
.
— হ,, থাইকা কি করুম বল।।
.
–হ তাইতো,,
.
(বলেই কাঁদতে শুরু করলাম)
.
–অই পাগল কাঁদস কেন?
.
–না কাদি না এমনি।
.–কান্না থামা,, আমি কোথাও যামু না,, ওই পাগল, কান্না থামা
.
–তাইলে ক কাল যাবি না।।
.
–কাঁদলে যামুগা।।
.
–না কাদুমনা।।
.
–তুই একটা পাগল।। তোরে ছাইড়া কই যামু
.
–হ,,,, সকালে তাইলে ঐ পোলা কেরা আছিলো।
.
–ও আমার খালাতো ভাই, আমার মেঝ খালার ছেলে।
.
–আমি কিছু জানিনা, কারো সাথে কথা বলবি না।।
.
–নিজে যে টিনার সাথে…
.
–তোরে চেতাইবার লিগাই তো।।
.
–হ আমিও বুঝছি, এর জন্যইতো খালাত ভাই আর আমি মিলা এই প্লেন করছি।।
.
–ইও,, দুষ্টু
.
—না দুষ্টি,,
.
–তাহলে বল আর দুষ্টামি করবি না
.
–না করুম না।।
.
সেদিন একটা কম্বাল ছুড়ে ফেলে দুইজনে
এক কম্বলেরই নিচে,, আমার উপর দিয়ে ও পা দিয়েছে আর আমি ওর উপর দিয়ে হাত দিয়ে দুজন দুজনকে জড়িয়ে ধরে শুয়েেআছি। কেন জানি খুব ভাল লাগছে।।নিজেকে পরিপূর্ন লাগছে।।
যাক বাচা গেলো, কাল থেকে তবে আর দু্ষ্টোমি করবে না,, আর চলেও যাবে না।
ভাবতে ভাবতে ঘুমিয়ে পড়লাম।।
সকাল বেলা আবার ওর সেই চিল্লাচিল্লি শুনে ঘুম ভাংলো।।
.
–আন্টি আন্টি দেখে যাও,,দেখে যাও আন্টি তোমার ছেলে কি করছে।।
.
–কি করছে মা? ( আম্মু)
.
–এই দেখো আন্টি, তোমার ছেলে আমার কামিছ পড়ে বসে আছে।।
.
হায় হায় এটা কি হলো, আমি কামিছ পড়লাম কিভাবে।। হায় হায় ইজ্জত বুঝি গেলো।। না না এটা আমি পড়ি নি।।
এটা নিশ্চই অন্য কেও করেছে, এটা নিশ্চই ওর কাজ, মানে আমার “দুষ্টু বউ “এর।।।
সমাপ্ত
.
(বিঃদ্রঃ বাল্য বিবাহ আইনত অপরাধ।
.
কিছু কথা– গল্পটার স্থান, পাত্র, ঘটনা সবই কাল্পোনিক।।তাই কারো সাথে কিছু মিলে গেলে বা অনুভুতিতে আঘাত হানলে আমি কোন ভাবেই দায়ী নই।। বানান সহ বিভিন্ন ভুল ক্ষমা করে দিবেন)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here