গল্প : দুষ্টু বউ (৩য় পর্ব)

0
1028

গল্প : দুষ্টু বউ (৩য় পর্ব)
.
-আন্টি আন্টি দেখে যাও, তোমার ছেলে বিছানা নষ্ট করে ফেলেছে।। এই বুড়া বয়সে।।
–কি করছিস এটা? (আম্মু)
.
–কিছু করি নি তো,,
.
–তাহলে বিছানা ভেজা কেন?
.
— ও ভিজাইছে।
.
–ও ভিজাইলে ওর জমা ভেজা থাকবো, তোর প্যান্ট ভেজা কেন?
.
— আন্টি আগে বলতা তোমার ছেলের এ অভ্যাস আছে, তাহলো আমার ভাতিজার পেমপার্স নিয়ে আসতাম,, পড়ে ঘুমাইতো।। (সান্তা)
.
–তুই কিন্তু বেশি কথা বলস (আমি)
.
–ইইইই বিছানা নষ্ট করতে পারবা, কেও বলতে পারবো না।
.
বলতে বলতে দুজনে রুম থেকে চলে যায়, যাওয়ার আগে কি যেন ইঙ্গিত করে সান্তা।। কিন্তু কি তা বুঝলাম না।।
তাহলেকি সত্যি সত্যি বিছানা নষ্ট করে দিলাম,, খাটের তলা থেকে স্যান্ডেল বের করতে গিয়ে দেখি খালি পানির জগ, তার মানে বজ্জাতটার কাজ।।
কিসের পাল্লায় পড়লামরে ভাই।।। ভাবতে ভাবতে গোসল করে স্কুলের জন্য রেডি হতে হতে
৮.৩০ বেজে গেছে। । বিয়ের পর প্রথম স্কুল আজ।।
দুইজনে রিকসায় যাচ্ছি।। রিকসাটাও যেন ওর দখলে।। কোন রকম একটু বসে যাচ্ছি আর রিকসাওয়ালা বল্লো।।
.
–মামা গালফ্রেন্ড নাকি?
.
–গালফ্রেন্ড হলেতো ব্রেক আপ কইরা বাইচাই যাইতাম।। (আমি)
.
–তাইলে কি?
.
–এইডে আমার দজ্জাল বউ।।
.
–অই তুই আমারে দজ্জাল কইলি কেন?(সান্তা)
.
–তোরে কি কইবো?
.
–মামা কওতো আমার মত সুন্দরি মেয়ে ওর মত বাদর মার্কা পোলায় পাইবো?
.
. (রিকসাওয়ালা আমাদের দিকে ঘুড়ে তাকিয়ে)
.
–না পাইবো না।
.
হায়রে কপাল, রিকসাওয়ালা মামাও ওর পক্ষ নিলো। কোথায় যাবো।। নাহ আর না ওরে আমি মজা দেখাবো।।
.
–অই তুই ঐ মায়ার দিকে তাকিয়ে ছিলি কেন?
–কই নাতো।।
.
— হ তাকিয়ে ছিলি। দেক কারো দিকে তাকাবি না, নইলে তোর খবর আছে।।
.
আমি অন্য কারো দিকে তাকালে অনেক রাগ করে,, তাহলে অন্য কারো সাথে প্রেম করতে দেখলে কি অবস্থা হবে।। ও ইয়েস,, দাড়াঁও মেয়ে তোমার প্রতিষোধ নিচ্ছি।।
.
স্কুলে সেরা ১০ সুন্দরিদের মধ্যে ও নিজেও আছে। আর কাটা দিয়েই কাটা তুলতে হবে।।। টিনাও সেরা সুন্দরিদের মধ্যে ১ জন।। তবে টিনার সাথে আজ থেকে প্রেম করবো,, টিনা আমাকে আগে থেকেই পছন্দ করে। ওর সাথেই রিলেশন করবো।। এ মেয়ের সাথে সংসার করা যাবে না।
.
স্কুলে গিয়েই টিনার সাথে ঘেসে ঘেসে কথা বলছি, আর হাসাহাসি করছি দুজন।। আরেক জন লুচির মত ফুলতেছে।। এটাইতো চেয়েছিলাম।। যাক বাচা গেছে স্কুলের কেও জানে না যে আমাদের বিয়ে হইছে।।
.
স্কুল ছুটির পর আবার রিকসায় বাড়ি যাচ্ছি,, কিন্তু এবার আর কথা নেই।।মাথা নিচু করে বসে আছে।। বাসায় গিয়েই আম্মুকে বলছে।।
.
–আন্টি আমি বাসায় যাবো।।
.
–কেন বাসায় যাবে কেন? তোমার আব্বু আম্মুতো হজ্জ থেকে আসে নি।। তুমি একা বাড়িতে। না না এখানেই থাক।।
.
–না আন্টি আমি বাসায় যাবো..
.
— পাজিটা কিছু করছে?
.
–না
.
— বকছে?
.
–না,, এমনিতেই বাসায় যাবো।।
.
–কোথাও যাওয়া হচ্ছে না।। কাপড় ছেড়ে গোসল করে খেতে আস।।
.
আম্মুর কথায় বাধ্য হয়ে থাকছে।। আমার কি, গেলে ভাল হতো বেঁচে যেতাম।। সাবধানে থাকতে হবে, আবার কোন মতলব আটছে জানিনা।।
.সেদিনের মত রাতে খেয়ে দেয়ে ঘুমাতে গেলাম। খেতে বসে ওকে দেখা যায় নি,, রুমে এসে দেখি ও আলাদা কম্বল নিয়ে শুয়ে আছে।। আজ কম্বল ভিজায় নি, কোন মতলবও করে নি।। যাক বাবা আজ শান্তিতে ঘুমানো যাবে।। কিন্তু ঘুম যেন আসছে না।। দুষ্টমি করলো না কেন? ওর দুষ্টমিতে একটু একটু রাগ হলেও বেশ ভালই লাগতো।। আজ ভাললাগাটা মিছ করছি।।
আজ আর ঘুম আসলো না। মধ্যরাত হয়ে গেছে কিন্তু ঘুম আসলো না।। আজ ওর পাঁ’টাও আমার উপর দিয়ে দেয় নি।। আমার উলটো দিকে মুখ করে শুয়ে আছে।। যাক বাবা ঘুমাই সকাল সকাল ওর আগে উঠতে হবে নইলে আবার কোন কান্ড করে বসবে।।
.
সকালে উঠতে উঠতে তাও ৮টা বেজে গেছে।। কাজ সেরেছে আজ আবার কি করেছে,, বিছানা চেক দিলাম, না ভেজা না।। আয়নার সামনে গেলাম, না মুখেও কিছু নেই।। কেন জানি খুব খারাপ লাগছে।। মনে হচ্ছে কি যেন নেই।। সবকিছুর মাঝেও কি একটা যেন নেই।। ভাবতে পারছি না।।
.
গোছল করে স্কুলের জন্য রেডি হয়ে ৯ টায় নাসতা করতে বসছি। কিন্তু ওকে দেখলাম না।। কেন যেন খুব জানতে ইচ্ছে করছে দুষ্টুটা কোথায়।।
.
–আম্মু,,
.
–কি বল?
..
–না কিছু না।।
.
–ওকে খা,,
.
–আম্মু, সান্তা কই? দেখছি না যে।
.
–ও তো চলে গেছে…
.
৪র্থ পর্ব দ্রষ্টব্য

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here