একবৃষ্টিরদিনে  পার্ট: ১

0
3625

একবৃষ্টিরদিনে

পার্ট: ১

#Rabeya Sultana Nipa

_সকাল থেকে খুব বৃষ্টি পড়ছে।এখন বিকাল ৫ টা। এখন বৃষ্টি একটু কমেছে। অফিস শেষ করেই আয়ান বাহিরে বেরিয়ে গেলো বাসায় যাওয়ার জন্য।একটু যাওয়ার পরেই আবার বৃষ্টি শুরু হয়ে গেলো।বৃষ্টি দেখে একটা বাসার নিছে দাঁড়িয়ে আছে আয়ান।একটু পরে একটা মেয়ে এসে পাশে দাঁড়িয়েছে। আয়ান অবাক হয়ে শুধু মেয়েটাকেই দেখছে।কারণ এতো মেয়ে দেখেছে কিন্তু সুন্দর মেয়ে সে আগে কখনো দেখেছে বলে মনে হয়না।আচ্ছা আমার সামনে কি পরি দাঁড়িয়ে আছে নাকি এই বৃষ্টির মাঝে?
কিছুক্ষণ পর বৃষ্টি থামতেই মেয়েটা চলে গেলে।কিন্তু আয়ানের মনে এক অনুভুতি কাজ করছিলো এক ভালোলাগার।
আয়ানও বাড়িতে আসলো কিন্তু মন পড়ে রইলো সেই মেয়েটার উপর।

এতোক্ষনতো আমার ভালোকরে পরিচয়টা দেওয়া হলোনা।আমি আয়ান। পড়ালেখা শেষ করে বেসরকারি একটা জব করতেছি।আমি বাবা মায়ের একমাত্র সন্তান। বাবা বিজনেসম্যান। বাবা সবসময় চায় আমি বাবার বিজনেস সামলাই।কিন্তু আমার ইচ্ছে আমি নিজে কিছু করতে চাই।যাই হক এইবার কাজের কথায় আসি।

পরেরদিন অফিসে গিয়ে আয়ান তার ফ্রেন্ড অভ্রকে সব বলললো মেয়েটার ব্যাপারে।

অভ্র -এমন একটা মেয়েকে তোর ভালোলেগেছে যাকে চিনিস না জানিস না।
আচ্ছা নামটাও তো জানিস না।তাহলে খুঁজবি কি করে?

আয়ান -যদি কপালে থাকে তাহলে দেখা হতেই পারে।

__আয়ানের সেই মেয়েটির দেখার পাবার আশায় দিন যায় মাস যায়।কিন্তু সেই মেয়েটাকে আর দেখা পাওয়া যায় না।।
আয়ানের ভালোলাগা থেকে যে কখন ভালোবাসায় পরিণত পেল আয়ান বুজতেই পারেনাই।
এইভাবে ৩ টা বছর কেটে গেলো কিন্তু আয়ান মেয়েটিকে এখনো ভুলতে পারেনাই।

__বাড়িতে আয়ানের বিয়ের জন্য চাপ দিতেছে।আয়ান কি করবে বুজতে পারছেনা।এতো দিনতো তার বাবা,মাকে অনেক অপেক্ষা করিয়েছে।কিন্তু এইভার তারা কিছুতেই মানছেনা।

আরানের বাবা -আয়ান তুমি কি ঘুমিয়ে পড়েছো?(আয়ানের রুমে এসে)

আয়ান -না বাবা! তুমি কি কিছু বলবে?

আয়ানের বাবা -হ্যা কাল আমরা মেয়ে দেখতে যাচ্ছি,তুমিও আমাদের সাথে যাবে।

আয়ান -বাবা! আরো কয়টা দিন গেল হতো না?

আয়ানের বাবা -তোমাকে আর কোনো সময় দেওয়া হবে না।অনেক দিয়েছি।তোর মা বাসায় একা একা থাকতে হয়,তার কথাটাও তো ভাবতে হয়।

আয়ান- ঠিক আছে বাবা।তোমরা যা ভালোমনে করো তাই করো।

আয়ানের বাবা ছেলের কথায় খুশি হয়ে পরেরদিন মেয়ে দেখতে সবাই মিলে গেলেন।সাথে আয়ানও।মেয়ে কে যখন সামনে আনা হলো আয়ান একটি বারের জন্য মেয়েকে দেখলোনা।আয়ান তখনো মনে মনে সেই মেয়েটির কথায় ভাবছিলো।যাকে সেই আজও ভালোবাসে।

আয়ানের মা- (মেয়ের দিকে তাকিয়ে)মা! তোমার নাম কি?

তানিশা -আমার নাম তানিশা।

আয়ানের মা -আয়ান তুই কিছু জিজ্ঞাস করবিনা।

আয়ান তখনো তানিসাকে না দেখে, না! মা আমার কিছু বলার নাই।তোমরা যা ভালো মনে করো।

__তানিশা তখন আয়ানের দিকে তাকাতেই আয়ানকে তানিশার ভালোলেগে গেলো।

চলবে,,,,,,,,

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে