একটি কষ্টের গল্প

- Advertisement -
- Advertisement -

"এখনই জয়েন করুন আমাদের গল্প পোকা ডট কম ফেসবুক গ্রুপে। আর নিজের লেখা গল্প- কবিতা -পোস্ট করে অথবা অন্যের লেখা পড়ে গঠনমূলক সমালোচনা করে প্রতি সাপ্তাহে জিতে নিন বই সামগ্রী উপহার। আমাদের গল্প পোকা ডট কম ফেসবুক গ্রুপে জয়েন করার জন্য এখানে ক্লিক করুন "

একটা ছেলে আর একটা মেয়ের দেখাশোনা করে বিয়ে হয়েছিল,,
ছেলেটা বেশি লেখাপড়া করেনি আর মেয়েটা মোটামুটি লেখাপড়া জানত,,
ছেলেটার খুব বুদ্ধি ছিল আর মেয়েটাকে খুব ভালোবাসতো ,,

ওরা দুজন বিবাহিত জীবনে খুব খুশি ছিল,,

ছেলেটা যা রোজগার করে আনত সব মেয়েটাকে দিয়ে দিত,,
এই ভাবে অনেক বছর কেটে গেল ,,
কিন্তু মেয়েটার শ্বশুরবাড়ির লোকেরা বলত মেয়েটা এখন একটা বাচ্চা কেন হল না,,
সবাই মেয়েটাকে খোঁটা দিত আর বলতো একটা বাঁজার সাথে আমরা আমাদের ছেলের বিয়ে দিয়েছি,,

একটা বাচ্চার শুখ আমাদের দিতে পারল না,,

মেয়েটা খুব কাঁদতো ওদের কথা শুনে,,

কিন্তু এতে ওই মেয়েটার কোনো দোষ ছিল না,,

যখন ছেলেটা সব জানতে পারলো তখন মেয়েটার দুঃখ বুঝতে পারল ,,

ওরা ঠিক করল একটা বাচ্চা দত্তক নেবে আর একটা মেয়েকে দত্তক নিলো তার নাম রাখল সৃজা,,

ওরা দুজনে খুব ভালোবাসতো সৃজাকে ছেলেটা সৃজাকে বেশি ভালবাসতো,,

ওর ছোট ছোট খুশিগুলোকে খুব খেয়াল রাখতো ,,
ওর কোন জিনিসের যেন কম না হয় সেদিকে খুব নজর রাখত ,,
কিছু বছর পর মেয়েটা প্রেগনেন্ট হল আর ওদের একটা ছেলে হল ,,
ছেলেটা জন্মানোর পর ওরা ছেলেটাকে ভালোবাসতো,,
ওই বাচ্চা দুটোর মধ্যে যখন মারপিট হতো তখন মেয়েটাকে মেয়েটার মা খুব মারতো ,,

এই কথাটা যখন ওর বাবা জানতে পারল তখন ওর মাকে বোঝালো কিন্তু তাও কোন কথা শুনল না ,,
নিজের বরের কাছে নালিশ করতো সৃজার নামে,,

ধীরে ধীরে লোকটাও সৃজাকে ঘৃণা করতে শুরু করল,,
ওরা দুজন সৃজার যত্ন নেওয়া ছেড়ে দিল ও খাবার খেলো কি না খেলো সেটা ওর বাবা-মা দেখতো না,,

ওদের সব ভালোবাসা ওই ছেলেটাকে দিত ,,

কিছুদিন পরে সৃজার পড়াশোনা বন্ধ করে দিল,,
সৃজার পড়াশোনার খুব মন ছিল,,কিন্তু ওরা সৃজার স্কুলে fees ভরত না ,,

সৃজা লোকের বাড়ি কাজ করে স্কুলে fees ভরত একদিন ওর মা বলল তোর কাছে এত টাকা কোথা থেকে এলো…?
তখন মেয়েটা বলল আমি লোকের বাড়িতে কাজ করে টাকা জমিয়েছি,,
তখন মেয়েটার মা বলল মিথ্যে কথা বলছিস,,
কি জানি কি কাজ করে টাকা জমিয়েছিস,,
তখন ওর মা সব টাকা গুলো নিয়ে ওকে ঘর থেকে বার করে দিল,,

তখন সৃজা কাঁদতে কাঁদতে রাস্তা দিয়ে নিজের বেখেয়ালে ছুটে যাচ্ছিল,, হঠাৎ একটা গাড়ির ধাক্কা লেগে সৃজার মৃত্যু হয়ে গেল,,

এই sms ওই মাতা পিতার জন্য যারা বাচ্চা দত্তক নেয় অথচ দায়িত্ব পালন করতে পারে না,, বাচ্চা নিজের হোক বা দত্তক নেওয়া,,
সে তো একটা বাচ্চাই যদি বাচ্চাকে দত্তক নিয়ে আর লালন পালন করতে না পারেন তাহলে তাকে দত্তক না নেওয়াই ভালো,, যতদিন নিজের বাচ্চা ছিল না তখন এই বাচ্চাটাকে ভালবাসত,,
আর যখন নিজের বাচ্চা হল তখন এই বাচ্চাটাকে মৃত্যুর পথে ঠেলে দিল,, এটাই কি ছিল সৃজার নিয়তি…..

  • লেখিকাঃ swapna

গল্প পোকা
গল্প পোকাhttps://golpopoka.com
গল্পপোকা ডট কম -এ আপনাকে স্বাগতম......

Related Articles

তুই আমার পর্ব-৮ এবং শেষ পর্ব

#তুই আমার #পর্বঃ৮ #Tanisha Sultana হসপিটালের করিডোরে সবাই পাইচারি করছে। রিয়াকে অপারেশন থিয়েটারে নিয়ে যাওয়া হয়েছে প্রায় দুই ঘন্টা হয়ে গেছে। রিয়ার বাবা মা অনবরত কান্না...

তুই আমার পর্বঃ৭

#তুই আমার #পর্বঃ৭ #Tanisha Sultana এখনো দাড়িয়ে আছো কেনো যাও চেন্স করে ঘুমিয়ে পড়ো। আবিরের কথায় রুশা মাথা নাড়িয়ে ওয়াশরুমে চলে যায়।।।। দেখতে দেখতে আরও চার মাস...

তুই আমার পর্বঃ৬

#তুই আমার #পর্বঃ৬ # Tanisha Sultana "রাজি হবো না কেনো " আপনার না পছন্দের মানুষ আছে "তো " তো তাকে ছেড়ে আমাকে "সেটা তুমি বুঝবে না " কেনো বুঝবো না "তুমি ছোট তাই।...

1 COMMENT

  1. গল্পটা পরে নিজেকে ধরে রাখতে পারলাম ভাই। তার কথা আজ খুব মনে পরে গেল,,,,, i really sad dp bro.. 😪😪😪🔥🔥

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisement -

Latest Articles

তুই আমার পর্ব-৮ এবং শেষ পর্ব

#তুই আমার #পর্বঃ৮ #Tanisha Sultana হসপিটালের করিডোরে সবাই পাইচারি করছে। রিয়াকে অপারেশন থিয়েটারে নিয়ে যাওয়া হয়েছে প্রায় দুই ঘন্টা হয়ে গেছে। রিয়ার বাবা মা অনবরত কান্না...

তুই আমার পর্বঃ৭

#তুই আমার #পর্বঃ৭ #Tanisha Sultana এখনো দাড়িয়ে আছো কেনো যাও চেন্স করে ঘুমিয়ে পড়ো। আবিরের কথায় রুশা মাথা নাড়িয়ে ওয়াশরুমে চলে যায়।।।। দেখতে দেখতে আরও চার মাস...

তুই আমার পর্বঃ৬

#তুই আমার #পর্বঃ৬ # Tanisha Sultana "রাজি হবো না কেনো " আপনার না পছন্দের মানুষ আছে "তো " তো তাকে ছেড়ে আমাকে "সেটা তুমি বুঝবে না " কেনো বুঝবো না "তুমি ছোট তাই।...

তুই আমার পর্বঃ৫

#তুই আমার #পর্বঃ৫ # Tanisha Sultana "রুশা tnx রুশা রুমে এসে কান্না করছিলো আবিরের কথায় চোখ মুছে বলে " কিসের জন্য "এই যে জয়কে কথা শোনালে তার জন্য...

তুই আমার পর্বঃ৪

#তুই আমার #পর্বঃ৪ #Tanisha Sultana "খুব ভালোবাসো তাকে " হুম বাসি। কিন্তু সে আমার ভালোবাসার মূল্য দিতে পারে নি এটা তার ব্যার্থতা। জানো সে না আমার খুব কেয়ার...
error: ©গল্পপোকা ডট কম